২৪ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ওষুধ, চাল এবং বালু আমদানিতে আগ্রহ মালদ্বীপের

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, বাংলাদেশের তৈরি ওষুধ, উৎপাদিত চাল এবং বালু আমদানি করতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে দ্বীপরাষ্ট্র মালদ্বীপ। সোমবার সচিবালয়ে বাংলাদেশে নিযুক্ত মালদ্বীপের রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মেদ অসিমের সঙ্গে মতবিনিময় শেষে তিনি একথা বলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ ইতোমধ্যে শ্রীলঙ্কায় ৫০ হাজার মেট্রিক টন চাল রফতানি করেছে। নেপালে ভূমিকম্পের সময় ১০ হাজার মেট্রিক টন চাল অনুদান হিসেবে প্রেরণ করা হয়েছে। মালদ্বীপ বাংলাদেশ বন্ধুরাষ্ট্র। সেখানে বাংলাদেশের প্রায় ৬৭ হাজার মানুষ বসবাস করছে। বাংলাদেশের প্রায় ৬০ জন চিকিৎসক মালদ্বীপে সুনামের সঙ্গে স্বাস্থ্য সেবা প্রদান করছে।

মন্ত্রী বলেন, গত অর্থবছর বাংলাদেশ মালদ্বীপে ৫.৬৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের পণ্য রফতানি করেছে, একই সময়ে বাংলাদেশ আমদানি করেছে ১.১৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের পণ্য। চলমান বাণিজ্য বৃদ্ধি করলে উভয় দেশ উপকৃত হবে। বাংলাদেশ এখন আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন ওষুধ তুলনামূলক কম দামে সরবরাহ করতে সক্ষম উল্লেখ করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থায় ট্রিপস চুক্তির মেয়াদ ২০৩৩ সাল পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে। উন্নত বিশ্বসহ পৃথিবীর প্রায় ১০৭টি দেশে বাংলাদেশ ওষুধ রফতানি করছে। মালদ্বীপ এ সুযোগ গ্রহণ করতে পারে। মালদ্বীপের রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশ থেকে বালু আমদানির আগ্রহ প্রকাশ করেছে বলেও জানান মন্ত্রী।

মালদ্বীপে বাংলাদেশর তৈরি ইলেক্ট্রনিক পণ্য, টয়লেটারিজ, ওষুধ, ক্রোকারিজ, শুকনা খাবার, কাপড়, শিশুদের পোশাক, শাবান, অলংকার, প্লাস্টিক সামগ্রী, চামড়াজাত পণ্য প্রভৃতি পণ্যের প্রচুর চাহিদা রয়েছে। উভয় দেশের ব্যবসায়ী এবং সরকারী পর্যায়ে আলোচনার মাধ্যমে এ বাণিজ্য অনেক বৃদ্ধি করা সম্ভব। প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালের ১৭ নবেম্বর উভয় দেশের মধ্যে ব্যবসা-বাণিজ্য বৃদ্ধির লক্ষ্যে জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠন করা হয়েছে।