২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সেরা ক্যামেরার স্মার্টফোন

দিন দিন বাড়ছে উন্নতমানের মোবাইল ফোন নির্মাণের প্রতিযোগিতা। ফোনের কনফিগারেশন উন্নত করার পাশাপাশি ক্যামেরার মান উন্নয়নেও বিশেষ নজর দিচ্ছে নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো। স্মার্টফোনের ক্যামেরাকে আরও শক্তিশালী করতে কিছু ফ্ল্যাগশিপ মোবাইলে অপটিক্যাল ইমেজ স্ট্যাবিলাইজেশন (ওআইএস) প্রযুক্তি ব্যবহার করা হচ্ছে। এমনই স্মার্টফোন যার ক্যামেরায় ওআইএস প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। এগুলোই সেরা ক্যামেরার স্মার্টফোন হিসেবে বাজার দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। উন্নত ক্যামেরার স্মার্টফোন নিয়ে ফিচার লিখেছেনÑ রেজা নওফল হায়দার

আইফোন ৬ প্লাস

দারুণ হিট এই ফোনটিতে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা যাতে ওআইএস প্রযুক্তি রয়েছে। এছাড়া ডুয়েল টোন ফ্ল্যাশ এবং ফেজ ডিটেকশন অটোফোকাস রয়েছে এতে। কম আলোতে দারুণ ছবি ওঠে। তাছাড়া এর ৫.৫ ইঞ্চি পর্দা দারুণ ভিউফাইন্ডার হিসেবে কাজ করে।

গ্যালাক্সি এস ৬

স্যামসাংয়ের এই ফ্ল্যাগশিপ ফোনে আইওএস প্রযুক্তিসহ দেয়া হয়েছে ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ৩০ এসপিএ-তে ৪কে ভিডিও রেকর্ড করা যায় এর মাধ্যমে। কম আলোতে এর এফ১.৯ এ্যাপারচার বিস্ময়কর ছবি তোলে। এর ৫.১ ইঞ্চির সুপার এ্যামোলেড পর্দার রেজ্যুলেশন ২৫৬০ী১৪৪০ পিক্সেল। ছবির খুঁটিনাটি স্পষ্ট হয়ে ওঠে এতে।

ব্ল্যাকবেরি পাসপোর্ট

স্কয়ার আকৃতির স্মার্টফোনের পর্দাটি ১ : ১ অনুপাতের। এর ১৩ মেগাপিক্সেল ওআইএস ক্যামেরার মাধ্যমে ১ : ১ অনুপাতের ছবি তোলা যায়। বার্স্ট মোড ছাড়াও প্যানারোমা এবং ব্ল্যাকবেরির টাইম শিফট মোডে ছবি তোলা যায়। ভিডিও করা যায় হাই ডেফিনেশন রেজ্যুলেশনে।

লুমিয়া ৮৩০

নকিয়ার এই উইন্ডোজ ফোনের ১০ মেগাপিক্সেল ক্যামেরায় রয়েছে ওআইএস প্রযুক্তি। কার্ল জিস অপটিকসের সঙ্গে রয়েছে পিওরভিউ প্রযুক্তি।

এলজি জি ৪

বর্তমান যুগের স্মার্টফোনগুলোর মধ্যে এর ক্যামেরাটিকে সেরা বলা যায়। এফ১.৮ এ্যাপারচারের ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরায় রয়েছে ওআইএস। তাৎক্ষণিক ফোকাসের জন্য রয়েছে লেজার ফোকাসিং প্রযুক্তি। এতে নতুন প্রযুক্তি কালার স্পেকট্রাম সেন্সর ব্যবহার করা হয়েছে।