২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চুয়াডাঙ্গার অবসর প্রাপ্ত স্কুল শিক্ষকসহ ২ জনকে হত্যা

নিজস্ব সংবাদদাতা, চুয়াডাঙ্গা ॥ চুয়াডাঙ্গা শহরের ফার্মপাড়ায় অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষককে গলাকেটে ও এক ভাংড়ী ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। মঙ্গলবার দিনগত রাত ২টার দিকে নিজ বাড়ীতে শিক্ষক আবু বক্কর (৮০) কে গলাকেটে হত্যা করা হয়। অপরদিকে দূর্বত্তরা হকপাড়ার মৃত আক্কাস আলীর ছেলে হান্নানকে পিটিয়ে হত্যা করেছে । কেনো কে বা কারা তাকে হত্যা করেছে সে বিষয়ে নিশ্চত হওয়া যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে দুবৃর্ত্তরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে তার গলা কেটে হত্যা করেছে। পরিবারের লোক জন জানান, আবু বক্কর দীর্ঘদিন ধরে পেটের পীড়ায় ভূগছিলেন। যন্ত্রনা সইতে না পেরে বটি দিয়ে নিজেই নিজের গলাকেটে আতœহত্যা করেছেন। তবে এটি হত্যা না আতœহত্যা তা নিয়ে জনমনে সংশয় রয়েছে। চুয়াডাঙ্গা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ সাইফুল ইসলাম বলেন ঘটনাটি শুনেছি। ময়না তদন্তর পর অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পরদিকে পুলিশ জানায়, সোমবার রাতে অজ্ঞাত দূর্বত্তরা ভাংড়ী ব্যাবসায়ী হান্নানকে নিজ বাড়ি থেকে কৌশলে ডেকে নেয়। এরপর শহরের আরামপাড়া বিদ্যুত কোয়াটারের ভিতর নিয়ে পিটিয়ে মূমূর্ষ অবস্থায় ফেলে রেখে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজে রেফার্ড করা হয়। রাজশাহী নেয়ার পথে হান্নান মারা যায়।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ সাইফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মাদকের টাকা ভাগ বাটোয়ারা নিয়ে হান্নান খুন হয়েছে বলে প্রাথকিভাবে জানা গেছে।