২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রামদেবের পণ্যে মুসলিমদের না

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ভারতের তামিল নাড়ুর একটি মুসলিম সংগঠন হিন্দু যোগ গুরু রামদেবের তৈরি 'পতঞ্জলি' পণ্য কিনতে মুসলিমদের নিষেধ করেছে। তামিল নাড়ু তৌহিদ জামাত (টিএনটিজে) নামে ঐ সংগঠন এক ফতোয়ায় বলেছে পতঞ্জলি নামে বিক্রি ভেষজ ওষুধ, খাদ্য এবং প্রসাধনীতে গোমূত্র ব্যবহার করা হয় যা মুসলিমদের জন্য হারাম।

লিখিত এক বিবৃতিতে টিএনটিজে বলেছেন, মুসলমানদের ধর্মে গোমূত্র খাওয়া হারাম। সুতরাং পতঞ্জলি পণ্য হারাম। মুসলিম ওই সংগঠনটি তাদের বিবৃতিতে বলেছে, পতঞ্জলি পণ্যগুলোর ভেতরে কি কি উপাদান রয়েছে তা না জেনে মুসলিমরা যাতে ব্যবহার না করে, সে জন্য তারা এই ফতোয়া জারি করেছে।

রামদেব প্রধানত যোগ-গুরু হিসাবে পরিচিত হলেও, তার প্রতিষ্ঠানের তৈরি পণ্য ভারতে জনপ্রিয়। তিনি দাবি করেন, হিন্দু প্রাচীন রীতিতে তৈরি তার ওষুধ, প্রসাধনী এবং খাদ্য ভেষজ গুণসম্পন্ন। পতঞ্জলি পণ্যের বিশাল ব্যবসা সাম্রাজ্য গড়ে তুলেছেন রামদেব

সোশ্যাল মিডিয়াতে ঝড়

রামদেবের পণ্যের বিরুদ্ধে এই ফতোয় নিয়ে টুইটার সহ ভারতের সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন ঝড় বয়ে যাচ্ছে। ফতোয়া নিয়ে রামদেবের ভক্তরা যেমন টিএনটিজেকে যেমন এক হাত নিচ্ছেন, তেমনি এই সুযোগে রামদেবকে নিয়ে টীকা টিপ্পনীও কাটছেন অনেকে।

শিরিষ কুন্দের নামে একজন তার টুইটার একাউন্টে লিখেছেন, "প্লিজ রামদেবের দেশি ঘি যেন নিষিদ্ধ না হয়। ভক্তরাই তার পতঞ্জলি কেনেন। তারা ফাংগাস খাওয়ারই যোগ্য।" জিএম পুরোহিত নামে আরেকজন টুইটারে লিখেছেন, "শারিয়া মোতাবেক পতঞ্জলি পণ্যে গোমূত্রের বদলে ছাগলের মূত্র ব্যবহার করা উচিৎ।" রামদেবের পক্ষ থেকে এই ফতোয়া নিয়ে এখনও কিছু শোনা যায়নি।