২৩ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

তবু আশায় লয়েড

  • অস্ট্রেলিয়া-ও. ইন্ডিজ সিরিজ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ অস্ট্রেলিয়া সফরে টানা দুই হারে এক ম্যাচ বাকি থাকতেই টেস্ট সিরিজ খুইয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। জেসন হোল্ডারদের হারের ধরন জঘন্য। এক সময়ের প্রতাপশালী ক্যারিবীয় ক্রিকেটের কঙ্কালসার অবস্থা দেখে অনেকেরই করুণা হচ্ছে। অনেকের ধারণা মাঠ ও মাঠের বাইরে করুণ এই অবস্থায় দেশটির ক্রিকেট একদিন হারিয়ে যাবে, বিশেষ করে সাদা পোশাকের টেস্ট। কিন্তু সাবেক গ্রেট ও বর্তমান নির্বাচক বোর্ডের (ডব্লিউআইসিবি) প্রধান ক্লাইভ লয়েড আশাবাদী। স্বপ্নবিলাসী কিংবদন্তির মতে, ক্রিকেটের প্রতি ভালবাসা থেকেই ঘুরে দাঁড়াবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তরুণরা আগামী কয়েক বছরের মধ্যে দারুণ কিছুর ইঙ্গিত দেবে বলেও মনে করেন তিনি। ‘আমি পজেটিভ মানুষ। যে কোন পরিস্থিতিতে স্বপ্ন দেখতে ভালবাসি। একদিন ক্রিকেটের প্রতি ভালবাসা থেকে তরুণরাই আমাদের স্বপ্ন দেখাবে এবং সেই দিনটি খুব দূরে নয়।’ অস্ট্রেলীয় সংবাদ মাধ্যমকে বলেন লয়েড।

মাত্র তিন দিনেই প্রথম টেস্টে ইনিংস ও ২১২ রানের বিশাল ব্যবধানে হারে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দ্বিতীয় টেস্টের হারটাও ১৭৭ রানের বড় ব্যবধানে, তবে মেলবোর্নের ম্যাচটা চারদিনে গড়িয়েছিল এই যা! দ্বিতীয় ইনিংসে প্রায় ৯০ ওভার ব্যাট করতে পেরেছিল হোল্ডাররা। সেদিকে ইঙ্গিত করে লয়েড আরও যোগ করেন, ‘আমাদের দলটা তরুণ। কোন স্বীকৃত তারকা নেই, তারপরও দুটি ম্যাচ থেকে ইতিবাচক অনেক কিছু পেয়েছি। বিশেষ করে প্রথম টেস্টে ড্যারেন ব্রাভোর সেঞ্চুরি, ব্রেথওয়েটের ৯৪ রান এবং তরুণ জোমেল ওয়ারিক্যানের চমৎকার বোলিং। ইনিংস হারের পর দ্বিতীয় টেস্টে ওরা মানসিক দৃঢ়তা দেখিয়েছে। হোল্ডার, দিনেশ রামদিন, ড্যারেন ব্রাভো ও কার্লোস ব্রেথওয়েটের নৈপুণ্যে রয়েছে সুন্দর আগামীর ছাপ। আশা করছি সিডনির শেষ ম্যাচটিতেও (রবিবার শুরু) উন্নতির এ ধারা অব্যাহত থাকবে।’ উ.ইন্ডিজ ক্রিকেট দুই রকমের সমস্যায় ভুগছে।

বোর্ডের সঙ্গে অন্তর্দ্বন্দ্বে জাতীয় দলের জার্সিতে নেই ডোয়াইন ব্রাভো, আন্দ্রে রাসেলরা। বিভিন্ন কারণে টেস্ট থেকে দূরে আছেন ক্রিস গেইল, সুনিল নারাইন, কাইরেন পোলার্ডের মতো স্বীকৃত তারকা। যাদের নিয়ে আলাদা একটা দলই গড়া যায়! অথচ বিশ্বজুড়ে টাকার খেলা সব ঘরোয়া টি২০তে খেলে দেদার কামিয়ে নিচ্ছেন তারা। দল যখন সফরে ভুগছে তখন অস্ট্রেলিয়াতেই বিগব্যাশ মাতাচ্ছেন গেইল-রাসেলরা! বিশ্লেষকদের মতে জাতীয় দল উপেক্ষা করে এইসব তারকা ক্রিকেটারদের বিশ্বজুড়ে টি২০ খেলা ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট ধ্বংসের অন্যতম কারণ। রয়েছে বোর্ডের কোন্দল, অর্থসঙ্কটসহ আরও অনেক সমস্যা। যেগুলো কাটিয়ে উঠতে কেউ কেউ আইসিসির হস্তক্ষেপ কামনা করছেন। তবে এতে খুব একটা শঙ্কিত নন লয়েড। তিনি বলেন, ‘আমি আগেই বলেছি, যারা খেলবে তারা দেশের প্রতি ভালবাসা থেকেই খেলবে। তাই যারা বিশ্বজুড়ে টি২০ খেলে বেড়াচ্ছে তাদের নিয়ে মাথা ঘামাতে চাই না। আমার স্বপ্ন সুদূরপ্রসারী। হয়তো ভ্রমণটা হাজার মাইল দূরে, কিন্তু তারুণ্যের শক্তিতে ভর করে ক্যারিবীয় ক্রিকেট একদিন ঠিকই ঘুরে দাঁড়বে।’

নির্বাচিত সংবাদ