১৭ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ব্যাটসম্যানদের দিকে তাকিয়ে শ্রীলঙ্কা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ নিউজিল্যান্ড সফরে কিছুতেই ব্যর্থতার বৃত্ত থেকে বেরিয়ে আসতে পারছে না শ্রীলঙ্কা। সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের অবস্থা খুবই নাজুক। মূলত ব্যাটসম্যানদের হতাশাজনক পারফর্মেন্সই গোটা দলকে গ্রাস করেছে। বেশি করে মনে পড়ছে অবসরে যাওয়া দুই গ্রেট কুমার সাঙ্গাকারা ও মাহেলা জয়াবর্ধনেকে। শুরুতে অধিনায়ক এ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস বলেছিলেন, এই সফর দিয়ে ঘুরে দাঁড়াতে চান তারা। কিন্তু মাঠে তার ছিটেফোঁটা লক্ষণও নেই। দুই টেস্টের সিরিজে ‘হোয়াইটওয়াশ’ হওয়ার পর ক্রাইস্টচার্চে প্রথম ওয়ানডেতে ৭ উইকেটের লজ্জার হারে পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ১-০তে পিছিয়ে লঙ্কানরা। অতিথিরা এখন কেবল ব্যাটসম্যনদের দিকে তাকিয়ে। একই ভেন্যুতে আজ (বাংলাদেশ সময় রবিবার ভোর চারটায়) দ্বিতীয় ওয়ানডে। শ্রীলঙ্কার যে কী হয়েছে, কিছুতেই ছন্দ ফিরে পাচ্ছে না ম্যাথুসের দল। ঘরের মাটিতে পাকিস্তানের কাছে টেস্ট-ওয়ানডের পর ভারতের কাছেও টেস্ট সিরিজে হারে অর্জুনা রানাতুঙ্গার উত্তরসূরিরা। নিউজিল্যান্ড সফরে ডুনেডিনে প্রথম টেস্টে ১২২ রানের পর হ্যামিল্টসে ৫ উইকেটে হারে অতিথিরা। প্রথম ওয়ানডেতে তো লঙ্কানদের নিয়ে রীতিমতো ছেলেখেলা করে কিউইরা। ৪৭ ওভারে ১৮৮ রানে অলআউট হয় শ্রীলঙ্কা। সাত ব্যাটসম্যান দুই অঙ্ক ছুঁতে পারেননি! জবাবে মার্টিন গাপটিল (৫৬ বলে ৭৯) ও ব্রেন্ডন ম্যাককুলামের ব্যাটিং (২৫ বলে ৫৫)-তা-বে ২১ ওভারে ৭ উইকেট অক্ষত রেখে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় নিউজিল্যান্ড। লঙ্কান অধিনায়ক ম্যাথুস বলেন, ‘এ উইকেটে টসে হারাটা দুর্ভাগ্য বাড়িয়েছে। তবে ব্যর্থতার দায়িত্বটা ব্যাটসম্যানদেরই নিতে হবে। আমাদের টপঅর্ডার পুরোপুরি ব্যর্থ। কেবল এই ওয়ানডেতে নয়, টেস্ট সিরিজেও আমরা একই সমস্যায় পড়েছি। তবে সিরিজ শেষ হয়ে যায়নি। ঘুরে দাঁড়াতে তাই ব্যাটসম্যানদের দায়িত্ব নিতে হবে। বেশ কিছুদিন হলো আমরা নিউজিল্যান্ডে এসেছি। কন্ডিশন নিয়ে অজুহাতের সুযোগ নেই।’ ব্যাটসম্যানদের সামর্থ্য নিয়ে সন্দেহ নেই কোচ মারভান আতাপাত্তুর। তাদের মানসিকভাবে শক্ত হতে হবে বলে মনে করেন তিনি। মারভান বলেন, ‘গত নিউজিল্যান্ড সফরে, এমন কি বিশ্বকাপেও আমাদের ব্যাটিং এতটা খারাপ হয়নি। দলে তিলকারতেœ দিলশান, লাহিরু থিরিমান্নে, এ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসের মতো ব্যাটসম্যান আছে।