২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পৌর নির্বাচনের প্রচার ও আধিপত্য বিস্তার নিয়ে জেলায় জেলায় সংঘর্ষ

  • নিহত ১, আহত ২৫

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ নির্বাচনী প্রচার ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার, শুক্রবার ও শনিবার ১০ জেলায় সংঘর্ষ, ভাংচুর ও মারামারির ঘটনা ঘটেছে। এতে একজন নিহত ও অন্তত ২৫ জন আহত হয়েছে। কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে সংঘর্ষে মকবুল হোসেন চৌধুরী নামে এক ব্যবসায়ী নিহত হয়। আহত হয়েছে শরীয়তপুরে ও বরিশালে ১০ জন করে ২০ ও নড়াইলে ২, যশোর, ঈশ্বরদী ও ভোলায় একজন করে। খবর নিজস্ব সংবাদদাতা ও স্টাফ রিপোর্টারদের।

শরীয়তপুর জেলার নড়িয়া পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী হায়দার আলী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী শহীদুল ইসলাম বাবু রাঢ়ীর সমর্থকদের মধ্যে নড়িয়া বাজারে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে ককটেল বিস্ফোরণ ও ইটপাটকেল নিক্ষেপে স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থক নড়িয়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান জাকির হোসেনসহ উভয় গ্রুপে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। শনিবার দুপুরে শুরু সংঘর্ষ প্রায় ১ ঘণ্টা ধরে চলে। এ সময় অর্ধশত ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। সংঘর্ষকারীরা রামদা, টেঁটা, সড়কি-ককটেলসহ দেশী অস্ত্র ব্যবহার করে। স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী শহীদুল ইসলাম বাবু রাঢ়ী জানান, গত তিন দিন ধরে সংসদ সদস্য কর্নেল (অব) শওকত আলীর লোকজন তার কর্মী-সমর্থকদের ওপর হামলা চালাচ্ছে। শনিবার দুপুরে তার সমর্থকরা বোমা হামলা চালিয়েছে। এতে কয়েকজন আহত হয়েছে। এদিকে এমপি কর্নেল (অব) শওকত আলী বলেছেন, আমি যতটুকু শুনেছি ওরা বিচ্ছিন্নভাবে আমার লোকজনদের ওপর হামলা চালাচ্ছে। নড়িয়া থানার ওসি একরাম আলী বলেন, নড়িয়াতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত আছে।

নির্বাচিত সংবাদ