১৯ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আজব হলেও গুজব নয়

সেলফি তোলায় কারাগারে!

সেলফি বর্তমান প্রজন্মের রীতিমতো একটি নেশায় পরিণত হয়েছে। সেলফি তুলতে গিয়ে এ পর্যন্ত মৃত্যুও হয়েছে অনেকের। তবে এবার মৃত্যু নয়, সেলফি তুলতে গিয়ে কারাগারে যেতে হয়েছে ১৮ বছরের এক যুবককে। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তর প্রদেশ রাজ্যে। উত্তর প্রদেশের বুলান্দশাহর জেলার ম্যাজিস্ট্রেটের সঙ্গে সেলফি তোলার চেষ্টা করায় ১৮ বছরের ফারাদ আহমেদকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। পরে অবশ্য জামিনে মুক্তি পায় ফারাদ।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট বিশাল কুমার জানান, জেলা ম্যাজিস্ট্রেট তার কার্যালয়ে স্থানীয় বিভিন্ন বিষয়ে লোকজনের সঙ্গে কথা বলছিলেন। দাফতরিক কাজে আসা বেশকিছু বয়োজ্যেষ্ঠ ব্যক্তির সঙ্গে জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের কার্যালয়ে এসেছিলেন ফারাজ। ওই তরুণ একপর্যায়ে জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের সঙ্গে সেলফি তোলার চেষ্টা করেন। কয়েকবার সতর্ক করা হলেও সেলফি তোলা থেকে তাকে নিবৃত্ত করা যায়নি। অধিকতর ভালো সেলফি তোলার চেষ্টা অব্যাহত রাখেন ওই যুবক। পরে তাকে কার্যালয়ের বাইরে নিয়ে গিয়ে ইতোমধ্যে তোলা সেলফিগুলো মুছে ফেলতে বলা হয়। কিন্তু এতে তিনি রাজি হননি। উল্টো উপস্থিত কর্মকর্তা ও পুলিশের সঙ্গে হাতাহাতিতে জড়ান। এরপর তাকে আটক করে গ্রেফতার দেখিয়ে কারাগারে পাঠায় পুলিশ।

ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় জেলা ম্যাজিস্ট্রেট চন্দ্রকলা বলেন, ওই যুবকের মনে রাখা উচিত ছিল যে, তিনি (চন্দ্রকলা) শুধু একজন সরকারী কর্মকর্তাই নন, একজন নারীও। আর নারীর মর্যাদার প্রতি সবারই সম্মান দেখানো উচিত। স্থানীয় কোতোয়ালি থানায় ফারাজের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে অপরাধ সংঘটনের অভিপ্রায়ের অভিযোগ আনা হয়েছে। ফারাজের চাচা মোহাম্মদ ইরফান বলেন, ফারাজ একটা ভুল করেছেন। ভুলটা নিঃসন্দেহে শাস্তিযোগ্য। তারা জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে কৃতজ্ঞ। কারণ, তিনি তাদের কথা শুনেছেন। তিনি ফারাজকে মাফ করে দিতে রাজি হয়েছেন। ফারাজ ভবিষ্যতে এমন কাজ আর করবে না বলে নিশ্চয়তা দিয়েছে।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় কুকুর

বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা কুকুর হচ্ছে রোকো। গিনিস ওয়ার্ল্ড বুক রেকর্ডে ঠাঁই করে নেয়া রোকো পাক্কা ৭ ফুট লম্বা। দু’বছর বয়সী এ কুকুরের ওজন হচ্ছে ১৬৭ পাউন্ড। রোকোর মালিক জেসিকা উইলিয়মস বলেছেন, ‘ও যে অতটা লম্বা হবে তা আমরা জানতাম না।’ জেসিকা আর তার ছেলেবন্ধু ওকে যখন পোষ্য নিয়েছিলেন তখন লাব্রাডোর জাতের এই কুকুরটির বয়স মাত্র আট সপ্তাহ। তখনই গায়ে মাথায় বেশ বেড়ে ওঠেছিল। দেখে মনে হচ্ছিল যেন ছয় মাস বয়স। এখনও কিন্তু রোকোর লম্বা হওয়ার সময় শেষ হয়ে যায়নি। প্রতিদিন সে স্বাভাবিক পরিমানের চেয়ে আট গুন খাবার খেতে পারে। রোকোকে ভালবাসলেও জেসিকা জুটি এ কথা স্বীকার করেছেন যে, এরকম একটা বড়সড় কুকুরের সঙ্গে বসবাস করা সত্যিই বেশ ঝামেলা। অতবড় একটি জন্তুটিকে রাখার পক্ষে জেসিকার বাসাটিও যে খুব ছোট, মাত্র দুই কামরার বাসা। জেসিকা নিজে মাত্র পাঁচ ফুট তিন ইঞ্চি লম্বা। তাছাড়া জেসিকার পাড়াপ্রতিবেশীরাও অতবড় একটি কুকুরের সাহচর্য পছন্দ করে না।

সাত-সতেরো প্রতিবেদক

নির্বাচিত সংবাদ