১২ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জঙ্গী উৎপাদনের কারখানা বিএনপি থেকে খালেদাকে বাদ দিতে হবে ॥ ইনু

নিজস্ব সংবাদদাতা, দৌলতপুর, কুষ্টিয়া, ১০ ফেব্রুয়ারি ॥ তথ্যমন্ত্রী ও জাসদ সভাপতি হাসানুল ইনু বলেছেন, জঙ্গী বিপদমুক্ত, শান্তিপূর্ণ দেশ গড়তে জামায়াত নিষিদ্ধ এবং জঙ্গী উৎপাদনের কারখানা বিএনপি থেকে খালেদাকে বাদ দিতে হবে; তা না হলে দেশকে জঙ্গীমুক্ত ও বৈষম্যহীন সুশাসনের দেশে পরিণত করা যাবে না। বুধবার বিকেল সাড়ে ৫টায় দৌলতপুর উপজেলা জাসদের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে হাসানুল হক ইনু এসব কথা বলেন।

দৌলতপুর উপজেলা জাসদের আহ্বায়ক অধ্যক্ষ রেজাউল হকের সভাপতিত্বে উপজেলা পরিষদ মাঠে সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- জাতীয় নারী জোটের কেন্দ্রীয় কমিটির আহ্বায়ক আফরোজা হক রীনা, জেলা জাসদ সভাপতি গোলাম মহাসিন ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলীম স্বপন। দৌলতপুর জাসদের যুগ্ম আহ্বায়ক শরিফুল কবীর স্বপনের সঞ্চালনে সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন- জেলা জাসদের সাংগঠনিক সম্পাদক অসিত কুমার সিংহ রায়, দৌলতপুর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার কামাল হোসেন দবির ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুস সালামসহ স্থানীয় জাসদ নেতৃবৃন্দ।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, অবৈধ সামরিক শাসক জিয়াউর রহমানের বাচ্চাকাচ্চাদের কাছ থেকে জনগণ নীতি-নৈতিকতা শিখবে না। বেগম খালেদা জিয়া, মির্জা ফখরুল বা বিএনপির অন্য নেতারা বর্তমান সরকারের বৈধতা নিয়ে যে প্রশ্ন তুলছেন তা অবান্তর। নির্বাচনে পরাজিত হলে বা বিএনপি নির্বাচনে অংশ না নিলে সরকার অনৈতিক বা অবৈধ বলার দিন শেষ। মন্ত্রী অত্যন্ত দৃঢ়তার সঙ্গে বলেন, শেখ হাসিনার সরকার নির্বাচিত, বৈধ ও সাংবিধানিক সরকার, এটা দেশের মানুষসহ বিশ্ববাসী জানেন। এ নিয়ে বিএনপির প্রশ্ন তোলার কোন অধিকার নেই। তথ্যমন্ত্রী অবৈধ সামরিক শাসক জেনারেল জিয়ার বাচ্চা-কাচ্চারা দেশে যে অন্যায় ও অপরাধ করেছে তার জন্য আল্লাহর কাছে তওবা ও জনগণের কাছে মাফ চাওয়ার কথা বলেন।

হাসানুল ইনু আগামী দিনের ভবিষ্যৎ জাসদ উল্লেখ করে বলেন, জঙ্গী দমনের জন্য মহাজোট সরকারের দরকার, সমাজ বদলের জন্য জাসদ দরকার, নারী-পুরুষ সমতায় জাসদ দরকার, দুর্নীতিমুক্ত দেশ গড়ার জন্য জাসদ দরকার। আর দরকার খুনীদের আশ্রয়স্থল বিএনপি ও যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসি দিয়ে, মানুষ পোড়ানোর দায় থেকে মুক্ত করতে বেগম খালেদাকে রাজনীতি থেকে অপসারণ করা। শেষে অধ্যক্ষ রেজাউল হককে সভাপতি ও শরিফুল কবীর স্বপনকে সাধারণ সম্পাদক করে ৫২ সদস্যবিশিষ্ট দৌলতপুর জাসদের কমিটির নাম ঘোষণা করা হয়।