১৬ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কলাপাড়া-কুয়াকাটা ফেরিঘাটে বাড়তি টোল আদায়

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলাপাড়া, ১৪ ফেব্রুয়ারি ॥ কলাপাড়া-কুয়াকাটা সড়কে হাজীপুর ফেরি পারাপারে চলছে চাঁদাবাজি। কুয়াকাটাগামী পর্যটকদের জিম্মি করে বাসপ্রতি আদায় করা হচ্ছে চার শ’ টাকা পর্যন্ত। এক শ’ থেকে এক শ’ ৯০ টাকা ভাড়ার স্থলে আদায় করা হচ্ছে দ্বিগুণ তিনগুণ বেশি। কোন প্রতিকার না পেয়ে এ বাড়তি টাকা দিয়েই কুয়াকাটায় ভ্রমণের তিক্ত অভিজ্ঞতা নিতে হচ্ছে পর্যটক-দর্শনার্থীদের। মৌশি এন্টারপ্রাইজের রসিদের মাধ্যমে এ বাড়তি টাকা আদায় করা হচ্ছে। তদারকির দায়িত্বে সড়ক ও জনপথ কিংবা ফেরি বিভাগ এবং পুলিশ থেকে প্রশাসনের কোন সহায়তা পাচ্ছে না ভুক্তভোগীরা।

সওজ সূত্রে জানা গেছে, কুয়াকাটা সড়কের হাজীপুর পয়েন্টে ফেরি ঘাটটি চলতি বছরে ইজারা পায় মেসার্স মৌশি এন্টারপ্রাইজ। নিয়ম অনুসারে বাসপ্রতি ৯৫ টাকা এবং মিনিবাস ও মাইক্রোবাস প্রতি ৫০ টাকা আদায় করার কথা। কিন্তু পর্যটক মৌসুম শুরু হলেই ওই ফেরির ইজারাদার ফ্রি-স্টাইলে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করে। তাদের খামখেয়ালিপনায় পর্যটকদের গাড়ি প্রতি আসা-যাওয়া বাবদ ১৯০ টাকার স্থলে ৪০০ টাকা এবং ১০০ টাকার বিপরীতে ৪০০ টাকা গুনতে হয়। এছাড়া ফেরির খালাসিদের বকশিশের নামেও আরেকদফা গুনতে হয় বাড়তি টাকা। ইজারাদারের পক্ষে এসব মাত্রাতিরিক্ত অর্থ আদায়ের সঙ্গে জড়িত রয়েছে রহিম, মবিন ও সোহাগ। মহিপুর ইউনিয়নের ইউপি সদস্য আব্দুর রব হাওলাদার জানান, মহিপুর পুলিশের সহয়তায় ওই চক্রটি প্রতিদিন পর্যটকদের জিম্মি করে বাড়তি টাকা আদায় করে। রাত গভীর হলেই চক্রটি আরও বেপরোয়া হয়ে ওঠে। পটুয়াখালী সওজের নির্বাহী প্রকৌশলী জহিরুল ইসলাম ইজারাদারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে মন্তব্য করেন।