১৭ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কেশবপুরে ভুল অপারেশনে প্রসুতির মৃত্যুতে ডাক্তারের বাসভবনে হামলা ভাংচুর

কেশবপুরে ভুল অপারেশনে প্রসুতির মৃত্যুতে ডাক্তারের বাসভবনে হামলা ভাংচুর

নিজস্ব সংবাদদাতা, কেশবপুর ॥ কেশবপুরে ভুল অপারেশনে এক প্রসুতির মৃত্যুকে কেন্দ্র করে শুক্রবার তুলকালাম কান্ড ঘটেছে। নিহত রেকসোনার স্বজন ও গ্রামবাসীরা ওই ক্লিনিকের ডাক্তারের বাসভবন হামলা করে ভাংচুরের চেষ্টা চালিয়েছে। প্রায় দু’ঘন্টা নিহতের শতশত লোকজন ওই বাসভবনের সামনে বিক্ষোভ করে ডাক্তারের শাস্তি দাবি করে। এসময় পুলিশের সাথে বিক্ষোভকারীদের ধস্তাধস্তি হয়। পুলিশ তাদের সামাল দিতে ব্যর্থ হলে থানার ওসি ঘটনাস্থলে গিয়ে ডাক্তারের বিরুদ্ধে মামলা নেয়ার আশ্বাস দিলে বিক্ষোভকারীরা বাসভবন থেকে উপজেলা পরিষদে গিয়ে বিক্ষোভ করে।

নিহতের স্বজনরা জানায়, শনিবার সন্ধ্যায় কেশবপুরের দেওলী গ্রামের কালাম মোল্যার স্ত্রী রেকসোনা (২০)র সিজার করে একটি কন্যা সন্তান প্রসাব করান ডাক্তার দীলিপ রায় ও তার স্ত্রী ডাক্তার অঞ্জলী রায় কেশবপুর কপোতাক্ষ সার্জিক্যাল ক্লিনিকে। ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ সিজার করার জন্য পাঁচ হাজার টাকায় চুক্তি করে। পরের দিন রেকসোনা ভাল থাকার পর রবিবার সন্ধ্যায় তার পেট ফুলে যায়। গভীর রাতে রেকসোনাকে ওই ডাক্তাররা আবারও অপারেশন করে। বুধবার রোগির অবস্থা আশংঙ্কাজনক হলে তাকে খুলনা নিতে বলা হয়। তখন রেকসোনাকে খুনলা সার্জিক্যাল ক্লিনিকে নেয়া হয় এবং ওই রাতে সে মারা যায়। রেকসোনার দেবর হাবিবুর রহমান জানান, দ্বিতীয়বার অপারেশন করার আগে তার কাছ থেকে জোর করে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নেয়া হয়েছে। প্রথমে তাদের রোগির কাছে যেতে ও দেখা করতে দেয়া হয়নি। মারা যাবার কিছু সময় আগে তাকে খুলনা নিতে বলা হয়েছে।

থানার ওসি জানান, তাদের অভিযোগ দিতে বলা হয়েছে, অভিযোগ দিলে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বিক্ষোভকারীরা উপজেলা নির্বাহী অফিসের সামনের মাঠে অবস্থান করছিল এবং ডাক্তার দিলীপ রায়ের বাসভনে পুলিশ পাহারায় ছিলো।