১৫ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ইংল্যান্ড-দ. আফ্রিকা কেপটাউন টেস্ট শুরু আজ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ দক্ষিণ আফ্রিকা ও সফরকারী ইংল্যান্ডের মধ্যকার চার ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট শুরু আজ। প্রোটিয়ারা র‌্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর দল, তার ওপর হাসিম আমলারা খেলছে ঘরের মাটিতে, সাধারণ সমীকরণে তাদেরই ফেবারিট হওয়ার কথা। কিন্তু প্রথম ম্যাচ শেষে বদলে গেছে সমীকরণ। ডারবানে প্রোটিয়াদের যে পাত্তাই দেয়নি ইংলিশরা! ২৪১ রানের বিশাল জয়ে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে এ্যালিস্টার কুকের দল। কেপটাউনে তাই উজ্জীবিত অতিথিরা। অধিনায়ক কুক, কোচ ট্রেভর বেইলিসসহ দলের প্রত্যেক সদস্য লিডটাকে বাড়িয়ে নিতে দারুণ রকমের আত্মবিশ্বাসী। অন্যদিকে ভারত থেকে ৩-০তে সিরিজ হেরে আসার পর প্রথম ম্যাচের ধাক্কায় চাপের মুখে আমলা বাহিনী। অধিনায়ক নিজেও ব্যাট হাতে ফর্মে নেই। ইনজুরিতে প্রাধান পেসার ডেল স্টেইন। তবু কন্ডিশন কাজে লাগিয়ে ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া স্বাগতিকরা।

বেইলিসের ঘোর যেন এখনও কাটেনি। ইংল্যান্ড কোচ বলেন, ‘র‌্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর দলের বিপক্ষে জয়টা এত সহজে আসবে সেটি ভাবিনি। ছেলেরা অসাধারণ খেলেছে। নিক কম্পটন, জনি বেয়ারস্টো, ক্রিস ওক্স আর স্টিভেন ফিনের কথা আলাদা করে বলতে হবে। কম্পটনের মাঝে উজ্জ্বল ভবিষ্যতের ছাপ দেখতে পাচ্ছি।’ ক্যারিয়ারে ১০ টেস্ট খেলার অভিজ্ঞতা নিয়ে ৩২ বছর বয়সী কম্পটন ডারবানে ৮৫ ও ৪৯ রানের চমৎকার দুটি ইনিংস খেলেন। দক্ষিণ আফ্রিকান বংশোদ্ভূত ডানহাতি এই ব্যাটসম্যানকে দলে ফিরিয়ে আনতে কোচ বেইলিসের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। ৭ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা মঈন আলিকে ভুলে গেলে চলবে না। অধিনায়ক কুকের রান পাওয়া ছাড়া সফরকারী দলে তেমন কোন সমস্যা নেই। ও হ্যাঁ স্ট্রাইক বোলার জেমস এ্যান্ডারসনকে ছাড়াই প্রথম টেস্ট জেতে ইংল্যান্ড। তার পরিবর্তে এই ম্যাচেও দেখা যেতে পারে ক্রিস ওক্সকে। ঘরের মাটিতে এ্যাশেজ পুনরুদ্ধারের পর আমিরাতে পাকিস্তানের বিপক্ষে আশাজাগানিয়া পারফর্মেন্স। অতঃপর এই জয় সব মিলিয়ে উজ্জীবিত হওয়ার মতো যথেষ্ট রসদ রয়েছে কুকদের ভা-ারে। দক্ষিণ আফ্রিকা র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে মূলত এক মৌসুম আগের পারফর্মেন্সের জন্য। ইদানীং দলটির অবস্থা ভাল নয়। ২০১৫ সালে একমাত্র ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে কিছুটা স্বরূপে থাকলেও বাকি সিরিজগুলোতে একেবারেই ম্লান আলোচিত এই দলটি। ডারবানের কিংসমিডের হারটি প্রোটিয়াদের সপ্তম ম্যাচে চতুর্থ পরাজয়। সেই ভারত সফর থেকে দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটিংয়ের অবস্থা যাচ্ছেতাই। নিজেদের শেষ দশ ইনিংসের মাত্র তিনটিতে ২০০’র বেশি রান করতে পেরেছেন আমলারা! কেবল একটি সেঞ্চুরি এসেছে ব্যাটসম্যানদের কাছ থেকে, ডারবানে দলীয় ২১৪’র মধ্যে ওপেনার ডিন এলগার করেন অপরাজিত ১১৮। এ সময় হাফ সেঞ্চুরিও মাত্র তিনটি। নিজের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে দীর্ঘতম বাজে সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছেন খোদ অধিনায়ক আমলা। ১০ টেস্ট ইনিংসে সর্বোচ্চ ৪৩সহ ১৫ গড়ে এ সময়ে করতে পেরেছেন মোট ১৫০ রান। ওয়ানডে-টি২০তেও যাচ্ছেতাই অবস্থা দলটির আধুনিক সময়ের সেরা এই ব্যাটসম্যানের।

গত নিউজিল্যান্ড সফরের একমাত্র সেঞ্চুরি ছাড়া কোন হাফ সেঞ্চুরিও নেই! ধুকতে থাকা ব্যাটিং লাইনআপে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে না পারার কষ্ট আমলার, ‘ব্যাটিং ব্যর্থতা হতাশার, তবে আমরা জানি কিভাবে এই অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে হয়।’

ব্যাটিং শক্তি বাড়াতে এই ম্যাচে এবি ডি ভিলিয়ার্সের কাছ থেকে উইকেটরক্ষকের দায়িত্ব দেয়া হতে পারে কুইন্টন ডি’কককে। কাঁধের ইনজুরির জন্য স্টেইনের না খেলাটা প্রায় নিশ্চিত। এমনকি অপর পেসার কাইল এ্যাবট অনিশ্চিত হয়ে পড়ায় অনেকটা বাধ্য হয়ে তরুণ হর্ডাস ভিলজোয়েসকে ব্যাকআপ হিসেবে দলভুক্ত করা হয়েছে। ঘরোয়া ক্রিকেটে উজ্জ্বল পারফর্মেন্সের জন্য প্রথমবারের মতো ডাক পেয়েছেন ২৭ বছর বয়সী এই ডানহাতি পেসার। হ্যামস্ট্রিং ইনজুরিতে ভোগা এ্যাবট প্রথম টেস্টে ৪৫.৪ ওভার বল করে নিয়েছেন মোটে দুই উইকেট। তার ব্যাকআপ হিসেবেই ভিলজোয়েসর অন্তর্ভুক্তি। সব মিলিয়ে উজ্জীবিত ইংলিশদের বিপক্ষে আমলাদের ঘুরে দাঁড়ানোটা সহজ হবে না।