১৬ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বাংলা গানের ধারা ফিরে আসছে ॥ ধ্রুব গুহ

বাংলা গানের ধারা ফিরে  আসছে ॥ ধ্রুব গুহ

এ সময়ের প্রতিশ্রুতিশীল কণ্ঠশিল্পী ধ্রুব গুহ। ২০১৪ সালে বাজারে আসা ‘শুধু তোমার জন্য’ এ্যালবামের মাধ্যমে শিল্পী নন্দিত হোন। এ্যালবামের ‘শুধু তোমার জন্য’ এবং ‘যে পাখি ঘর বোঝে না’ গান দু’টির মিউজিক ভিডিও ইউটিউবে আলোচিত হয়েছে। ক্যারিয়ারের প্রথম এ্যালবামের সফলতার ধারাবাহিকতায় দ্বিতীয় এ্যালবামের কাজ শুরু করেছেন। নতুন এ্যালবাম এবং সঙ্গীতাঙ্গনের সমসাময়িক বিষয় নিয়ে তার সঙ্গে কথা হয়।

আপনার গানের শুরুটা জানতে চাই...

ধ্রুব গুহ : ছোটবেলা থেকেই গানের প্রতি প্রচ- ঝোঁক ছিল। বিশেষ করে আমাদের দেশের সৈয়দ আব্দুল হাদী, সুবীর নন্দী, কুমার বিশ্বজিৎ, ওপার বাংলার হেমন্ত, মান্না দে’র কণ্ঠ শুনে গানের প্রতি ভালবাসা তৈরি হয়। কয়েক বছর আগে আমার এক বন্ধু তার গানের রেকর্ডিংয়ের জন্য আমাকে খিলগাঁও স্টুডিওতে নিয়ে যান। সেখানে সঙ্গীত পরিচালক তরিক আল ইসলাম ‘শুধু তোমার জন্য’ নামে একটি গান আমার কণ্ঠে রেকর্ড করান। রেকর্ড শুনে ভাললাগাটা বেড়ে যায়। এ গানটির মাধ্যমেই আমার গানের জগতে পথচলা শুরু। এরপর আমার প্রথম এ্যালবাম ‘শুধু তোমার জন্য’ ২০১৪ সালে এ্যালবামটি রিলিজ হয়। এ্যালবামে মোট ৮টি গান ছিল। এর মধ্যে ‘শুধু তোমার জন্য’ এবং ‘যে পাখি ঘর বোঝে না’ গান দুটির ভিডিওচিত্র ইউটিউবে জনপ্রিয় হয়।

প্রথম এ্যালবামের গানগুলো জনপ্রিয় হয়েছে এতে আপনার অনুভূতি কেমন?

ধ্রুব গুহ : আমি সত্যি অভিভূত। দর্শক যে আমাকে এত ভালবাসা দেবেন আমি চিন্তাও করতে পারিনি। তবে এইটুকু বলব বর্তমান সময়ের শ্রোতা-দর্শকরা অত্যন্ত সচেতন। তারা ভাল এবং মৌলিক জিনিস চেনেন এবং বোঝেন। আমার মনে হয় আমি এমন কিছুটা হলেও দিতে পেরেছি। সেজন্য তারা আমার গান পছন্দ করেছেন। এজন্য তাদের কাছে আমি কৃতজ্ঞ।

আপনার দ্বিতীয় এ্যালবামের খবর কি?

ধ্রুব গুহ : প্রথম এ্যালবামের পর থেকেই বিভিন্ন মহল থেকে দ্বিতীয় এ্যালবাম প্রকাশের জন্য চাপ আসছিল। সেটাকে অনুপ্রেরণা হিসেবে নিয়ে আমি দ্বিতীয় এ্যালবামের কাজ হাতে নিয়েছি। ইতোমধ্যে কয়েকটি গানের কাজ শেষ হয়েছে। সব ধরনের শ্রোতার কথা মাথায় নিয়ে গানগুলো সাজানোর চেষ্টা করছি। এ্যালবামের জন্য গান লিখেছেন প্রিন্স রুবেল, প্লাবন কোরাইশী, তুহিন, আহমেদ রিজভী। এ্যালবামের ৮টি গানের সুর ও সঙ্গীতায়োজন করছেন তারিক আল ইসলাম। আশা করছি এ এ্যালবামটিও শ্রোতাদের ভাল লাগবে।

সাম্প্রতিক সময়ে অডিও বাজারে মন্দার কারণ কি?

ধ্রুব গুহ : আমরা আসলে কপি করতে পছন্দ করি। কিন্তু আমাদের দায়িত্ব হচ্ছে আমরা ভাল কিছু শুনব, দেখব, তারপর আমাদের নিজেদের মতো করে কিছু তৈরি করব। আমি মনে করি আমাদের যে সংস্কৃতি তার সঙ্গে মানানসই কিছু সৃষ্টি করা উচিত। গান হলো মানুষের মনের ভাবনার বহির্প্রকাশ। সময়ের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে সুখ দুঃখের অনুভূতিসম্পন্ন সুন্দর কথা, সুর, তাল-লয়ের মাধ্যমে প্রকাশ করতে হবে। এখনকার শিল্পীদের মধ্যে ভাল কিছু করার জন্য শেখার আগ্রহ কম। অল্প সময়ে তারকা হওয়ার ইচ্ছে তাদের ভাল কিছু করতে দিচ্ছে না। এজন্য মৌলিক কিছু সৃষ্টি হচ্ছে না। তবে কেউ কেউ ভাল করছেন। আমার মনে হয় ২০১৫ সাল থেকে গানের ধারাটা ফিরে আসছে। প্রবীণ শিল্পীরাও নতুন করে গান করছেন। মিউজিক ইন্ডাস্ট্রি ঘুরে দাঁড়াচ্ছে। এ ধারা অব্যাহত রাখতে সঙ্গীত সংশ্লিষ্টদের এগিয়ে আসতে হবে। বিশেষ করে সিনিয়র শিল্পী, যন্ত্রী, সুরকার, গীতিকার, সঙ্গীত পরিচালকসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়েরও দায়িত্ব পালন করতে হবে। নেট থেকে গান ডাউনলোড হচ্ছে, হবে। তবে যারা এত কষ্ট করে গান তৈরি করে তারা যেন বেনিফিট পায় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। ভাল গান আসার জন্য এগুলোও গুরুত্বপূর্ণ।

গান নিয়ে আপনার ভবিষ্যত পরিকল্পনা কি?

ধ্রুব গুহ : প্রথম এ্যালবামের জনপ্রিয়তার পর শিল্পী হিসেবে একটা দায়বদ্ধতা তৈরি হয়েছে। সেই আত্মবিশ্বাস নিয়ে যতদিন বাঁচি গানের সঙ্গে থাকব। সঙ্গীতাঙ্গনে ভাল কিছু দেয়ার চেষ্টা করব। এজন্য সংশ্লিষ্টদের সহযোগিতা ও আশীর্বাদ চাই।

-সাজু আহমেদ