১৪ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

গাইবান্ধার ৬ জনের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক চার্জ ১৮ ফেব্রুয়ারি

  • যুদ্ধাপরাধী বিচার

স্টাফ রিপোর্টার ॥ একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে পলাতক কিশোরগঞ্জের নিকলির রাজাকার কমান্ডার সৈয়দ মোঃ হুসাইন ও মোহাম্মদ মোসলেম প্রধানের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ (ফরমাল চার্জ) আমলে নেবে কি নেবে না সে বিষয়ে আদেশ প্রদান করা হবে ৭ জানুয়ারি। একাত্তরে সংঘটিত মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় পরোয়ানা জারির পর পলাতক গাইবান্ধার জামায়াতের সাবেক এমপি মোঃ আব্দুল আজিজ ওরফে ঘোড়ামারা আজিজসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ (ফরমাল চার্জ) দাখিলের জন্য আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি দিন ধার্য করা হয়েছে। অন্যদিকে জামালপুরের আলবদর বাহিনীর উদ্যোক্তা আশরাফ হোসেনসহ ৮ রাজাকারের বিরুদ্ধে প্রসিকিউশনের ১৫তম সাক্ষী মোঃ মালেক নেওয়াজ ও ১৬ তম সাক্ষী মোঃ মোখলেসুর রহমান তাদের জবানবন্দী শেষে আসামি পক্ষের আইনজীবী তাদের জেরা করেছেন। পরবর্তী সাক্ষীর জন্য ২৬ জানুয়ারি দিন নির্ধারণ করা হয়েছে। চেয়ারম্যান বিচারপতি আনোয়ারুল হকের নেতৃত্বে দুই সদস্য বিশিষ্ট আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ এ আদেশগুলো প্রদান করেছেন।

কিশোরগঞ্জের নিকলির রাজাকার কমান্ডার সৈয়দ মোঃ হুসাইন ও মোহাম্মদ মোসলেম প্রধানের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ (ফরমাল চার্জ) আমলে নেবে কি নেবে না সে তার আদেশ দেয়া হবে ৭ জানুয়ারি। আদেশের সময় প্রসিকিউশন পক্ষে ছিলেন প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ। অন্যান্য প্রসিকিউটরের মধ্যে ব্যারিস্টার তাপস কান্তি বল, প্রসিকিউটর রেজিয়া সুলতানা চমর উপস্থিত ছিলেন।

হুসাইন-মোসলেমের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগে হত্যা-গণহত্যা, ধর্ষণ, লুটপাট, অগ্নিসংযোগ, আটক, অপহরণ ও নির্যাতনের ছয়টি মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ আনা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে ৬২ জনকে হত্যা-গণহত্যা, ১১ জনকে অপহরণ, আটক ও নির্যাতন এবং ২৫০টি বাড়িঘরে লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের অভিযোগ।

গাইবান্ধার ৬ রাজাকার ॥ একাত্তরে সংঘটিত মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় পরোয়ানা জারির পর পলাতক গাইবান্ধার জামায়াতের সাবেক এমপি মোঃ আব্দুল আজিজ ওরফে ঘোড়ামারা আজিজসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ (ফরমাল চার্জ) দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন ট্রাইব্যুনাল। একই সঙ্গে তাদের বিরুদ্ধে মামলার শুনানির জন্য আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি দিন ধার্য করা হয়েছে। মঙ্গলবার ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মোঃ আনোয়ারুল হকের নেতৃত্বে তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল এ আদেশ দেন। আদালতে শুনানি করেন প্রসিকিউটর সৈয়দ হায়দার আলী। তবে আসামি পক্ষের কোন আইনজীবী উপস্থিত ছিলেন না।

সাবেক সংসদ সদস্য আবু সালেহ মোঃ আব্দুল আজিজ মিয়া (৬৫) ছাড়া অন্য আসামিরা হলেন মোঃ রুহুল আমিন ওরফে মঞ্জু (৬১), মোঃ আব্দুল লতিফ (৬১), আবু মুসলিম মোহাম্মদ আলী (৫৯), মোঃ নাজমুল হুদা (৬০) ও মোঃ আব্দুর রহিম মিঞা (৬২)। এর আগে ৬ জনের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করে (ফরমাল চার্জ) আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দাখিলের জন্য সময় আবেদন করেন প্রসিকিউটর হায়দার আলী।

জামালপুরের ৮ রাজাকার ॥ একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে অভিযুক্ত জামালপুরের আলবদর বাহিনীর উদ্যোক্তা আশরাফ হোসেনসহ ৮ রাজাকারের বিরুদ্ধে প্রসিকিউশনের ১৫তম সাক্ষী মোঃ মালেক নেওয়াজ ও ১৬তম সাক্ষী মোঃ মোখলেসুর রহমান তাদের জবানবন্দী শেষে আসামি পক্ষের আইনজীবী তাদের জেরা করেছেন। জেরা শেষে পরবর্তী সাক্ষীর জন্য ২৬ জানুয়ারি দিন নির্ধারণ করা হয়েছে। চেয়ারম্যান বিচারপতি আনোয়ারুল হকের নেতৃত্বে দুই সদস্য বিশিষ্ট আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ এ আদেশ প্রদান করেছেন। এ সময় সাক্ষীকে সাক্ষ্যদানে সহযোগিতা করেন প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার তাপস কান্তি বল। আসামি পক্ষে ছিলেন এ্যাডভোকেট আব্দুস সোবহান তরফদার ও এ্যাডভোকেট এসএম মিজানুর রহমান।