১৫ আগস্ট ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মেলার বই

আবুল মাল আবদুল মুহিত রচনাবলি

মেধা-মনীষা, প্রজ্ঞা-ধী, কৃতী-কীর্তিতে অনন্য এক মানুষ আবুল মাল আবদুল মুহিত। চিন্তায়-কর্মে-সৃজনে তিনি সময়ের চেয়ে অগ্রসর। তার চিন্তাজাত লেখনী কয়েক দশক ধরে পাঠকের পাঠতৃষ্ণা মিটিয়ে যাচ্ছে। মুহিতের লেখনীতে বর্তমানের আলোকপাত যেমন আছে, তেমনি থাকে ভবিষ্যৎকালের জন্য দিকনির্দেশনাও।

একুশে গ্রন্থমেলায় তার বিপুল রচনাভা ার ১০ খ-ে প্রকাশ করেছে শিকড়সন্ধানী প্রকাশনা সংস্থা উৎস প্রকাশন।

বইটির মূল্য দশ হাজার টাকা। বইমেলায় ২৫% ছাড়ে বিক্রি হচ্ছে সাত হাজার পাঁচ শ’ টাকায়। এছাড়াও বইটি পাওয়া যাচ্ছে ঢাকার শাহবাগের আজিজ সুপার মার্কেটে, উৎস প্রকাশন কার্যালয়ে।

আবুল মাল আবদুল মুহিত রচনাবলি প্রকাশ সম্বন্ধে প্রকাশক মোস্তফা সেলিম বলেন, ‘উৎস প্রকাশন সব সময় পাঠকের হাতে ভাল বইটি তুলে দেয়ার চেষ্টা করে। আবুল মাল আবদুল মুহিত রাজনীতিবিদ হিসেবে যেমন সফল, লেখক হিসেবেও তার মেধা-মনীষা অতুলনীয়। তার ক্ষুরধার লেখনীর যুক্তিনিষ্ঠ উপস্থাপনার সাথে আজ ও আগামীর পাঠকের আরও ঘনিষ্ঠ সম্বন্ধ স্থাপনের দায় অনুভব থেকেই এ বিশেষ প্রকাশনা।’

সাযযাদ কাদিরের কয়েকটি বই

কবি ও বহুমাত্রিক লেখক সাযযাদ কাদিরের ছ’টির বেশি বই আসছে এবারের অমর একুশে গ্রন্থমেলায়। এর মধ্যে রয়েছে তাঁর বহু প্রতীক্ষিত ‘গল্পসংগ্রহ’- ১৯৬৩ থেকে ২০১৫ সালের বিভিন্ন সময়ে লেখা গল্পের সঙ্কলন। বইটি ষাটের দশকের সাড়া জাগানো গল্পকারকে নতুন করে চেনাবে একালের পাঠককে। ‘গল্পসংগ্রহ’ প্রকাশ করেছে অনুপ্রাণন প্রকাশন (স্টল ২৬৮)। ‘সাহিত্যে ও জীবনে রবীন্দ্র-নজরুল’ - নামেই বইটির পরিচয়। প্রকাশ করেছে শিরীন পাবলিকেশন্স (৫৫৫-৫৫৬)। বাংলার দুই মহান কবি সম্পর্কে অনেক কৌতূহল মেটাবে এ প্রবন্ধ-গবেষণাগ্রন্থ। বাংলার ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিষয়ক চমকপ্রদ তথ্যভিত্তিক প্রবন্ধ-গবেষণাগ্রন্থ ‘জানা-অজানা বাংলা’ প্রকাশ করেছে আহমদ পাবলিশিং হাউস (স্টল ৩৯৭-৪০০)। ‘রাজরূপসী’ ও ‘নারীঘটিত’র পর নারী-ভিত্তিক প্রবন্ধ-গবেষণা সিরিজের তৃতীয় গ্রন্থ ‘রমণীমন’ ও হারকিউলিস সিরিজের ‘মহাবীর হারকিউলিস’ প্রকাশ করেছে চিত্রা প্রকাশনী (স্টল ৪৮৬)। দেশ-বিদেশের লোক রচনাভিত্তিক সঙ্কলন উপকথন সিরিজের ষষ্ঠ গ্রন্থ ‘উপকথন চিরদিনের’ প্রকাশ করেছে ঝিঙেফুল (স্টল ৬৩৪-৬৩৫)। এছাড়া দক্ষিণ ভারতের বিজয়নগর রাজসভার বিদূষকের মজার গল্প-কাহিনী ‘তেনালি রামন’ প্রকাশ করেছে দিব্যপ্রকাশ (৫৪৫-৫৫৬)। সাযযাদ কাদিরের আরও কয়েকটি বই মেলায় আসতে পারে বলে জানা গেছে।

মিনার মনসুরের নির্বাচিত কবিতা

মজ্জাগতভাবে বিদ্রোহী হলেও উচ্চকণ্ঠ নয় মিনার মনসুরের কবিতা। ভরা নদীর মতো তাঁর বিদ্রোহে গতি আছে, গর্জন নেই। একেবারেই স্বতন্ত্র তাঁর কণ্ঠস্বর। প্রেম ও দ্রোহ, সহজতা ও সুদূরতা, অস্তিত্ব ও অস্তিত্বহীনতা এবং মৃত্যু ও মৃত্যুহীনতা হাত ধরাধরি করে চলে তাঁর কবিতায়। তবে প্রায়শ সবকিছুকে ছাপিয়ে ওঠে পৃথিবীর প্রতিটি প্রাণ ও ধূলিকণার জন্যে অনন্য এক মমত্ববোধ। ভিন্ন স্বরের এ কবির ৮টি কাব্যগ্রন্থ থেকে বাছাইকৃত কবিতার সংকলন নির্বাচিত কবিতা।

সুখ

কবি গুরুর একটি বিখ্যাত গানের লাইন হচ্ছে এরা সুখের লাগি চাহে প্রেম, প্রেম মেলে না সত্যিকার অর্থেই সুখ যে কি জিনিস তা বোঝা মুশকিল। বেঁচে থেকে মানুষ নানাভাবে সুখের সন্ধান করে থাকে। কেউ কেউ সুখের সন্ধান পেয়ে যান আবার অনেকের ভাগ্যে সুখ শব্দটি বোধহয় লেখা থাকে না। প্রকৃত অর্থে সুখ অন্বেষণ করার বিষয় নয়। এটা অনুধাবনের বিষয়। যা স্পষ্টত ফুটে উঠেছে মোঃ জগলুল কবিরের লেখা এই সুখ বইটির মাধ্যমে। কাড়ি কাড়ি টাকা, বিত্ত-বৈভব কিংবা ব্যাপক কাজের ব্যস্ততায় কখনই সুখ নিহিত থাকে না, কিন্তু ছোটখাটো কাজ মানুষের মনে সুখের দোলা দিয়ে যেতে পারে। লেখক বোঝাতে চেয়েছেন সুখ সম্পূর্ণই নিজের কার্যক্রমের ওপর নির্ভর করে। অর্থাৎ যে ব্যক্তি পরিবারের কিংবা সমাজের দায়বদ্ধতা থেকে মানুষের উপকারে আসে সুখ তার জন্য অপেক্ষা করে। আমরা যেন একে অপরের ভাল চাওয়াটাই ভুলে গেছি। অথচ এই ভাল চাওয়ার মধ্যেও নিহিত রয়েছে সুখ। বিভিন্ন উপমা দিয়ে লেখক বইটিতে সুখের সংজ্ঞা দিয়েছেন। যা এক কথায় চমৎকার। পেশায় লেখক একজন ইঞ্জিনিয়ার হলেও বইটিতে তিনি তাঁর লেখনীর দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন। বইটি পড়লে কিছুক্ষণের জন্য হলেও মনে প্রশান্তি বিরাজ করবে। ইতোমধ্যে এটি বইমেলার ন্যাশনাল পাবলিকেশন্সের ৫১৩-১৪ নং স্টলে শোভা পাচ্ছে।