২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভারতের অঘোষিত অবরোধে ক্ষতিগ্রস্ত নেপালের অর্থনীতি

অর্থনৈতিক রিপোর্টার॥ গেল ৪ মাসেরও বেশি সময় ধরে পণ্য পরিবহনে ভারতের বাগড়ায় নেপাল। নতুন সংবিধান প্রণয়নকে কেন্দ্র করে দেশটির উপর এক ধরনের পরোক্ষ অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে ভারত। এতে ২ হাজার ১০০ কোটি রুপির বেশি অর্থ লোকসানের মুখে পড়েছে নেপাল।

পণ্য পরিবহনের প্রধান সীমান্ত অঞ্চল বিরগুঞ্জ কাস্টমসের বরাত দিয়ে সম্প্রতি দ্য হিমালয়ানের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

খবরে বলা হয়, নেপালের মোট রাজস্ব আয়ের প্রায় ৫৫ শতাংশ সংগ্রহ করে এই কাস্টমস। চলতি ২০১৫-১৬ অর্থবছরের প্রথম চার মাসে ৭০০ রুপির লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে মাত্র ১৯৯ কোটি রুপি সংগ্রহ করতে পারবে এই কাস্টমস।

কাস্টমসের এক মুখপাত্র জানান, ভারতীয় সীমান্তের সঙ্গে লাগোয়া অধিকাংশ চেকপয়েন্ট বন্ধ হয়ে যাওয়ায় এই লোকসানের মুখে পড়তে হচ্ছে। ভারত থেকে জ্বালানি আমদানিতে ব্যাঘাত বিশেষ করে পেট্রোলিয়াম আমদানিতে ভারতের হানা তাদের রাজস্ব আয়ে নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে।

তিনি বলেন, যদি এ রকম অবস্থা চলতে থাকে তবে নেপাল আরও অর্থনৈতিক ধসের মুখে পড়তে বাধ্য।

প্রসঙ্গত, নতুন সংবিধান বৈষম্যের সৃষ্টি করেছে- এমন অভিযোগ তুলে নেপালের দক্ষিণাঞ্চল দুই মাসেরও বেশি সময় ধরে অবরুদ্ধ করে রেখেছে স্থানীয় নৃগোষ্ঠীগুলো। নিরাপত্তার অজুহাতে ‘অঘোষিত অবরোধ’ চালিয়ে যাচ্ছে দেশটির প্রতিবেশী ভারত। এর ফলে ভারত থেকে এই পথে জ্বালানি, ওষুধসহ সব ধরনের পণ্য সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। দেশটিতে দেখা দিয়েছে মারাত্মক জ্বালানি-সংকট, স্থবির হয়ে পড়ছে জনজীবন।

সম্প্রতি বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, তীব্র জ্বালানি-সংকটে পড়েছে নেপাল। দেশটির সব ধরনের জ্বালানির সরবরাহ হয় ভারত থেকে। কিন্তু অবরোধ-বিক্ষোভে দক্ষিণাঞ্চলের স্থলপথটিতে নিরাপত্তাঝুঁকির আশঙ্কায় পণ্য পরিবহন বন্ধ রেখেছে ভারত।