১৫ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সুন্দরবনে বন্দুকযুদ্ধে দুই দস্যু নিহত অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার

সুন্দরবনে বন্দুকযুদ্ধে দুই দস্যু নিহত অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার
  • জেলেদের স্বস্তি

স্টাফ রিপোর্টার, বাগেরহাট ॥ পূর্ব সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের তাম্বুলবুনিয়া খালে সোমবার সকালে র‌্যাব-৮ এর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে বাহিনী প্রধানসহ ২ বনদস্যু নিহত হয়েছে। নিহতরা হলো বনদস্যু আকাশ বাহিনীর প্রধান কাশেম ওরফে আকাশ (৪০) ও তার সহযোগী ফরিদ ওরফে মাইজ্যে (৪৫)। এ সময় বনের ভেতরে তল্লাশি করে ১৭ টি দেশী-বিদেশী আগ্নেয়াস্ত্র ও ৪৫০ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে র‌্যাব। নিহত বনদস্যুরা বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

উদ্ধারকৃত আগ্নেয়াস্ত্রের মধ্যে রয়েছে ৪টি এলজি, ৫টি কাটা বন্দুক, ৬টি একনলা বন্দুক, ২টি এয়ার রাইফেল ,৩৩টি বন্দুকের তাজা কার্তুজ, ১৪৭ রাউন্ড, ২২ বোর রাইফেলের গুলি, ২৬৪টি এয়ারগানের গুলি, ৩৬টি বন্দুকের ফায়ারকৃত কার্তুজ (খোসা), ৭টি দেশীয় তৈরি ধারালো অস্ত্র/রাম দা, চাঁদা আদায়ের কার্ড ও বিপুল পরিমাণ রশদ সামগ্রী।

এদিকে, বিপুল আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার ও কুখ্যাত দুই বনদস্যু নিহতের ঘটনায় জেলেরা স্বস্তি প্রকাশ করেছেন। তারা দস্যুদের গডফাদার ও অস্ত্র সরবরাহকারীদের দ্রুত আটকের দাবি জানিয়েছেন।

র‌্যাব-৮ এর অপারেশন অফিসার ও উপ-অধিনায়ক মেজর আদনান কবির জানান, র‌্যাবের একটি দল সুন্দরবনে অপহরণ, মুক্তিপণ আদায় রোধে নিয়মিত টহল দিচ্ছিল। টহলের অংশ হিসেবে আজ সোমবার সকালে সুন্দরবনের ভেতর থেকে ধোঁয়া উড়তে দেখে বনদস্যুদের আস্তানার সন্ধান শনাক্ত করে। এ সময় র‌্যাবের টহল দল সুন্দরবনের ওই এলাকার দিকে এগুতে থাকলে বনদস্যুরা র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলিবর্ষণ শুরু করে। র‌্যাবও পাল্টা গুলি শুরু করে।

প্রায় ঘণ্টাব্যাপী উভয়পক্ষের গুলি-পাল্টা গুলি ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়ে বনদস্যুরা পিছু হটে যায়। এ সময় বনের ওই এলাকায় র‌্যাব সদস্যরা তল্লাশি করে বনের ভেতরে ছড়িয়ে থাকা ১৭ টি বিভিন্ন ধরনের আগ্নেয়াস্ত্র, ৪৫০ রাউন্ড গুলি ও দুই বনদস্যুর গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করে। পরে স্থানীয় জেলেরা নিহত দুই বনদস্যু আকাশ বাহিনীর প্রধান কাশেম ওরফে আকাশ ও তার সেকেন্ড ইন কমান্ড ফরিদ ওরফে মাইজ্যে বলে শনাক্ত করে। উদ্ধারকৃত আগ্নেয়াস্ত্র ও বনদস্যুদের লাশ বাগেরহাটের মংলা থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলে র‌্যাবের কর্মকর্তা জানান।