২০ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চাপের মুখে আমলা

  • ইংল্যান্ডের বিপক্ষে শনিবার দ্বিতীয় টেস্ট শুরু, অগ্নিপরীক্ষা দক্ষিণ আফ্রিকার

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ সময়টা মোটেও ভাল যাচ্ছে না। ওয়ানডেতে দলের সাফল্য থাকলেও টেস্ট ক্রিকেটে হুট করেই যেন অগোছালো হয়ে গেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। ভারতের কাছে ৩-০ ব্যবধানে সিরিজ হেরে দেশে ফিরেছিল তারা। এবার ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্টেই ২৪১ রানের বড় ব্যবধানে হেরে ৪ টেস্টের সিরিজে পিছিয়ে পড়েছে ১-০ ব্যবধানে। তাই বেশ চাপের মুখেই আছেন হাশিম আমলা। সম্প্রতি ব্যাট হাতেও দারুণ ব্যর্থ তিনি। শনিবার সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট নিউল্যান্ডসে। ব্যক্তিগত ও দলীয় নৈপুণ্যে ব্যর্থতার জন্য দারুণ চাপের মুখেই আছেন আমলা।

বছরের শুরুতে দক্ষিণ আফ্রিকা সফর করেছিল তুলনামূলকভাবে দুর্বল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তাদের বিপক্ষে তিন টেস্টের সিরিজে ২-০ ব্যবধানে সিরিজ জয় করে আমলার দল। ২০১৫ সালে টেস্টে সাফল্য বলতে এটিই। এরপর বাংলাদেশ সফরে দুই টেস্টের সিরিজে কোন ম্যাচই জিততে ব্যর্থ প্রোটিয়ারা সমতায় সিরিজ শেষ করে দেশে ফেরে। পরবর্তীতে ভারত সফরে চরম ব্যর্থতা দেখিয়েছে প্রোটিয়া শিবির। কোন ম্যাচেই বিন্দুমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা গড়ে তুলতে পারেনি তারা। বৃষ্টির আশীর্বাদে একটি টেস্ট ড্র করতে পারলেও সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে হেরে দেশে ফিরে বিশ্বের এক নম্বর টেস্ট দল দক্ষিণ আফ্রিকা। ঘরের মাঠে আমলার জন্য চ্যালেঞ্জ ছিল দলকে আবার সাফল্য ফিরিয়ে দেয়ার। কিন্তু সেটা প্রথম টেস্টেই দেখাতে পারেননি আমলা। ডারবান টেস্টে চরমভাবে ব্যর্থ হয়েছে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা। এটি গত ৭ টেস্টে চতুর্থ পরাজয় ছিল তাদের। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বছরের শুরতে সিরিজ জয়ের আগে পর্যন্ত টেস্ট ক্রিকেটে দুর্দমনীয় ছিল প্রোটিয়ারা। এর আগ পর্যন্ত টানা ১১ সিরিজে মাত্র একটি সিরিজ ড্র করলেও হারেনি কোনটাতেই, জিতেছে ১০টি সিরিজ। তবে ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে জয়ের পর আর কোন জয় দেখেনি বরং হেরেছে। অধিনায়ক আমলার ব্যক্তিগত নৈপুণ্যও আর ঠিক জায়গায় নেই।

ব্যাট হাতে দারুণ ব্যর্থ আমলা। সর্বশেষ সেঞ্চুরি পেয়েছেন ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সেঞ্চুরিয়নে ২০৮ রানের ইনিংস খেলেছিলেন। এরপর ১৩ ইনিংসে মাত্র একটি অর্ধশতক হাঁকাতে পেরেছেন। সফরকারী ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্টেও ভাগ্য ফেরেনি তার এবং দলের। সর্বশেষ ১০ টেস্ট ইনিংসে আমলা ১৫.০০ গড়ে করতে পেরেছেন মাত্র ১৫০ রান। সর্বোচ্চ ৪৩ রানের একটি ইনিংস খেলতে পেরেছেন। আবার সম্প্রতি ওয়ানডে ও টি২০ ম্যাচগুলোতেও একইভাবে বাজে ফর্মের মধ্যে আছেন আমলা। আর দলের আবারও পরাজয়। তাই দ্বিতীয় টেস্টে দারুণ চাপের মুখেই থাকবেন তিনি। ২০১৪ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার টেস্ট অধিনায়ক হয়ে দারুণ সাফল্য পেতে থাকা আমলা যেন হঠাৎ করেই এক কঠিন সময়ের মধ্যে পড়ে গেছেন। অবশ্য ডারবান টেস্টে পরাজয়ের পরও আমলা বলেন, আমি প্রতি মিনিট উপভোগ করি খেলা।

পাপন গবর্নিংবডির চেয়ারম্যান

আব্দুল গাফফার শেখ জামালের পরিচালক মনোনীত

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ লে. শেখ জামাল ধানম-ি ক্লাব লিমিটেডের গবর্নিংবডির চেয়ারম্যান করা হচ্ছে নামজুল হাসান পাপন এমপিকে। গতকাল বৃহস্পতিবার ক্লাবের বিশেষ সাধারণ সভায় পাপকে এ দায়িত্ব অর্পনের নিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ক্লাব সভাপতি মনজুর কাদের এ তথ্য জানান। ক্লাব কর্মকা- আরও গতিশীল করতে পাপন বিশেষ ভূমিকা রাখবেন বলে আশাবাদী সবাই। সঙ্গত কারণে তাকে সম্মানজনক এ পদের দায়িত্ব দেয়া হচ্ছে। মনজুর কাদের বলেন, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সফল সভাপতি পাপন। তার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে শেখ জামাল ক্লাব লাভবান হবে। আর এ কারণে তাকে এই গুরু দায়িত্ব দেয়া হচ্ছে, যা অচিরেই আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করা হবে। সাবেক তারকা ফুটবলার আব্দুল গাফফারকে ক্লাবের পরিচালক মনোনীত করা হয়েছে। তিনি দীর্ঘদিন শেখ জামাল ধানম-ির সঙ্গে জড়িত। বিশেষ করে ফুটবল দলের সঙ্গে তার সম্পৃক্ততা সবচেয়ে বেশি। এ ছাড়া ক্লাবের প্রায় সব ধরনের কর্মকা-ের সঙ্গে জড়িত গাফফার। ফলে এবার তাকে ক্লাবের পরিচালক করা হয়েছে বলে জানান মনজুর কাদের।