২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কুমিল্লায় ৪০ লাখ টাকা আত্মসাত ॥ দুদকের মামলা

নিজস্ব সংবাদদাতা, কুমিল্লা, ২৯ ডিসেম্বর ॥ বেশি মুনাফার লোভ দেখিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের ৪০ লক্ষাধিক টাকা আত্মসাতের অভিযোগে স্বদেশ মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ লিমিটেডের চেয়ারম্যানসহ চার কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) মামলা দায়ের করেছে। দুদক-কুমিল্লার সহকারী পরিচালক আহসানুল কবীর পলাশ বাদী হয়ে মঙ্গলবার চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ থানায় মামলাটি দায়ের করেন। মামলায় উল্লেখ করা হয়, হাজীগঞ্জ উপজেলার বাজনাখাল গ্রামের নুরুল ইসলাম প্রধানীয়ার ছেলে সোহাগ প্রধানীয়া স্বদেশ মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ লি. চালু করে স্ত্রী ও স্বজনদের কর্মকর্তা নিযুক্ত করেন। পরে তারা মুনাফার লোভ দেখিয়ে বিনিয়োগের জন্য এলাকার বিভিন্ন শ্রেণীর লোকদের আকৃষ্ট করেন। এতে গ্রাহকরা অনুপ্রাণিত হয়ে ওই প্রতিষ্ঠানে লাখ লাখ টাকা বিনিয়োগ করে। একপর্যায়ে ওই প্রতিষ্ঠানের কার্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে আত্মগোপন করে চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। এতে নিঃস্ব হয়ে পড়ে সরল বিশ্বাসে টাকা বিনিয়োগকারী গ্রাহকরা। এ ব্যাপারে অভিযোগের ভিত্তিতে অনুসন্ধান শেষে স্বদেশ মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ লি.-এর চেয়ারম্যান সোহাগ প্রধানীয়া, সভাপতি ফারজানা রব ঝরনা, ব্যবস্থাপনা পরিচালক জামাল হোসেন, ম্যানেজার আরিফুর রহমান মিজানকে আসামি করে মঙ্গলবার হাজীগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করা হয়। মামলার বাদী জানান, মিথ্যা প্রলোভন দেখিয়ে ১৭ বিনিয়োগকারীর ৪০ লাখ ৬৮ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগে এ মামলাটি দায়ের করা হয়েছে।

লাশের গুজবে আতঙ্ক হামলা

ইপিজেডের তুং হিং (বাংলাদেশ) ম্যানুফেকচারি লি. নামের হংকংয়ের কারখানায় চার শ্রমিকের লাশ থাকার গুজবে শ্রমিকদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। গুরুতর অসুস্থ আলী হোসেন নামের শ্রমিককে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে এ খবর ছড়িয়ে পড়লে আতঙ্কিত শ্রমিক ও তাদের স্বজনরা ওই কারখানার সামনে ও ইপিজেডের গেটে ভিড় করে কারখানায় প্রবেশের চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়ে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে। জানা যায়, তুং হিং (বাংলাদেশ) ম্যানুফেকচারি লি. নামের হেয়ারিং এক্সেসরিজের এ কারখানাটি গত ৮ ডিসেম্বর থেকে কুমিল্লা ইপিজেডের নবনির্মিত ভবনে কার্যক্রম শুরু করে। শুরুতেই এ কারখানায় জিন-ভূতের অস্তিত্ব আছে মর্মে শ্রমিক ও তাদের স্বজনদের মধ্যে আলোচনায় রয়েছে।

পে স্কেল বৈষম্যের প্রতিবাদে বিক্ষোভ

বাংলাদেশ পানি ও বিদ্যুত প্রকৌশলী সমিতির আয়োজনে মঙ্গলবার দুপুরে বিদ্যুত ভবনের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করা হয়। বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড ও বিদ্যুত উন্নয়ন বোর্ডের শত শত প্রকৌশলী ছাড়াও অন্যান্য কর্মকর্তা সমাবেশে সমবেত হন। বালাদেশ পানি ও বিদ্যুত প্রকৌশলী সমিতির সভাপতি একে মঞ্জুর হাসান শাহীর সভাপতিত্বে বিক্ষোভ কর্মসূচীতে অংশ নেয়া প্রকৌশলীরা ৮ম পে স্কেলের বিভিন্ন বৈষম্য ও অসঙ্গতির জন্য তীব্র ক্ষোভ ও হতাশা ব্যক্ত করেন। সমাবেশে ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে বেতন বৈষম্য নিরসন করা না হলে পূর্ণ কর্মবিরতি পালন, পদত্যাগপত্র দাখিল করাসহ কঠোর কর্মসূচী দেয়ার জন্য কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের নিকট দাবি জানান। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- প্রকৌশলী এমএম সিদ্দিকি, প্রকৌশলী মিজানুর রহমান, প্রকৌশলী কাজী তোফায়েল হোসেন, প্রকৌশলী হাবিবুর রহমান, প্রকৌশলী আবুল হোসেন তুহিন, প্রকৌশলী জসিম উদ্দিন। -বিজ্ঞপ্তি।