১০ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

স্বামীর পরকীয়া ॥ বিষপানে শিশুসহ স্ত্রীর আত্মহত্যা

স্টাফ রিপোর্টার, ঈশ^রদী ॥ মোবাইল ফোনে স্বামীর পরকীয়া করার কথা শুনে ক্ষুব্ধ স্ত্রী পাপিয়া (৩০) দু’শিশু সন্তানকে বিষপান করিয়ে আত্মহত্যা করেছে। শিশুদের মধ্যে দেড় বছরের জীবনের মৃত্যু হয়েছে এবং সাড়ে চার বছরের ইমন পাবনা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। পুলিশ পরকীয়ায় আসক্ত স্বামী মিজানুর রহমানকে আটক করেছে। মর্মান্তিক এ ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার রাতে মুলাডুলি ইউনিয়নের বহরপুর গ্রামে। থানা পুলিশ ও পারিবারিক সূত্র জানায়, স্বামী মিজানুর রহমান নিউ এরা ফাউন্ডেশনের লালপুর অফিসে চাকরি করার সময় তার সহকর্মী রিতার সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনা দীর্ঘদিন চলতে থাকে। মিজানুর রহমান প্রায় সময়ই মোবাইল ফোনে রিতার সঙ্গে প্রেমালাপে ব্যস্ত থাকে। এসব বিষয় জানার পর বার বার নিষেধ করার পরও পরকীয়া বন্ধ না করায় ক্ষুব্ধ হয় পাপিয়া। এরই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার রাতে শিশু সন্তান ইমন ও জীবনকে প্রথমে বিষপান করায় এবং পরে নিজে বিষপান করে। হাসপাতালে নেয়ার পথে মা ও শিশু জীবন মারা যায়।

কিশোরগঞ্জে বিল দখল নিয়ে সংঘর্ষে নিহত এক

নিজস্ব সংবাদদাতা, কিশোরগঞ্জ, ১৩ ফেব্রুয়ারি ॥ জেলার তাড়াইলে সিংধা বিলের দখল নিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষে শাহেদ আলী (৪৫) নামে এক জেলে ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছে। এ সময় আরও ১০ জন আহত হয়েছে। শনিবার দুপুরে উপজেলার দিগদাইড় ইউনিয়নের ডোবাইল হাওড়ে এ ঘটনাটি ঘটে। নিহত শাহেদ আলী উপজেলার সিংধা গ্রামের মৃত খুরশিদ ওরফে মঙ্গল মিয়ার ছেলে বলে জানা গেছে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, ডোবাইল বিল নিয়ে সিংধা ও দিগদাইড় গ্রামের লোকজনের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে দ্বন্দ্ব চলছিল। এর জেরে শনিবার দুপুরে উভয় গ্রামের কয়েক শ’ লোক দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। প্রায় দুই ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই জেলে আলীর মৃত্যু হয়। এ সময় দু’পক্ষের আরও ১০ জন আহত হয়েছে।

চাঁপাইয়ে জামায়াত নেতা আটক

স্টাফ রিপোর্টার, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ॥ সদর থানা জামায়াতের আমির আবু বাক্কারকে (৪২) শহরের পুরাতন বাজার থেকে শনিবার দুপুর পৌনে ১টার দিকে গ্রেফতার করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ-ডিবি। এ সময় সেখান থেকে ৭টি ককটেল ও ৫০০ গ্রাম গানউডার উদ্ধার করা হয়। ডিবি ইন্সপেক্টর হামিদুর রশিদ জানান, নাশকতা সৃষ্টির উদ্দেশ্যে জামায়াতের নেতাকর্মীরা পুরাতন বাজার এলাকার একটি ভবনে গোপন বৈঠকে পুলিশ উপস্থিতি টের পেয়ে অন্যরা পালিয়ে গেলেও আবু বাক্কারকে গ্রেফতার করা হয়।

সাপের দাফন

নিজস্ব সংবাদদাতা, পটিয়া, ১৩ ফেব্রুয়ারি ॥ অবিশ্বাস্য হলেও সত্য মৃত এক বিষধর সাপকে দাফন করা হয়েছে চট্টগ্রামের পটিয়ায়। শনিবার দুপুরে পৌর কাউন্সিলর গোফরান রানার পারিবারিক কবরস্থানে শঙ্খিনী জাতের বিষধর এই সাপটি দাফন করা হয়। এ সময় উৎসুক জনতা কবরস্থানের আশপাশে ভিড় করে। প্রায় বিলুপ্ত বিরল প্রজাতির শঙ্খিনী সাপটি দীর্ঘ দুই মাস ধরে হাবিবুরপাড়া ও মাঝেরঘাটার মাঝামাঝিতে কালিহাতি পুকুরের উত্তর পাড়ে অবস্থান করেছিল। গায়ে কালো-হলুদ ডোরাকাটা অঙ্কিত সাপটি দেখতে প্রতিদিন বিভিন্ন এলাকার নারী-পুরুষ সেখানে ভিড় করত। সাপটিকে তারা দুধও খাওয়াত। কাউন্সিলর গোফরান রানা জানিয়েছেন, দুই মাস ধরে তাদের এলাকার পুকুর পাড়ে সাপটি একটি গর্তে ছিল। প্রতিদিন সকালে ও বিকেলে গর্ত থেকে বের হলে মানুষ সেটিকে দুধ খাওয়াত। সাপটিকে আঘাত করার ১৫ দিন পর শনিবার দুপুরে মারা যায়। গ্রামবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে সেটি কবরস্থানে দাফন করা হয়।