১৭ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সন্ত্রাসী হামলার ষড়যন্ত্র ব্যর্থ

  • নববর্ষ উদযাপন ঘিরে ইউরোপ ও আমেরিকা জুড়ে সতর্কতা জারি

মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই জানিয়েছে, নববর্ষের আগে একটি সন্ত্রাসী হামলার ষড়যন্ত্র ব্যর্থ করে দেয়া হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে ৯/১১ হামলার পর একে সবচেয়ে বড় সন্ত্রাসী হামলার ষড়যন্ত্র হিসেবে দেখা হচ্ছে। এতে জড়িত সন্দেহে ২৫ বছর বয়সী এক তরুণকে গ্রেফতার করা হয়েছে। খবর ওয়েবসাইটের।

সন্ত্রাসী হামলায় জড়িত সন্দেহে ২৫ বছর বয়সী তরুণ ইমানুয়েল লুচম্যানকে নিউইয়র্কের রোচেস্টার থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি ইসলামিক স্টেটকে সরঞ্জামাদি দিয়ে সহায়তা করে যাচ্ছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। নববর্ষের আগের রাতে নিউইয়র্কের কোন বার বা রেস্তরাঁয় হামলা চালিয়ে হত্যা অপহরণের প্রস্তুতি ইমানুয়েল নিচ্ছিলেন বলে পুলিশ সন্দেহ করছে। রোচেস্টার ডেমোক্র্যাট এন্ড ক্রনিক্যাল খবরটি দিয়েছে তবে এতে নির্দিষ্ট কোন টার্গেটের কথা বলা হয়নি। এফবিআইয়ের বিশেষ এজেন্ট টিমোথি ক্লাপেক বলেছেন, ইমানুয়েল আইএসের প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করে সিরিয়া যাওয়ার চেষ্টা করছিলেন। এরই মধ্যে আইএস অনুগত অপর এক ব্যক্তির কথায় কান দিয়ে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে অমুসলিমদের টার্গেট করে হামলার ষড়যন্ত্রে জড়িয়ে যান। আদালতে জমা দেয়া বিবৃতিতে পুলিশ জানিয়েছে, ইমানুয়েলের পরিচিত ওই ব্যক্তি তাকে বলেছিল, ‘সামনেই নববর্ষ, কাজেই অমুসলিমদের লক্ষ্য করে হামলার প্রস্তুতি নাও।’ ইমানুয়েল প্রাথমিকভাবে বোমা হামলার কথা চিন্তা করলেও পরে ছুরি দিয়ে আক্রমণ করবেন বলে ঠিক করেন। এই উদ্দেশ্যে তিনি চেন সুপারশপ ওয়ালমার্ট থেকে ছুরি, স্কাই মাস্ক ও জিপ টাইয়ের মতো সামগ্রী কেনেন। এফবিআইয়ের গোপন তথ্যদাতার সহায়তায় ইমানুয়েলকে আটক করা হয়। এফবিআইয়ের ওই এজেন্ট তার জন্য ওয়ালমার্ট থেকে কেনাকাটা করে এনেছিলেন। ইমানুয়েল তাকে বলেছিলেন, তিনি হামলার জন্য প্রস্তুত রয়েছেন, নিজের পরিবারকে ত্যাগ করতে তিনি তৈরি আছেন। নববর্ষের আগে আইএস যুক্তরাষ্ট্রে হামলা চালাতে পারে এমন আশঙ্কা আগে থেকেই ছিল। সেভাবেই গোয়েন্দাদের প্রস্তুতিও ছিল। বড় কোন শহরে হামলার ষড়যন্ত্র এটিই প্রথম নয়। এর আগে ২০১৪ সালের মে মাসে মুফিদ আলফগিহ নামে ৩২ বছর বয়সী একজন পিজাশপের মালিককে আইএসের জন্য সদস্য সংগ্রহের চেষ্টাকালে গ্রেফতার করা হয়েছিল।

এদিকে সন্ত্রাসী হামলার আশঙ্কায় জার্মানির মিউনিখ শহরে বৃহস্পতিবার মধ্যরাতের এক ঘণ্টা আগে দুটো রেলস্টেশন বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। জার্মানির ব্যাভেরিয়া রাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জোয়াচিম হারমেন সংবাদ সম্মেলনে বলেন, আইএস সন্ত্রাসী হামলা হতে পারে তাদের কাছে এমন তথ্য কাছে ছিল। মিউনিখ সেন্ট্রাল এবং পাসিং স্টেশন মধ্যরাতের কয়েক ঘণ্টা পর আবার চালু করা হয়। জানা গেছে, আইএসের পাঁচ থেকে সাতজন আত্মঘাতী বোমারুর খোঁজে রেলস্টেশন দুটো বন্ধ করা হয়েছিল। তবে সন্দেহভাজন আত্মঘাতী হামলাকারীদের খুঁজে পাওয়া যায়নি। এছাড়া শহর জুড়ে নেয়া হয় ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা। লোক সমাগম হয় এসব জায়গা এড়িয়ে চলতে জনসাধারণকে পরামর্শ দেয়া হয়। নববর্ষ উদযাপনে সন্ত্রাসী হামলার আশঙ্কায় ইউরোপের বহু শহরেই এখন সতর্কতা জারি করা হয়। ব্যাপক নিরাপত্তা গ্রহণ করা হয় রাজধানী বার্লিনেও। লোকজন ব্রান্ডেনবুর্গ গেটের কাছে নববর্ষের ঐতিহ্যবাহী অনুষ্ঠান উপভোগ করে। সতর্কতা সত্ত্বেও এতে প্রচুর লোক সমাগম হয়।

বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলস এবং ফরাসী রাজধানী প্যারিসে নববর্ষের ঐতিহ্যবাহী আলোকসজ্জা ও আতশবাজি প্রদর্শনী বাতিল করা হয়। হামলা পরিকল্পনায় জড়িত তিন ব্যক্তিকে এদিন বেলজিয়ামের পুলিশ গ্রেফতার করে। প্যারিসে মোতায়েন রাখা হয় বিপুলসংখ্যক নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যকে। মস্কোতে আতশবাজি প্রদর্শনীর কয়েক মিনিট দেরিতে শুরু হয়। নিরাপত্তা ঝুঁকির কারণে প্রথমবারের মতো বন্ধ থাকে রেড স্কয়ার।