২৩ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পাকিস্তানে ৯ জঙ্গিকে মৃত্যুদণ্ড দিল সামরিক আদালত

অনলাইন ডেস্ক ॥ পাকিস্তানের সামরিক আদালত নয় জনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে। সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকা অথবা সংখ্যালঘু শিয়াদের ওপর হামলা চালানোর অভিযোগে তাদেরকে এ সাজা দেয়া হয়। শুক্রবার দেশটির সেনাবাহিনী একথা জানিয়েছে। ২০১৪ সালের ডিসেম্বর মাসে মৃত্যুদণ্ডাদেশের ওপর স্থগিতাদেশ তুলে দেয়ার পর ৩০০ জনের বেশি লোকের ফাঁসির রায় কার্যকর করা হয়েছে। খবর বার্তা সংস্থা এএফপি’র।

এদের অনেককে সামরিক আদালতে সাজা দেয়া হয়েছে। সমালোচকরা এইসব রায়ের সমালোচনা করে বলেছেন যে এই আদালত বিচারের গুণগত মান বজায় রাখতে ব্যর্থ হয়েছে। সেনাবাহিনীর এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘আজ চিফ অব আর্মি স্টাফ আরো নয় কট্টরপন্থী সন্ত্রাসীকে মৃত্যুদ- প্রদানের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। এরা বর্বোচিত সন্ত্রাসী হামলার সঙ্গে জড়িত ছিলেন।’

এদের মধ্যে তালেবান সদস্য মুহাম্মদ ঘুরি রয়েছেন। তিনি ২০০৯ সালে ডিসেম্বরে রাওয়ালপিন্ডিতে অবস্থিত গ্যারিসন মসজিদে ভয়াবহ হামলার সঙ্গে জড়িত। ওই হামলায় ৩৮ জন প্রাণ হারায়। এছাড়াও হরকাতুল জিহাদ-এ-ইসলাম কর্মী আব্দুল কাইয়ুমকেও মৃত্যুদ- দেয়া হয়েছে।

২০০৯ সালের ডিসেম্বর মাসে মুলতানে অবস্থিত পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা ইন্টার সার্ভিসেস ইন্টিলিজেন্স (আইএসআই)-এর সদরদপ্তরে আত্মঘাতী গাড়ি বোমা হামলার সঙ্গে জড়িত। ভয়াবহ ওই হামলায় ৭২ জন প্রাণ হারায়। অপর দুই জন সৈন্যদের ওপর হামলার সঙ্গে জড়িত।

মৃত্যুদণ্ডাদেশ প্রাপ্তদের মধ্যে ৫ জন সুন্নি চরমপন্থী গোষ্ঠী সিপাহ-ই-মাহাবা পাকিস্তানের সদস্য। সংগঠনটি পূর্বাঞ্চলীয় নগরী লাহোরে ৫ শিয়াকে হত্যা করেছে। কখন, কোথায় এই বিচার অনুষ্ঠিত হয় সে ব্যাপারে কিছু জানানো হয়নি।

নির্বাচিত সংবাদ