২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রাজশাহীর বাঘায় পুলিশের সঙ্গে ছাত্রদের সংঘর্ষ : আহত ১৫

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ রাজশাহীর বাঘায় পুলিশের সঙ্গে আন্দোলনরত কলেজ ছাত্রদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ঘ ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এসময় কলেজের আসবাবপত্র ভাংচুর করা হয়। সংঘর্ষে পুলিশসহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছে। সোমবার দুপুরে উপজেলা সদরের শাহদৌল্লা ডিগ্রী কলেজ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বাঘায় এইচএসসি পরীক্ষার কেন্দ্র পরিবর্তনের দাবি নিয়ে শিক্ষার্থীরা বেলা ১১ টার দিকে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ শুরু করে। খবর পেয়ে বাঘা থানা পুলিশ বিক্ষোভ কর্মসূচীতে বাধা সৃষ্টি করলে প্রথমে উত্তেজনা পরে তা সংঘর্ষে রূপ নেই। শুরু হয় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া। এ ঘটনায় পুলিশ ব্যবসায়ী ও শিক্ষার্থীসহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়।

শিক্ষার্থীরা জানায়, বাঘা শাহদৌল্লা ডিগ্রী কলেজের শিক্ষার্থীরা তাদের এইচএসসি পরীক্ষার কেন্দ্র তেঁথুলিয়ার পরিবর্তে বাঘা সদরে করার দাবিতে প্রথমে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। এরপর মিছিলটি উপজেলা পরিষদ চত্বর পদক্ষিন করে ফিরে আসার সড়ক অবরোধ করে। ফলে ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থালে পুলিশ এসে তাদের ধাওয়া করলে উভয় পক্ষের মধ্যে ব্যাপক সংঘাত, ইট-পাটকেল নিক্ষেপ ও ধাওয়া-পাল্টার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) শ্রী ধীরেন্দ্রনাথ, এসআই মির্জা হাসান ও কনস্টেবল তোতা গুরুত্বর আহত হয়। এছাড়া পুলিশের লাঠিচার্জে কলেজের এক প্রভাষক ও আ’লীগ নেতা আবুবক্কর সিদ্দিকের ছেলে দুর্জয়, শিক্ষার্থী আাসিফ, মেহেদী, পলাশ এবং পথচারী সাজদার রহমানসহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়। আহতদের স্থানীয় স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

শাহদৌল্লাহ ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ আমজাদ হোসেন জানান, আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হতে যাচ্ছে। এই পরীক্ষার সময় সরকারি নির্দেশনা মতে এক স্থানের শিক্ষার্থীরা আরেক স্থানে গিয়ে পরীক্ষা দেয়। সেদিক থেকে বাঘার শিক্ষার্থীদের তেঁথুলিয়া যেতে হয়। আপর দিকে তেঁথুলিয়ার শিক্ষার্থীদের আড়ানী যেতে হয়, আর আড়ানীর শিক্ষার্থীদের বাঘায় আসতে হয়। ফলে শিক্ষার্থীদের সময় অপচয়সহ পরীক্ষার পরিবেশ বিঘ্নিত হয়। এ কারনে শিক্ষার্থীরা আন্দোলন শুরু করে।

বাঘা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আলী মাহামুদ জানান, সড়কে যানজট সৃষ্টি হওয়ায় ঘটনাস্থলে পুলিশ এলে ছাত্ররা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল ছুড়ে। এ সময় উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে।