১৫ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আমির ইস্যুতে দ্বিধাবিভক্ত পাকিস্তান

স্পোর্টস রিপোর্টার॥ স্পট ফিক্সিংয়ের কলঙ্কটা এখনও তাড়িয়ে বেড়াচ্ছে পাকিস্তান ক্রিকেটকে। আর ওই কা-ে দোষী সাব্যস্ত হয়ে ৫ বছরের নিষেধাজ্ঞা পাওয়া তরুন পেসার মোহাম্মদ আমির তো এখন জাতীয় দলে ফেরার পথেই আছেন। তিনি সম্প্রতিই ২৬ জন ক্রিকেটারকে নিয়ে গড়া জাতীয় দলের ফিটনেস ক্যাম্পেও যোগ দিয়েছেন। তবে পাপী আমিরকে কোনভাবেই মানতে পারছেন না পাক ওয়ানডে অধিনায়ক আজহার আলী ও অভিজ্ঞ ওপেনার মোহাম্মদ হাফিজ। সে কারণে তারা ক্যাম্প বয়কটও করেছেন। এ বিষয়টি নিয়ে এখন পাক ক্রিকেটই দ্বিধাবিভক্ত হয়ে পড়েছে। অবশ্য পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) চেয়ারম্যান শাহরিয়ার খান আজহার-হাফিজের সঙ্গে আলোচনার পর এ দুই ক্রিকেটার রাজি হয়েছেন অনুশীলনে ফেরার ব্যাপারে। তবে সাবেক পাক ক্রিকেটাররা আমিরের ফেরা নিয়ে পরস্পরবিরোধী মন্তব্য করেছেন।

স্পট ফিক্সিংয়ে যুক্ত হওয়ার কারণে ক্ষমা প্রার্থনা করা ছাড়াও পূনর্বাসন প্রক্রিয়ার অধীনে বিভিন্ন সচেতনতামূলক কার্যক্রমে অংশ নিয়েছেন আমির। সে কারণে তাঁর ওপর সন্তুষ্ট পিসিবি। আর ৫ বছরের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার পথ উন্মুক্ত হওয়া আমির ঘরোয়া ক্রিকেটে নিজের যোগ্যতা ও সামর্থ্যও প্রমাণ করেছেন। সে কারণে তিনি দ্রুতই জাতীয় দলে ফিরবেন এমনটাই ধারণা করা হচ্ছে। কিন্তু প্রথমবার জাতীয় দলের ক্যাম্পে ডাক পেয়েই বিতর্ক জন্ম দিয়েছেন আমির। কেউ তাঁকে আবারও ফিরে চায়, আবার কেউ তাঁকে না ফেরানোর পক্ষে। আর বর্তমান জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের মধ্যে আজহার-হাফিজ তো পুরোপুরিই আমিরকে মেনে নিতে পারছেন না। এ কারণে দলের ফিটনেস ক্যাম্প বয়কটও করেছেন দু’জন। যদিও শাহরিয়ার খান পুরো বিষয়টি ব্যাখ্যা করে আজহার-হাফিজকে অনুশীলনে যোগ দেয়ার অনুরোধ করেছেন। শেষ পর্যন্ত তারা রাজিও হয়েছেন ফিরে আসার ব্যাপারে। এ বিষয়ে শাহরিয়ার বলেন,‘তাঁরা উভয়েই আমার সঙ্গে দেখা করে জানিয়েছেন অনুশীলন ক্যাম্পে যোগ দেয়ার সিদ্ধান্তটা। আমি তাঁদের এ বিষয়ে যে মনোভাব সেটাকে অবশ্যই যথেষ্ট মর্যাদা দেই। কিন্তু কিছুক্ষেত্রে বিষয়টা গ্রহণযোগ্য নয়। তাঁরা সে বিষয়গুলো বুঝেছেন এবং নিশ্চিত করেছেন যে আমাদের যে নিয়মনীতি আছে সেটার সঙ্গেই থাকবেন। তাই এখন আমরা আর এ বিষয়টি নিয়ে ভাবছি না, বরং দলের সাফল্য নিয়ে চিন্তাভাবনা শুরু করেছি।’