২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মহিলা হ্যান্ডবল শুরু

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ হ্যান্ডবল ফেডারেশনের ব্যবস্থাপনায় এবং এক্সিম ব্যাংক লিমিটেডের পৃষ্ঠপোষকতায় সোমবার বিকেল শহীদ (ক্যাপ্টেন) এম. মনসুর আলী জাতীয় হ্যান্ডবল স্টেডিয়ামে শুরু হয়েছে এক্সিম ব্যাংক ২৬তম জাতীয় মহিলা হ্যান্ডবল প্রতিযোগিতা। দেশের বিভিন্ন সংস্থা ও জেলা থেকে সর্বমোট ১৮ হ্যান্ডবল দল ৪ গ্রুপে অংশগ্রহণ করছে। প্রতিযোগিতার প্রথম রাউন্ডের খেলাগুলো শহীদ (ক্যাপ্টেন) এম. মনসুর আলী জাতীয় হ্যান্ডবল স্টেডিয়াম এবং ধানম-ির সুলতানা কামাল মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্সে অনুষ্ঠিত হয়। উদ্বোধনী খেলায় ঢাকা জেলা ১১-৬ গোলে দিনাজপুর জেলাকে পরাজিত করে।

জাতীয় হ্যান্ডবল স্টেডিয়ামে সকালে অনুষ্ঠিত খেলায় পঞ্চগড় জেলা ২০-২ গোলে জামালপুর জেলাকে, দিনাজপুর ১৮-৯ গোলে সাতক্ষীরা জেলাকে, নওগাঁ জেলা ২১-০ গোলে মাদারীপুর জেলাকে, ঢাকা জেলা ২৫-০ গোলে ফেনী জেলাকে এবং দুপুরে অনুষ্ঠিত খেলায় পঞ্চগড় জেলা ৩১-০ গোলে মাদারীপুর জেলাকে, সাতক্ষীরা জেলা ১৫-৫ গোলে ফেনী জেলাকে ও বিকেলে নওগাঁ জেলা ২২-০ গোলে জামালপুর জেলাকে পরাজিত করে। সুলতানা কামাল মহিলা কমপ্লেক্সে অনুষ্ঠিত খেলাগুলোয় বাংলাদেশ পুলিশ ১৫-৯ গোলে কিশোরগঞ্জ জেলাকে, কুষ্টিয়া জেলা ১৪-৫ গোলে গোপালগঞ্জ জেলাকে, ফরিদপুর জেলা ২০-৩ গোলে চুয়াডাঙ্গা জেলাকে এবং যশোর জেলা ১১-৪ গোলে নড়াইল জেলাকে পরাজিত করে। এর আগে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত প্রধান অতিথি হিসেবে থেকে অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন। বাংলাদেশ হ্যান্ডবল ফেডারেশনের সভাপতি এ কে এম নূরুল ফজল বুলবুল অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এক্সিম ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. মোহাম্মদ হায়দার আলী মিয়া ও সামিনা মুহিত। এছাড়া অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ অলিম্পিক এ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব সৈয়দ শাহেদ রেজা, বাংলাদেশ হ্যান্ডবল ফেডারেশনের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সাংগঠনিক কমিটির চেয়ারম্যান কামরুন নাহার ডানা, ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান কোহিনুর, কার্যনির্বাহী সদস্য ও সাংগঠনিক কমিটির সম্পাদক মোঃ সালাউদ্দিন আহাম্মেদ।

জাতীয় শরীর গঠন প্রতিযোগিতা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ শরীর গঠন ফেডারেশনের উদ্যোগে ও ব্যবস্থাপনায় রবিবার দৈহিক ওজন গ্রহণের মধ্য দিয়ে শুরু তিন দিনব্যাপী জাতীয় ২৭তম সিনিয়র এবং ১২তম মাস্টার পুরুষ শরীর গঠন প্রতিযোগিতার প্রিজাজিং পর্ব সমাপ্ত হয়েছে সোমবার। সিনিয়র বিভাগে ৭ ওজন শ্রেণী ও মাস্টার বিভাগের প্রতি ক্যাটাগরি থেকে সেরা ৬ জন করে বাছাই করা হয়েছে। আজ এই বাছাইকৃতরা অংশ নেবেন চূড়ান্ত পর্বে। বিকেলে চূড়ান্ত পর্ব অনুষ্ঠিত হওয়ার পর পুরস্কার বিতরণ করা হবে। সোমবার প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন প্রতিরক্ষা বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মেজর জেনারেল (অব.) মোঃ সুবিদ আলী ভূঁইয়া। উপস্থিত ছিলেন প্রতিযোগিতার প্লাটিনাম স্পন্সর ওয়ালটনের অতিরিক্ত পরিচালক এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার ডন ও ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক, সাবেক মিস্টার বাংলাদেশ মোঃ নজরুল ইসলাম। সবমিলিয়ে ৮০ ক্লাব ও সংস্থা অংশ নিচ্ছে এ প্রতিযোগিতায়।

মুখ খুললেন এবি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমের গুঞ্জনটাকে উড়িয়ে দিলেন এবি ডি ভিলিয়ার্স। দক্ষিণ আফ্রিকান তারকা ক্রিকেটার জানালেন, আপাতত অবসরের কোন ইচ্ছেই তার নেই। তিনি বলেন, ‘শুনেছি, চারদিকে অনেক গুঞ্জন উড়ছে। তবে সর্বশেষ দুই-তিন বছর ধরে নিজেকে সতেজ ও মাঝে মাঝে একটু বিশ্রাম নেয়ার কথাই ভাবছি। ক্রিকেট উপভোগ করাই আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ। সামনে এগোতে আমার সূচীর দিকে তাকাতে হবে।’ বিষয়টার ব্যাখ্যা দিয়ে তিনি আরও যোগ করেন, ‘যদি আমি আইপিএলের সব ম্যাচ খেলি, মৌসুম শেষে ভীষণ ক্লান্ত হয়ে পড়ব। নিজেকে চনমনে ও খেলাটা উপভোগ করতে চাই, আমি আসলে এটাই বোঝাতে চেয়েছি। নিজের দেশকে প্রতিনিধিত্ব করতে ভালবাসি। ফলে কোন পরিবর্তন নেই, খেলে যাব।’ যাক তাহলে ডি ভিলিয়ার্সের ভক্তরা আস্বস্ত হবেন। এ বছরেও ওয়ানডেতে এবির অর্জন কম নয়। দ্রুততম সেঞ্চুরি, ১৫০-এর রেকর্ড তো আছেই। ২০ ওয়ানডেতে ৭৯.৫৩ গড়ে ১১৯৩ রান বলে দিচ্ছে কতটা সংহার রূপে আবির্ভূত হয়েছেন ৫০ ওভারের ক্রিকেটে। ভারত সিরিজে ‘আরও ভাল হতে পারত’ আক্ষেপ থাকলেও টেস্টেও পরিসংখ্যানও মন্দ নয়, ৬ টেস্টে ৫০.৫৫ গড়ে রান ৪৫৫। পত্র-পত্রিকায় ডি ভিলিয়ার্সের অবসরের খবর দেখে তাই রীতিমতো চটেছেন মরনে মরকেল। সতীর্থ ফাস্ট বোলার বলেন, ‘এটা শুধুই গল্প। সে এখনও দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে খেলতে এবং রেকর্ড ভাঙতে চায়।’