২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আঞ্চলিক সংস্কৃতি তুলে ধরবে বিটিভি চট্টগ্রাম কেন্দ্র ॥ ইনু

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিটিভি) চট্টগ্রাম কেন্দ্র আঞ্চলিক সংস্কৃতি, অর্থনীতি, জীবপ্রকৃতি ও ভাষাগত বৈচিত্র্য তুলে ধরবে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। তিনি বলেন, সম্প্রতি চট্টগ্রাম কেন্দ্র ছয় ঘণ্টা সম্প্রচারের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

এতে করে এখন এই কেন্দ্রের শিল্পীরা অনেক বেশি কাজ করার সুযোগ পাবেন। এই কেন্দ্র থেকে চট্টগ্রামের আঞ্চলিক সংস্কৃতি, অর্থনীতি ও জীবপ্রকৃতি তুলে ধরা হবে। তথ্যমন্ত্রী শুক্রবার সকালে বিটিভি কেন্দ্র পরিদর্শনে যান। সেখানে তিনি শিল্পী-কলাকুশলী ও সংস্কৃতিকর্মীদের সাথে মতবিনিময় করেন। এসময় শিল্পীরা অতীতের অবহেলা, বঞ্চনা, দুর্নীতি, অনিয়ম অভিযোগ তুলে ধরেন।

কয়েকজন শিল্পী অভিযোগ করে বলেন, প্রোগ্রাম করতাম কিন্তু দেখতাম না। কারণ এ কেন্দ্রে প্রোগ্রামের মান বজায় রাখা হতো না। ভাল শিল্পী ও বেসুরে শিল্পীদের একসাথে কাজ করতে হতো। তবে এখনও কেন্দ্রের ভেতরে শিল্পী, কলাকুশলী, গুণীজনদের নানাভাবে অসহযোগিতা করা হচ্ছে।

মহানগর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ফরিদ মাহমুদ বলেন, সেটের দায়িত্বে যারা থাকেন তারা একই সেটে সব অনুষ্ঠান ধারণ করেন। একই সেটে গান, নাচ, আলোচনা, বিনোদনমূলক অনুষ্ঠান হচ্ছে। এভাবে চলতে থাকলে ছয় ঘণ্টা সম্প্রচারে গেলে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণœ হবে।

তবে অনেকে বতর্মান মহাব্যবস্থাপক জাঁ-নেসার ওসমানের প্রশংসা করেন। তারা জানান, বর্তমান মহাব্যবস্থাপক যোগদান করার পর চট্টগ্রাম কেন্দ্রে পরিবর্তন এসেছে। এখন পারিশ্রমিকের জন্য শিল্পীদের ঘোরাঘুরি করতে হয় না। প্রোগ্রামের মান বেড়েছে, কেন্দ্রের পরিবেশ উন্নত হয়েছে। শিল্পীদের অভিযোগ প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, পৃথিবী যতদিন থাকবে অভিযোগও থাকবে। অভাব অভিযোগ দূর করার জন্য আমরা চেষ্টা করছি। সরকার সকল সমস্যার সমাধান করবে।

এরপর দুপুর ১২টায় তিনি চট্টগ্রাম কেন্দ্রের নিউজ স্টুডিও, এডিটিং রুম, টকশোর জন্য নির্মিত ক্রমা স্টুডিও, জেনারেল ম্যানেজারের কার্যালয় ঘুরে দেখেন। এ সময় মন্ত্রী বিটিভি কেন্দ্রের আঙ্গিনায় একটি জামরুল গাছের চারা রোপণ করেন।