১৭ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

তেলাপিয়া মাছ নিয়ে কোন বিভ্রান্তি নয়

বাকৃবি সংবাদদাতা ॥ তেলাপিয়া মাছ নিয়ে সম্প্রতি কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমে নেত্রিবাচক সংবাদে বিভ্রন্ত না হওয়ার আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিএফআরআই)। গতকাল দুপুরে বিএফআরআই’য়ের উর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. এএইচএম কোহিনূর স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ওই আহ্বান জানানো হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বে তেলাপিয়া মাছের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। বাংলাদেশে বর্তমানে ২.৯৮ লক্ষ মেট্রিক টন তেলাপিয়া মাছ উৎপাদন হয় যা অভ্যন্তরীণ মাছ উৎপাদনের শতকরা ১০.০৯ ভাগ। মাছটি পুষ্টিকর, সুস্বাদু এবং প্রতি ১০০গ্রাম মাছে ২৬ গ্রাম প্রেটিন, ২.৭ গ্রাম ফ্যাট, অল্প পরিমাণে ভিটামিন বি-৬, ভিটামিন বি-১২, পেন্টোথেনিক এসিড ও ওমেগা-৩ নামক ফ্যাটি এসিড পাওয়া যায় যা আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য খুবই দরকারি। কিন্তু সম্প্রতিক সময়ে কয়েকটি গণমাধ্যম কোন নির্ভর যোগ্য তথ্য উপাত্ত ছাড়াই একে স্লো পয়জনিক উল্লেখ করে সংবাদ প্রকাশ করেছে। যার ফলে ভোক্তাদের মনে এক ধরনের ভীতির সঞ্চার হয়েছে এবং তেলাপিয়া মাছ চাষীরা ক্ষতির সম্মুখিত হতে যাচ্ছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, স্বল্পসময়ে স্বল্প প্রোটিন সমৃদ্ধ সম্পূরক খাদ্য শুধুমাত্র চালের কুঁড়া খাবার হিসেবে প্রয়োগ করে সহজেই এ মাছ চাষ করা যায়। উপযুক্ত পরিবেশে চাষকৃত তেলাপিয়া মাছ খাদ্য হিসেবে গ্রহণ করলে তা মানবদেহের উপর কোন ক্ষতিকর প্রভাব পড়ে না। বিএফআরআইয়ের গবেষণায় দেখা গেছে, খামারে মাছের জন্য উপযুক্ত পরিবেশ, পানির গুণাগুণ উপাযোগী মাত্রায় থাকা এবং মাছের পুষ্টিসমৃদ্ধ ও নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করা করা গেলে, খামার থেকে উৎপাদিত তেলাপিয়াসহ বিভিন্ন মাছে ক্ষতিকর কোন উপাদান থাকে না। এছাড়াও ময়মনসিংহ অঞ্চলের বেশ কিছু খামার থেকে তেলাপিয়া মাছ সংগ্রহ করে পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করে মানবদেহের জন্য মারাতœক ক্ষতিকর কোন উপাদান পাওয়া যায় নি।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, তবে কোন খামারিরা ট্যানারি বর্জ্য, পোল্ট্রি লিটার প্রভৃতি ক্ষতিকারক বর্জ্য পদার্থ তেলাপিয়া মাছকে খাবার হিসেবে দিলে তখন সেসব খামার থেকে উৎপাদিত তেলাপিয়া মাছের কিছু ক্ষতিকারক উপাদান জমা হতে পারে। আর ওই মাছ খাদ্য হিসেবে গ্রহণ করলে মানুষের শরীরের বিরুপ প্রভাব দেখা দিতে পারে। তাই তেলাপিয়া মাছের মত একটি সুস্বাদু, পুষ্টিসমৃদ্ধ ও সহজলভ্য তেলাপিয়া মাছ সম্বন্ধে কোন ধরনের বিভ্রান্ত এবং ভীত না হওয়ার জন্য ভোক্তাদের আহ্বান জানিয়েছেন।