১৮ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জয়ের ধারায় ফিরতে চায় চেলসি

জয়ের ধারায় ফিরতে চায় চেলসি
  • জয় দিয়ে বছর শুরু করতে চান কোচ হিডিঙ্ক, চ্যালেঞ্জ এবার ক্রিস্টাল প্যালেস

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ অতীতে গৌরব এনেছিলেন। আবারও স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে ফেরার পর প্রথম মৌসুমটা শুরু করেছিলেন দুর্দান্তভাবে। কিন্তু ২০১৫ সালটা কোচিং ক্যারিয়ারের কালো অধ্যায় হয়ে থাকবে জোশে মরিনহোর জন্য। গতবারের ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগ চ্যাম্পিয়নরা এবার নিজেদের সঙ্গেই প্রতিযোগিতা করছে। এমন বাজে নৈপুণ্য শেষ কবে দেখিয়েছিল ব্লুজরা? প্রায় শেষ পর্যায়ে চলে এসেছে লীগ, অনেক আগেই শিরোপা রেস থেকে ছিটকে গেছে। আর এরচেয়ে মর্মান্তিক বিষয় হচ্ছে চেলসির লড়াই এখন লজ্জা বাঁচানোর, রেলিগেশনে পড়ার শঙ্কা এখনও দূর হয়নি। তবে মরিনহো কাঁটা হয়ে বিঁধে ছিলেন, তাকে বরখাস্ত করে গাস হিডিঙ্ককে দায়িত্ব দেয়ার পর যেন কিছুটা চেহারা ফিরেছে ব্লুজদের। টানা তিন ম্যাচ হারেনি, অবশ্য জয়ও আসেনি। নতুন বছরে প্রথম পরীক্ষা হিডিঙ্কের জন্য ক্রিস্টাল প্যালেসের বিরুদ্ধে তাদের মাটিতে লড়াই। আজ পয়েন্ট তালিকায় পঞ্চম স্থানে থাকা ক্রিস্টালের সঙ্গে খেলবে ১৪ নম্বরে থাকা চেলসি।

মরিনহো বিদায় নেয়ার পর নিজেদের মধ্যে যেন সমন্বয়টা ফিরে পেয়েছে চেলসি। গৌরবের মহানায়ক হয়ে গিয়েছিলেন ভিলেন। কোনভাবেই মরিনহোর নির্দেশনা কাজে আসছিল না। তবে হিডিঙ্ক আসার পর নতুন চিন্তা-চেতনা এবং নব কৌশলে দারুণ কাজ হয়েছে। বছরের শেষে ওয়াটফোর্ড ও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সঙ্গে ড্র করেছে চেলসি। হিডিঙ্ক কাজ শুরুর পর টানা তিন ম্যাচ অপরাজিত থাকার কারণে পয়েন্ট টেবিলে দুই ধাপ ওপরেও উঠেছে ব্লুজরা। কিন্তু এরপরও শঙ্কা কাটেনি। রেলিগেশনের ফাঁদ এখনও পাতাই আছে। যে কোন সময় হঠাৎ পা পিছলে গেলেই সেই লজ্জায় মাথা কাটা পড়বে গত আসরের চ্যাম্পিয়নদের। আগের মৌসুমে শিরোপা নিশ্চিত করেছিল চেলসি ক্রিস্টাল প্যালেস সফরে গিয়ে তাদের হারানোর পর। আর এবার রেলিগেশন শঙ্কা থেকে মুক্তির পথ পরিষ্কার হতে পারে ক্রিস্টালকে পরাজিত করার মাধ্যমেই। কিন্তু পরিস্থিতি এবার ঠিক উল্টো। দুর্দান্ত এক মৌসুম যাচ্ছে ক্রিস্টাল প্যালেসের। লীগের অর্ধেকটা শেষ হয়ে গেছে এখন ঈগলসরা ১৯ ম্যাচে ৩১ পয়েন্ট নিয়ে ৫ নম্বরে। শীর্ষে থাকা আর্সেনাল সমান ম্যাচে ৩৯ পয়েন্ট, ব্যবধান মাত্র ৮। তাই শিরোপা রেসেই আছে ক্রিস্টাল প্যালেস। আর চেলসি রেলিগেশন ফাঁদে পড়ে ছটফট করছে সেই জাল থেকে বেরনোর জন্য। তাই সহজ হবে না চেলসির এ পরীক্ষা।

বছরের শেষটা অবশ্য ভালই গেছে। ক্রিসমাস ও নববর্ষের আনন্দ উদযাপন করতে পেরে মানসিকভাবেও চাঙ্গা হয়েছেন চেলসি ফুটবলাররা। এ ছাড়া টানা তিন ম্যাচে অপরাজেয় থাকাটা বাড়তি অনুপ্রেরণা হয়েছে দলের জন্য। এ কারণে এবার আর ড্র নয়, জয় চাইছেন হিডিঙ্ক। বছরের শুরুটা করতে চাইছেন ঘুরে দাঁড়ানো দিয়ে। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা পয়েন্ট অর্জন করতে শুরু করেছি। ম্যানইউয়ের বিরুদ্ধে ড্র ছিল টানা তৃতীয় ম্যাচ যেটায় আমরা হারিনি। কিন্তু এটাই যথেষ্ট নয়। তবে আপনারা হয়তো দেখছেন যে সবগুলো বড় দলই পয়েন্ট হারাচ্ছে। আমরা অবশ্যই এখন জয়ের ধারায় ফিরতে চাইছি। আর এটাই এখন সবচেয়ে জরুরী বিষয়।’ তবে ক্রিস্টালের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জটা কঠিন হবে বলেই মনে করেন ৬৯ বছর বয়সী হিডিঙ্ক। তিনি বলেন, ‘ক্রিস্টাল প্যালেস অনেক ভাল করছে। এলান পারডিউ দুর্দান্ত কাজ দেখিয়েছেন। পরিসংখ্যান দেখলে বোঝা যায় তারা কত ভাল এবার। ১৯ ম্যাচে ২৩ গোল করেছে দলটি। আর হজম করেছে মাত্র ১৬টি। এর মানে তিনি বেশ ভালভাবেই দলকে সুশৃঙ্খলভাবে গুছিয়েছেন।’