১৮ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

তেজগাঁও মহিলা কলেজের এক ছাত্রীকে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর তেজগাঁও মহিলা কলেজের উচ্চ মাধ্যমিকের দ্বিতীয় বর্ষের এক ছাত্রীকে গায়ে কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে প্রেমিকের বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে। এদিকে মিরপুরে স্কুলপড়ুয়া এক কিশোরীকে বাসায় ডেকে নিয়ে তার গৃহশিক্ষক ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় পুলিশ ধর্ষক ওই গৃহশিক্ষকের বন্ধুকে আটক করেছে। বৃহস্পতিবার পুলিশ ও মেডিক্যাল সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, রাজধানীর তেজগাঁও মহিলা কলেজের উচ্চ মাধ্যমিকের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী নুসরাত জাহান শান্তা (১৯) অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় মারা গেছে। ভোরের দিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়েছে। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের বার্ন ইউনিটের ডাঃ সোহান জানান, বৃহস্পতিবার শান্তার শ্বাসনালীসহ শরীরের ৯৫ শতাংশ আগুনে পুড়ে যাওয়ায় তার মৃত্যু হয়েছে। নিহত শান্তার বড় বোন রেবেকা সুলতানা জানান, মুঠোফোনে পরিচয়ের সূত্র ধরে গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার নলগাঁও গ্রামের তৌহিদুল ইসলাম তমাল নামের এক যুবকের সঙ্গে শান্তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ৫-৬ মাস আগে শান্তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে মালয়েশিয়া পাড়ি জমায় তমাল। এছাড়া তমাল অন্য একটি মেয়ের সঙ্গে সম্পর্ক করে। এ কথা জানতে পেরে বুধবার সন্ধ্যায় দিকে শান্তা গাজীপুরে তমালের বাড়িতে যায় শান্তা। তিনি অভিযোগ করেন, এ সময় তমালের মা মিলি বেগম ও নানি আনোয়ারা শান্তার শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। নিহতের প্রেমিক তমালের মামা শামীম শেখ জানান, বুধবার সন্ধ্যার দিকে তরুণী শান্তা গাজীপুরে তমালের বাড়িতে গিয়ে নিজের শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে দেয়। পরে তার শরীরে আগুন নিভিয়ে প্রথমে স্থানীয় একটি ক্লিনিকে নেয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে গভীররাতে ঢামেক হাসপাতালে বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। বৃহস্পতিবার ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শান্তার মৃত্যু হয়।

স্কুলপড়ুয়া ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ ॥ রাজধানীর মিরপুরে স্কুলপড়ুয়া এক কিশোরীকে বাসায় ডেকে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে এক গৃহশিক্ষকের বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার ভোরের দিকে ওই ছাত্রীকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, ধর্ষকের নাম আল আমিন রাজু (২৪)। তিনি মোহাম্মদপুর কেন্দ্রীয় কলেজের শিক্ষার্থী। মিরপুর থানার এসআই সুরুজ মিয়া জানান, বৃহস্পতিবার সকালে মামলার পর ঘটনার সঙ্গে জড়িত অভিযোগে দক্ষিণ পীরেরবাগ থেকে শাহীন নামে রাজুর এক বন্ধুকে আটক করা হয়েছে। তিনি জানান, আল আমিন রাজু নবম শ্রেণীর (১৪) ওই ছাত্রীকে তাদের বাসায় এসে পড়াতো। এসআই জানান, বুধবার সকালে রাজু আরেক ’প্রাইভেট শিক্ষকের’ সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেয়ার কথা বলে ওই ছাত্রীকে তাদের বাসা থেকে ডেকে নিয়ে যায়। দক্ষিণ পীরেরবাগের এক বাড়ির পাঁচ তলার ফ্ল্যাটে নিয়ে গিয়ে রাজু তাকে ধর্ষণ করে। পরে ওই কিশোরীকে ঢাকা মেডিক্যালে ভর্তি করা হয়। এসআই সুরুজ মিয়া জানান, ওই কিশোরীর বাবা মিরপুর থানায় মামলা করেছে। পরে পুলিশ মিরপুর পীরেরবাগের ওই বাসায় গিয়ে রাজুকে না পেয়ে তার বন্ধু শাহীনকে গ্রেফতার করা হয়। সে এ ঘটনায় জড়িত। রাজুর বাবা লক্ষ্মীপুরের সংসদ সদস্য আবদুল আওয়ালের গাড়িচালক।

মদ ও বিয়ারসহ এক যুবক গ্রেফতার ॥ বুধবার রাতে রাজধানীর ভাটারা এলাকা থেকে মাদক দ্রব্যসহ শামিম শেখ (৩৯) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। এ সময় তার কাছে ৩৯ বোতল মদ ও ২৭৯ ক্যান বিয়ার জব্দ করা হয়।

কমলাপুরে ট্রেনের ধাক্কায় ব্যাংক কর্মকর্তা নিহত ॥ কমলাপুর রেল স্টেশনে ট্রেনের ধাক্কায় ওয়ান ব্যাংক বংশাল শাখার কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম (৫৪) নিহত হয়েছেন। বাড়ি চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে। তিনি উত্তরায় ৬ নম্বর সেক্টরে ঈশা খাঁ এ্যাভিনিউয়ে বসবাস করতেন।

ঢাকা রেলওয়ে থানার ওসি আব্দুল মজিদ জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ছয়টায় কমলাপুর ২ নম্বর প্লাটফর্মে ঢাকা থেকে ছেড়ে যাওয়া তিতাস এক্সপ্রেস ট্রেনে উঠতে গিয়ে ধাক্কা খেয়ে নিচে পড়ে যান রফিকুল ইসলাম। পথচারী হাবিবুর রহমান তাকে উদ্ধার করে সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে ঢাকা মেডিক্যালে জরুরী বিভাগে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। মুঠোফোনে রফিকুল ইসলামের স্ত্রী আবেদা রহমান জানান, তিনি ওয়ান ব্যাংক বংশাল শাখায় কর্মরত ছিলেন। তারা উত্তরায় বসবাস করেন। প্রতিদিন তিনি ট্রেনে অফিসে যাতায়াত করে থাকেন।