২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ইমরানও চান আমিরকে

  • আজহারের পদত্যাগপত্র প্রত্যাখ্যান পিসিবির

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বিতর্ক চরমে উঠলেও মোহাম্মদ আমিরকে ফের পাকিস্তান জাতীয় দলে দেখতে চান দেশটির কিংবদন্তি ক্রিকেটার ইমরান খান। তিনি বলেছেন, কম বয়সে ভুল করা খেলোয়াড়ের দ্বিতীয় সুযোগটা পাওয়া উচিত। ওদিকে আমিরকে নেয়ায় ওয়ানডের নেতৃত্ব ছাড়তে দেয়া আজহার আলির পদত্যাগপত্র প্রত্যাখ্যান করেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। পিসিবি প্রধান শাহরিয়ার খানের হস্তক্ষেপে সমস্যা মিটিয়ে ফেলা হয়েছে। আজহার এবং বিরোধিতাকারী অপর তারকা মোহাম্মদ হাফিজ আমিরকে দলে বরণ করে নিয়েছেন বলে খবরে প্রকাশ।

পাকিস্তানের একমাত্র বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ইমরান সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘১৯ বছর বয়সের একটা ছেলে ভুল করেছিল এবং পরবর্তীতে সে তার দোষ স্বীকার করে নিয়েছে। শাস্তি পেয়েছে। এখন তাকে আবার খেলতে দেয়া উচিত।’ তিনি আরও যোগ করেন, ‘এ নিয়ে দলের সিনিয়র ক্রিকেটারদের শান্ত আচরণ দেখাতে হবে। বুঝতে হবে অন্যের প্রচারে আমির যখন অপরাধে জড়িয়ে ছিল তখন তার বয়স খুবই কম ছিল। দেশের সার্বিক অবস্থার বিচারে আমিরের অপরাধ বড় কিছু নয়। ফিরে এসে এখন ও দারুণ বোলিংও করেছে।’ ২০১০ সালে ইংল্যান্ড সফরে লর্ডস টেস্টে স্পট ফিক্সিংয়ে জড়িয়ে পড়েন তৎকালীন অধিনায়ক সালমান বাট, অপর পেসার মোহাম্মদ আসিফ ও আমির। অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় পাঁচ বছরের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে সম্প্রতি ঘরোয়া ক্রিকেটে ফিরেছেন আমির।

কায়েদ-ই আযম ট্রফি এবং বাংলাদেশের বিপিএলে অসাধারণ বোলিং করে পাকিস্তানের আসন্ন অস্ট্রেলিয়া সফর ও টি২০ বিশ্বকাপ সামনে রেখে ফের জাতীয় দলে ডাক পেয়েছেন। যখন আন্তর্জাতিক প্রত্যাবর্তনের দোড়গোড়ায় তখনই বাঁধ সাধে। আমিরকে নেয়ায় ক্যাম্প বর্জন করেন বর্তমান ওয়ানডে অধিনায়ক ও সিনিয়র সদস্য হাফিজ। নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়ার আগে মাত্র ১৪ টেস্ট খেলে ৫১ উইকেট শিকার করেন আমির। তখন ইমরান তাকে ‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বড় সম্পদ’ বলে উল্লেখ করেছিলেন। আরেক কিংবদন্তি পেসার ওয়াসিম আকরামও ভূয়সী প্রসংশা করে আমিরকে নিজের ১৮ বছরের তুলনায় অনেক ভাল বলে স্বীকৃতি দিয়েছিলেন। কিন্তু ফিক্সিং-কা-ে সব গড়বড় হয়ে গিয়েছিল। এখন ফিরতে উদগ্রীব ২৩ বছরের প্রতিভাবান এই পেসার। আমিরকে প্রাথমিক দলে ডাকায় ওয়ানডের নেতৃত্ব ছাড়তে আবেদন করেন আজহার। তবে সেটি সরাসরি প্রত্যাখ্যান করে দিয়েছে পিসিবি। পিসিবি চেয়ারম্যান শাহরিয়ারের সঙ্গে সাক্ষাতের পরই নিজের অবস্থান থেকে সরে আসেন আজহার। যথারীতি অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করার জন্য রাজি হন তিনি। এর আগে আমির অন্তর্ভুক্ত হওয়ায় পাকিস্তান দলের অনুশীলন ক্যাম্প বর্জন করেছিলেন আজহার ও হাফিজ। পিসিবির সঙ্গে আলোচনার পর দুজনই নিজেদের দৃষ্টিভঙ্গি বদলান। শর্তহীনভাবে তারা পুনরায় অনুশীলনে যোগ দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। একটি সূত্র জানিয়েছে, ইতোমধ্যে ক্যাম্পে যোগ দিয়েছেন দুজন। তাদের সামনে পেয়ে সবার সমনেই নাকি কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন আমির। এরপরই অশ্রুসিক্ত চোখে তাকে দলে বরণ করে নেন আজহার-হাফিজরা! এমনিতে পাকিস্তান ক্রিকেটে ঘটনার চেয়ে অঘটনই বেশি। মাঠের তুলনায় বাইরে আলোচিত। আজহারের পদত্যাগপত্র তাতে বাড়তি মাত্রা যোগ করে। কিন্তু বিচক্ষণ শাহরিয়ার সেটি দারুণ দক্ষতায় সামাল দিলেন।

নির্বাচিত সংবাদ