২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ব্রিটেনে ভয়াবহ বন্যা, বাড়িঘর ছেড়েছে কয়েক হাজার মানুষ

ইংল্যান্ডের উত্তরাঞ্চলের বেশ কয়েকটি এলাকায় শনিবার প্রবল বর্ষণের কারণে বন্যা দেখা দিয়েছে। প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে কয়েক হাজার মানুষ বাড়িঘর ছেড়ে অন্যত্র চলে গেছে এবং সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। বন্যায় ইংল্যান্ডের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে ল্যাঙ্কাশায়ার ও উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে ইয়র্কশায়ার সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। পরিবেশ কর্মকর্তারা ওই এলাকাগুলোতে তিন শ’ সতর্কতা বার্তা জারি করেছেন। এদের মধ্যে ২০টি সম্ভাব্য ভয়াবহ বন্যার সতর্কতা বার্তা। বন্যায় বিদ্যুতের একটি সাবস্টেশনের ক্ষতি হওয়ায় ওই অঞ্চলের প্রায় ১০ হাজার বাড়িতে বিদ্যুত সংযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। বন্যার পানিতে নিমজ্জিত বাড়িঘর থেকে বহু বয়স্ক ও বিপদগ্রস্ত মানুষকে লাইফবোটে করে উদ্ধার করা হয়েছে। কোন কোন এলাকার পানি বাড়িঘর ও দোকানের নিচের দিকের জানালার কাছে পৌঁছেছে। এতে মহাসড়কগুলো কাদাপানির জলপথে পরিণত হয়েছে। সংকীর্ণ কাউন্টির পথগুলোতে পানির তোড় থাকায় মানুষ গাড়িগুলোকে পরিত্যক্ত রেখে পালিয়ে গেছে। প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনের সোমবার বন্যা উপদ্রুত এলাকাগুলো সফর করার কথা রয়েছে।

এক লাখ লোক বাস্তুচ্যুত ॥ দক্ষিণ আমেরিকার প্যারাগুয়ে, উরুগুয়ে, ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনার সীমান্ত এলাকায় বন্যার কারণে এক লাখেরও বেশি লোককে তাদের ঘরবাড়ি থেকে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। আবহাওয়া প্রপঞ্চ এল নিনোর কারণে চলতি গ্রীষ্মে ওই এলাকায় ব্যাপক বৃষ্টিপাতে মারাত্মক বন্যা দেখা দিয়েছে বলে শনিবার জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। চারটি দেশের মধ্যে প্যারাগুয়েতে বন্যার কারণে সবচেয়ে বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। দেশটির রাজধানী আসুনসিওনের আশপাশ থেকে প্রায় ৯০ হাজার লোককে সরিয়ে নেয়া হয়েছে বলে নগর কর্তৃপক্ষের জরুরী দফতর জানিয়েছে। এসব লোকজনের অধিকাংশই প্যারাগুয়ে নদীর তীরের বাসিন্দা। দরিদ্র এসব লোকজন নদী তীরে অস্থায়ীভাবে তৈরি কাঁচা ঘরে বসবাস করে আসছিল। বন্যার্তদের সহায়তার জন্য আসুনসিওনসহ ও আরও সাতটি এলাকায় জরুরী অবস্থা জারি করেছে প্যারাগুয়ে সরকার। স্থানীয় গণমাধ্যমগুলোতে ঝড়বৃষ্টির সময় গাছ পড়ে কয়েকজন নিহত হওয়ার কথা জানানো হলেও সরকারীভাবে এ বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি। -এএফপি

এই মাত্রা পাওয়া