১৮ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

যুবাদের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি শুরু হচ্ছে আগেভাগেই

  • অনুশীলনের প্রথম দিনেই ৩ জানুয়ারি যোগ দেবেন পরামর্শক স্টুয়ার্ট ল

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আবারও বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বড় একটি আইসিসি ইভেন্ট। আগামী ২৭ জানুয়ারি শুরু হবে অনুর্ধ ১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপ। আর ১১তম এ আসরটির গর্বিত আয়োজক বাংলাদেশ। ২০০৪ সালের পর দ্বিতীয়বারের মতো যুব বিশ্বকাপ ক্রিকেট আয়োজন হতে যাচ্ছে এখানে। আগের মতোই এবারও ১৬ দল অংশ নেবে এ আসরে। সবমিলিয়ে ১৯ দিনের টুর্নামেন্টে ৪৮ ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। ঢাকা, কক্সবাজার, চট্টগ্রাম ও সিলেটের মোট ৮ ভেন্যুতে খেলাগুলো হবে। উদ্বোধনী ম্যাচে ২৭ জানুয়ারি স্বাগতিক বাংলাদেশ ও গতবারের চ্যাম্পিয়ন দক্ষিণ আফ্রিকা এবং ইংল্যান্ড ও ফিজি চট্টগ্রামে মুখোমুখি হবে। অবশ্য ২২ জানুয়ারি থেকে প্রস্তুতি ম্যাচ দিয়ে যুব বিশ্বকাপের যাত্রা শুরু হয়ে যাবে। বাংলাদেশ যুব ক্রিকেট দল ‘এ’ গ্রুপে দক্ষিণ আফ্রিকা ছাড়াও লড়বে নামিবিয়া ও স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে। বিশ্বকাপ সামনে রেখে আগেভাগেই অনুশীলন শুরু করবে বাংলাদেশের যুবারা। আগামী ৩ জানুয়ারি থেকে শুরু হতে যাওয়া অনুশীলন ক্যাম্পে প্রথম দিন থেকেই যোগ দেবেন অস্ট্রেলিয়ান কোচ স্টুয়ার্ট ল। তিনি পরামর্শক হিসেবে কাজ করবেন। বাংলাদেশ এর আগেও সফলভাবে আইসিসির বড় আসর আয়োজন করেছে। ২০১১ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপের যৌথ আয়োজক এবং ২০১৪ সালের টি২০ বিশ্বকাপের একক আয়োজক ছিল বাংলাদেশ। তবে বিশ্বকাপ এককভাবে আয়োজন এর আগে ২০০৪ সালে যুবাদেরটাই করেছিল। আর গত বছর টি২০ বিশ্বকাপ। আবারও বিশ্বকাপের গর্বিত আয়োজক বাংলাদেশ। বাংলাদেশ যুব দল ১৯৯৮ সালে প্রথমবার প্লেট চ্যাম্পিয়ন হয় অনুর্ধ ১৯ ক্রিকেটের সর্বোচ্চ এ আসরে। এছাড়া ২০০৪ সালের ঘরের মাঠে এবং ২০১০ ও ২০১৪ সালেও প্লেট চ্যাম্পিয়ন হয় বাংলাদেশ। এখন পর্যন্ত মাত্র তিনবার গ্রুপ পর্ব পেরিয়ে সুপার লীগ খেলতে পেরেছে বাংলাদেশের যুবারা। সেরা সাফল্য ২০০৬ সালে শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত যুব বিশ্বকাপে পঞ্চম স্থান অর্জন। বর্তমানে বাংলাদেশ জাতীয় দল ওয়ানডে ক্রিকেটে অন্যতম শক্তিধর দল। সে কারণে ভবিষ্যতে বাংলাদেশ দলের কা-ারি হবেন যারা সেই তরুণদেরও দারুণ কিছু করার চ্যালেঞ্জ। আগের যে কোন বারের চেয়ে এবার যুব বিশ্বকাপে নিজেদের সেরা সাফল্য পেতে চায় বাংলাদেশের তরুণরা। আর সে কারণেই টুর্নামেন্ট শুরুর তিন সপ্তাহ আগেই অনুশীলন শুরু করবে যুবদল।

স্থানীয় কোচ মিজানুর রহমান বাবুলের অধীনে আগামী ৩ জানুয়ারি আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হবে যুব ক্রিকেটারদের অনুশীলন। তবে বাংলাদেশের যুবারা পাবে স্টুয়ার্ট ল’র মতো আন্তর্জাতিক মানের কোচের পরামর্শ। বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক এ অস্ট্রেলিয়ান কোচ গত অক্টোবরেই বাংলাদেশে আসার কথা ছিল। কিন্তু ওই সময় নিরাপত্তার অজুহাতে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল বাংলাদেশ সফর স্থগিত করায় তিনিও আসেননি। স্টুয়ার্টের সঙ্গে মোট ১৬ সপ্তাহের চুক্তি আছে বিসিবির। এবার অবশিষ্ট ৮ সপ্তাহের যে চুক্তি তা পূরণ করতে তিনি যুবদলের অনুশীলনে প্রথম দিন থেকেই যোগ দেবেন। এমনটাই জানিয়েছেন বিসিবির গেম ডেভেলপমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদ সুজন। তবে নিরাপত্তা ইস্যু নিয়ে অস্ট্রেলিয়া যুবদল শেষ পর্যন্ত বিশ্বকাপে অংশ নেবে কিনা সেটা নিয়ে শঙ্কা আছে। কিন্তু এবার আসবেনই স্টুয়ার্ট। থাকবেন বিশ্বকাপে বাংলাদেশের মিশন শেষ হওয়া পর্যন্ত।