২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নির্বাচনী ব্যবস্থাকে ধ্বংস করতে উঠে পড়ে লেগেছে বিএনপি ॥ আওয়ামী লীগ

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ বিএনপি বাংলাদেশের নির্বাচনী ব্যবস্থাকে ধ্বংস করতে উঠে পড়ে লেগেছে বলে অভিযোগ করেছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ করে দলটি বলেছে, পাকিস্তানী গোয়েন্দা সংস্থার জরিপের ফল দিয়ে বাংলাদেশের মানুষের ভোট পাওয়া যাবে না। বাংলাদেশের জনগণ আপনার হিংস্র-দানবীয় রূপ আর দেখতে চায় না।

রবিবার সন্ধ্যায় ধানম-িতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন দলটির যুগ্মসাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ। বিএনপি-জামায়াতপন্থী ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের দ্বিবার্ষিক সম্মেলনে খালেদা জিয়ার বিভিন্ন অভিযোগের জবাব দিতেই আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে এ সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এদিকে রাজধানীর অপর এক অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোঃ নাসিম বলেছেন, দেশে পৌর নির্বাচনকে ঘিরে উৎসবের সুবাতাস বইছে, সেই উৎসবে খালেদা যোগ দিয়েছেন; তাকে ধন্যবাদ।

‘সুষ্ঠু ভোট হলে ৮০ শতাংশ ভোট পেয়ে ধানের শীষ বিজয়ী হবে’Ñ খালেদা জিয়ার এমন বক্তব্যের জবাবে হানিফ বলেন, কোথায় থেকে উনি জরিপের এ তথ্য পেলেন? সেটা দেশবাসীরও প্রশ্ন। পাকিস্তানী গোয়েন্দা সংস্থার জরিপের তথ্য উনার কাছে থাকতে পারে। উনি তো এখনও পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থার নির্দেশে চলেন। পাকিস্তানের প্রেতাত্মা, ধারক-বাহক হয়ে তাদের চিন্তা-চেতনা বাস্তবায়ন করে চলেছেন খালেদা জিয়া। তাই পাকিস্তানী এজেন্ডা বাস্তবায়ন করার জন্য পাকিস্তানী গোয়েন্দা সংস্থার রিপোর্ট তার কাছে থাকবে এটাই স্বাভাবিক। তবে পাকিস্তানী গোয়েন্দা সংস্থার জরিপের ফল দিয়ে বাংলাদেশের মানুষের ভোট পাওয়া যাবে না।

মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেন, এ নির্বাচনকে শুরু থেকে বিতর্কিত করে বাংলাদেশের নির্বাচনী ব্যবস্থাকে ধ্বংস করার জন্য বিএনপি উঠে পড়ে লেগেছে। কোন কারণ ছাড়াই প্রতিদিন বিএনপির সিনিয়র নেতারা বিভিন্ন জায়গায় থেকে দুই-তিন দফায় নানা অসত্য তথ্য দিয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করে যাচ্ছেন। মিথ্যাচার করে জাতিকে বিভ্রান্ত ও নির্বাচন কমিশনকে বিতর্কিত করার চেষ্টা করছেন। তিনি বলেন, যে দলটির জন্মই হয়েছিল অবৈধভাবে সেনা ছাউনিতে, সেই দলটির নেত্রী খালেদা জিয়ার কাছ থেকে গণতন্ত্রের নসিহত নিতে হচ্ছে। কিন্তু বাংলাদেশের মানুষ আপনাদের সন্ত্রাসী-নাশকতামূলক কর্মকা- কঠোরহস্তে দমন দেখতে চায়।

খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ করে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, আপনাকে কে বলেছে যে ক্ষমতায় আসবেন? আমরা এটুকু আশ্বস্ত করতে পারিÑ খালেদা জিয়া আপনি নিশ্চিন্তে থাকতে পারেন, বাংলাদেশের জনগণ আপনার হিংস্র-দানবীয় রূপ আর দেখতে চায় না। আপনি এই দেশে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় এসে যে তা-ব চালিয়েছিলেন, তা আর বাংলাদেশের মানুষ দেখতে চায় না। আপনার রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় যাওয়ার সুযোগ আছে বলে বাংলাদেশের মানুষ মনে করে না।

‘ভোট চুরি করতেই সাংবাদিকদের কেন্দ্রের ভেতরে যেতে দেয়া হচ্ছে না’Ñ খালেদা জিয়ার এ অভিযোগ নাকচ করে দিয়ে হানিফ বলেন, সাংবাদিকদের যে পর্যন্ত সীমানায় যাওয়ার অধিকার আছে, সেই জায়গাগুলোতে তারা অবশ্যই যাবেন। এ ব্যাপারে কোন নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে বলে আমাদের জানা নেই। কেবলমাত্র নির্বাচনের সময়ে যেখানে গোপনে ভোটের সিল দেয়া হয়, সেই জায়গায় কারোরই যাওয়ার অধিকার নেই। খালেদা জিয়া তার অজ্ঞতা থেকেই এসব অভিযোগ করে জাতিকে বিভ্রান্ত করতে চাইছেন।

সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেনÑ কেন্দ্রীয় নেতা ডাঃ দিপু মনি এমপি, বিএম মোজাম্মেল হক এমপি, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি, ড. আবদুর রাজ্জাক এমপি, ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, ডাঃ বদিউজ্জামান ভূঁইয়া ডাবলু, এসএম কামাল হোসেন, সুজিত রায় নন্দী, স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি মোল্লা মোঃ আবু কাওছার, সাধারণ সম্পাদক পংকজ দেবনাথ এমপি প্রমুখ।

রবিবার রাজধানীর একটি হোটেলে এফডব্লিউএ রেজিস্টারের ৮ম সংস্করণের উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উদ্দেশে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, দেশের মানুষের তথ্য-উপাত্ত সংরক্ষণে নতুন যে রেজিস্টার দেয়া হলো তা সঠিকভাবে পূরণ করবেন। এখানে কোন ফাঁকির আশ্রয় নেবেন না। কোন মিথ্যা তথ্য দেবেন না। সম্মিলিত তালিকাভুক্তির মাধ্যমে সকল তথ্য-উপাত্ত সংরক্ষণ করতে হবে, যাতে হাতের কাছেই প্রয়োজনীয় তথ্য পাওয়া যায়।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার পর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে পরিবার পরিকল্পনা কার্যক্রম শুরু হয়। বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন, ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত দেশ গড়ার জন্য পরিবার ছোট করতে হবে। বাংলাদেশ এখন দারিদ্র্যতা দূর করার পথে।

রেজিস্টার ডিজিটাল পদ্ধতিতে নিয়ে আসার তাগিদ দিয়ে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, আজ বাংলাদেশ সবদিক থেকেই আধুনিক ও ডিজিটাল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়কে এজন্য ধন্যবাদ জানান তিনি। মন্ত্রী বলেন, এক সময় জন্ম নিয়ন্ত্রণের পদ্ধতি গ্রহণে মানুষ বিমুখ ছিলেন; ধর্মীয় নেতারা এর বিরুদ্ধে ছিলেন। এখনও কিছুটা আছে। তিনি বলেন, বাংলাদেশের মানুষের গড় আয়ু বেড়েছে, সেই সঙ্গে নানা রোগও বেড়েছে। তাই আমাদের সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে কাজ করতে হবে।

সেভ দ্য চিলড্রেনের সহায়তায় পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতর আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতরের মহাপরিচালক মোঃ নুর হোসেন তালুকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেনÑ কমিউনিটি ক্লিনিক প্রকল্পের প্রধান সমন্বয়কারী ডাঃ মাখদুমা নার্গিস, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব বিমান কুমার সাহা, নিপোর্টের মহাপরিচালক ওয়াহিদ হোসাইন, ইউএসএআইডির প্রতিনিধি ডাঃ সুকুমার সরকার, পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতরের পরিচালক (এমআইএস) আবদুল মান্নান ইলিয়াস ও সেভ দ্য চিলড্রেনের পরিচালক ডাঃ ইশতিয়াক মান্নান।

অনুষ্ঠানে দেশের ৭টি বিভাগের ৭ জন শ্রেষ্ঠ এফডব্লিউএ’র হাতে নতুন রেজিস্টার তুলে দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। এদিকে বিকেলে পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতরের মহাপরিচালক নুর হোসেন তালুকদারের বিদায়ী সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে অংশ নেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

নির্বাচিত সংবাদ