২১ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নিজেদের ফিরে পাওয়ার লড়াই প্রোটিয়া-ইংল্যান্ডের

  • ডারবানে ‘বক্সিং ডে’ টেস্ট দিয়ে শুরু চার ম্যাচের সিরিজ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ‘বক্সিং ডে’ টেস্ট দিয়ে শুরু হচ্ছে সিরিজ। খ্রিস্টীয় ধর্মের সবচেয়ে বড় উৎসব ‘বড়দিন পালনের পরদিনই ডারবানে মুখোমুখি হবে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা ও ইংল্যান্ড। তিন বছর পর আবারও লড়াইয়ে নামছে দু’দল। চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজে নিজেদের ফিরে পাওয়ার লড়াই উভয় দলেরই। কারণ সম্প্রতিই ভারত সফরে চার টেস্টের সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে হেরে ফিরেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। আর আরব আমিরাতে গিয়ে পাকিস্তানের কাছে ২-০ ব্যবধানে সিরিজ হেরে ফিরেছে ইংলিশরা। তবে দুটি তিনদিনের প্রস্তুতি ম্যাচে দারুণ খেলে প্রোটিয়া চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার জন্য ভালভাবেই নিজেদের প্রস্তুত করেছে সফরকারী ইংল্যান্ড। আর ঘরের মাঠে ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াই আইসিসি টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ের সেরা দল দক্ষিণ আফ্রিকার।

২০০৪ সাল থেকে দক্ষিণ আফ্রিকা-ইংল্যান্ড টেস্ট সিরিজটির নামকরণ করা হয়েছে বাসিল ডি’অলিভিয়েরা সিরিজ। সেবার ইংল্যান্ড দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে ৫ টেস্টের সিরিজে ২-১ ব্যবধানে জিতে ঘরে ফিরেছিল। তবে এরপর প্রোটিয়াদের বিপক্ষে শুধু পরাজয়ই দেখেছে তারা। ২০০৮ সালে ইংল্যান্ডে গিয়ে ২-১ এবং সর্বশেষ ২০১২ সালে আবারও ইংল্যান্ড সফরে ২-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতেছে প্রোটিয়ারা। তবে ২০০৯ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে সিরিজ ড্র করে ইংলিশরা ১-১ সমতায়। সেদিক থেকে বিবেচনা করলে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে সর্বশেষ ১১ বছরে ইংল্যান্ড বেশ সফল। এবার সেই সফলতা ধরে রাখার চ্যালেঞ্জ তাদের জন্য। যদিও সেই চ্যালেঞ্জে নামার আগেই শক্তিশত্তায় সামান্য ঘাটতি তৈরি হয়েছে অন্যতম পেসার জেমস এ্যান্ডারসনের অনুপস্থিতি। হাঁটুর ইনজুরির কারণে তিনি ডারবান টেস্টে খেলতে পারবেন না। আবার বৃহস্পতিবার মিডলঅর্ডারের স্তম্ভ জো রুট পেটের পীড়ায় ভোগার কারণে অনুশীলন করতে পারেননি। তবে এ দুটি দুঃসংবাদের সঙ্গে একটি সুখবরও আছে ইংলিশদের জন্য। পেসার স্টিভেন ফিন ইনজুরি কাটিয়ে পরিপূর্ণ ফিট হয়ে উঠেছেন। এবার অবশ্য অন্যতম অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান ইয়ান বেলকে ছাড়াই দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে এসেছে ইংল্যান্ড। তবে ফিরেছেন নিক কম্পটন। একাদশে ফিরতে পারেন ক্রিস ওকসও। সম্প্রতিই আরব আমিরাতে পাকিস্তানের কাছে ২-০ ব্যবধানে সিরিজ হেরে ফেরা ইংল্যান্ডের জন্য ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াইয়ে এ্যালিস্টার কুকের সতীর্থ হিসেবে তাই বেশ কয়েকজন তরুণ থাকছেন। ওপেনিংয়ে তার সঙ্গী হবেন এ্যালেক্স হেলস। তবে এবার এ্যাশেজ জয়ী ইংল্যান্ড পাকদের বিপক্ষে সিরিজ জিতলেও বেশ উজ্জীবিত অবস্থায়ই আছে। কারণ দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে দুটি তিনদিনের প্রস্তুতি ম্যাচে ব্যাটসম্যানরা রান পেয়েছেন।