২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিশ্বকাপে ভারতের কাছে হারের নিয়ম ভাঙতে চান ওয়াকার

বিশ্বকাপে ভারতের কাছে হারের নিয়ম ভাঙতে চান ওয়াকার

অনলাইন ডেস্ক॥ বিশ্বকাপ মঞ্চে ভারতের কাছে টানা হারার পরম্পরাটা এ বার ভাঙতে চান তিনি। তবু স্বীকার করতে বাধ্য হচ্ছেন, সামনে ভারত মানেই হার— এই আতঙ্কটা শুধু টিমের ছেলেদেরই নয়, তাঁর নিজের মনেও এমন গেঁথে যে, সেটা সরিয়ে বেরোতে পারাই আসল চ্যালেঞ্জ। আর সেই চ্যালেঞ্জটাই সামনের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সফল ভাবে নিয়ে দেখাতে মরিয়া ওয়াকার ইউনিস।

পাকিস্তান কোচ বলেছেন, ‘‘স্বীকার করতেই হবে, ব্যাপারটা আমাদের মাথায় সারাক্ষণ ঘোরে। আজ পর্যন্ত কোনও বিশ্বকাপের আসরে ভারতকে আমরা হারাতে পারিনি। এই ব্যর্থতার কোনও ব্যাখ্যা নেই। তবু বছরের পর বছর অবধারিত ভাবে এটাই হয়ে এসেছে। কিন্তু এ বার ধারাটা ভাঙতেই হবে!’’ নিজের তরুণ তুর্কিদের উপরেই আস্থা রেখে তারকা পেসার বলেছেন, ‘‘আমাদের টিমে এখন এক ঝাঁক নতুন প্রতিভা। যারা উপমহাদেশের চেনা পরিবেশে এশিয়া কাপ আর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের খেলাটা অনেক বেশি স্বচ্ছন্দে খেলবে। আর এটা জানি, নিজেদের খেলাটা খেলতে পারলে ওরা যে কোনও টিমকেই হারানোর ক্ষমতা রাখে।’’ নিজের দিনে পাকিস্তান যে বিপক্ষকে ধ্বংস করার ক্ষমতা রাখে, সেটা একবাক্যে মানে ক্রিকেট বিশ্ব। তবু বিশ্বকাপে আজ পর্যন্ত ভারত-পাক যুদ্ধের দিনগুলো পাকিস্তানের হয়নি। একই সঙ্গে আসন্ন দুই টুর্নামেন্টে পাকিস্তানের মতো উপমহাদেশের চেনা পরিবেশে নামবে ভারতও। যা সবচেয়ে বেশি ভাবাচ্ছে ওয়াকারকে। এখনও পর্যন্ত সরকারের কাছ থেকে ভারতে গিয়ে বিশ্বকাপ খেলার ছাড়পত্র না পেলেও, চিরশত্রুর বিরুদ্ধে ভাবতে শুরু করে দিয়েছেন ওয়াকার। তাঁর কথায়, ‘‘আমাদের দু’টো টিমের মধ্যে সবচেয়ে বড় ফারাক হল, ভারতের টি-টোয়েন্টি টিমটা অসম্ভব জমাট, ধারাবাহিক আর এই মুহূর্তে অসাধারণ ছন্দে রয়েছে।’’

২০১১ বিশ্বকাপে মোহালির সেমিফাইনালে এবং ২০১৫ বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ওয়াকারের কোচিংয়েই খেলেছিল পাকিস্তান। সেই ব্যর্থতার জ্বালা লুকোনোর চেষ্টা না করে ওয়াকার এ দিন বলেছেন, ‘‘প্লেয়ার আর কোচ হিসাবে ভারতের কাছে হারের এই পরম্পরাটা ভাঙা আমার একমাত্র লক্ষ্য। তবে টি-টোয়েন্টি ফর্ম্যাটে আত্মবিশ্বাসের একটা বিশাল ভুমিকা থাকে। আর এই ভারতীয় টিমটা আত্মবিশ্বাসের শিখরে রয়েছে। তবু শেষ পর্যন্ত কী হয়, সেটা অনেকটাই নির্ভর করবে পিচের চরিত্র আর ম্যাচে কোন টিম সেটা কতটা ভাল ভাবে কাজে লাগাতে পারল, তার উপর।’’

ভারতের শক্তি ধারাবাহিকতা আর আত্মবিশ্বাস হলে, তাঁর ছেলেদের মধ্যে যে এই দু’টো জিনিসেরই অভাব, মানেন ওয়াকার। ইংল্যান্ড সিরিজে এবং হালফিল নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ওয়ান ডে আর টি-টোয়েন্টি সিরিজে একেবারেই ভাল খেলতে পারেনি পাকিস্তান। যা নিয়ে দলে অভিজ্ঞতার অভাবের সঙ্গে মনের মত প্লেয়ার না পাওয়ার দিকে আঙুল তুলছেন পাকিস্তান কোচ।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা