১৪ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শিশিরের চলচ্চিত্রে অভিষেক

শিশিরের চলচ্চিত্রে অভিষেক

স্টাফ রিপোর্টার ॥ এই সময়ের অন্যতম তরুণ অভিনেতা ও মডেল শিশির আহমেদ। এতদিন মঞ্চ, টিভি নাটক ও বিভিন্ন বিজ্ঞাপনের মডেল হিসেবে কাজ করলেও প্রথমবারের মতো বড় পর্দায় অভিষেক হলো তার। শুক্রবার সারাদেশে অর্ধশতাধিক হলে মুক্তি পেয়েছে শিশির আহমেদ অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র ‘মাটির পরী’। এটি পরিচালনা করেছেন সায়মন তারিক। আর এই চলচ্চিত্রটি দিয়ে রূপালী পর্দায় নিজের নাম লেখালেন শিশির। এরমধ্যে চারটি চলচ্চিত্রের কাজ শেষ করলেও ‘মাটির পরী’ তার অভিনীত ও মুক্তিপ্রাপ্ত প্রথম চলচ্চিত্র। এ নিয়ে উচ্ছ্বসিত শিশির আহমেদ বলেন, শুক্রবার দেশব্যাপী চলচ্চিত্রটি ভাল চলছে। নিজের চরিত্রটি নিয়েও অনেকের কাছে প্রশংসা শুনেছেন শিশির। রাজধানীর বেশ কয়েকটি হলে গিয়ে তিনি দর্শকদের সঙ্গে বসে চলচ্চিত্রটি উপভোগ করেছেন। তারা অনেক প্রশংসা করেছেন। চলচ্চিত্রে নিজের ক্যারিয়ার প্রসঙ্গে শিশির আহমেদ বলেন, চলচ্চিত্র হচ্ছে বড় মাধ্যম। যে কোন শিল্পীর স্বপ্ন থাকে এ মাধ্যমে কাজ করা। অবশেষে আমার স্বপ্ন পূরণ হলো। এ আনন্দ ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়। আবার অন্যদিকে অনেক শিল্পীর জীবনে প্রথম চলচ্চিত্র প্রথম মুক্তির তালিকায় প্রথম থাকে না। দেখা যায় প্রথমটা পরে রিলিজ পাচ্ছে। সে হিসাবে আমি ভাগ্যবান, কারণ আমার প্রথম চলচ্চিটি প্রথমইে মুক্তি পেল। তবে এই আনন্দঘন মুহূর্তে একজন মানুষের কথা খুব মনে পড়ছে। তিনি প্রয়াত নন্দিত চলচ্চিত্রকার চাষী নজরুল ইসলাম স্যার। ‘মাটির পরী’ তার অভিনীত সর্বশেষ চলচ্চিত্র। প্রথম চলচ্চিত্রেই তার সঙ্গে কাজ করার সৌভাগ্য আমার হয়েছে। তিনি আমাদের মাঝে আর নেই কিন্তু তার দেয়া অনেক উপদেশ আমি অভিনয় ক্যারিয়ারে অক্ষরে অক্ষরে পালন করার চেষ্টা করছি। সবার কাছে অনুরোধ থাকবে হলে গিয়ে চলচ্চিত্রটি দেখতে। এসএ খান প্রযোজিত ও ‘মাটির পরী’ মাল্টিমিডিয়া প্রোডাকশন হাউস পরিবেশিত এ চলচ্চিত্রে আরও অভিনয় করেছেনÑ সাইমন, লামিয়া, মৌমিতা, চাষী নজরুল ইসলাম, সুব্রত, সাদেক বাচ্চু, শাকিল, আশফাক নওশেরসহ অনেকে। মঞ্চ দিয়ে অভিনয়ে হাতেখড়ি শিশিরের। পরবর্তীতে ছোট পর্দায় আগমন। বিজ্ঞাপন ও নাটক দিয়ে ইতোমধ্যে ছোট পর্দায় নিজের একটা শক্ত অবস্থান তৈরি করেছেন মডেল-অভিনেতা শিশির আহমেদ। তবে ‘মাটির পরী’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে বড় পর্দায় অভিষেক হলো তার। এছাড়া শিশির আহমেদ অভিনীত আরও তিনটি চলচ্চিত্র মুক্তির মিছিলে আছে। সায়মন তারিকের ‘গু-ামী’, এখলাস আবিদীনের ‘ভালবাসাপুর’ ও শফিউল আযমের ‘উদীয়মান সূর্য’। বর্তমানে তার চারটি ধারাবাহিক নাটক ও তিনটি বিজ্ঞাপন বিভিন্ন চ্যানেলে প্রচার হচ্ছে। শূটিং চলছে মিজানুর রহমান মিজানের ‘লাভ অফ এঞ্জেল’ চলচ্চিত্রের। বড় পর্দায় নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছেন এ অভিনেতা। শিশির সবার কাছে দোয়াপ্রার্থী।