২৩ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আড়াইহাজারে ফের গণপিটুনিতে ডাকাত নিহত

নিজস্ব সংবাদদাতা, নারায়ণগঞ্জ, ১৫ ফেব্রুয়ারি ॥ আড়াইহাজার উপজেলায় আবারও গণপিটুনিতে আল ইসলাম (১৯) নামে এক ডাকাত নিহত হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার রাত দেড়টার দিকে মদনপুর-নরসিংদী সড়কের উপজেলার বাঘানগর ব্রিজ এলাকায়। পুলিশ নিহত ডাকাতের লাশের ময়না তদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ ১০০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

জানা গেছে, রবিবার রাত দেড়টায় মদনগঞ্জ-নরসিংদী সড়কে উপজেলার আড়াইহাজার পৌরসভাধীন বাঘানগর ব্রিজ এলাকায় ৫-৭ জনের একটি ডাকাত দল সড়কে গাছের ডাল ফেলে ব্যারিকেড দেয়। এ সময় তারা বিভিন্ন যানবাহনে ডাকাতি করছিল। এ খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় লোকজন জড়ো হয়ে ডাকাতদের ধাওয়া দেয়। এ সময় তারা এক ডাকাতকে ধরে ফেলে। অন্যান্য ডাকাতরা পালিয়ে যায়। পরে তারা ডাকাতকে গণপিটুিন দিয়ে আহত অবস্থায় ফেলে রাখে। আড়াইহাজার থানা পুলিশ ওই ডাকাতকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। সে নরসিংদী জেলার সদর থানার আব্দুল খালেকের ছেলে।

বরিশালে নারী ইউপি চেয়ারম্যানকে গালিগালাজ

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ জেলার উজিরপুর উপজেলা আ’লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় ফের জল্লা ইউনিয়ন পরিষদের দু’বারের নির্বাচিত নারী চেয়ারম্যান উপজেলা আ’লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি উর্মিলা বাড়ৈকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে লাঞ্ছিত করেছে উপজেলা চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান ইকবাল। একপর্যায়ে বিএনপির সন্ত্রাসীদের হাতে নির্মমভাবে নিহত উর্মিলার প্রয়াত স্বামী সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আ’লীগ নেতা অবনী বাড়ৈকে সন্ত্রাসী আখ্যায়িত করায় বর্ধিত সভারমধ্যে প্রকাশ্যে হাউমাউ করে কেঁদে ফেলেন নারী চেয়ারম্যান।

জানা গেছে, উত্তেজিত উপজেলা চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান ইকবালকে উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মজিদ সিকদার বাচ্চু একাধিকবার নিবৃত্ত করার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন। বিষয়টি সর্বত্র ছড়িয়ে পড়লে সোমবার সকালে উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিলের আয়োজন করে জল্লা ইউনিয়নবাসী। পরে উর্মিলা বাড়ৈর অনুরোধে ইউনিয়নবাসী বিক্ষোভ মিছিল করতে পারেনি।

জাসদ নেতা কাজী আরেফ হত্যার ১৭ বছর আজ

নিজস্ব সংবাদদাতা, দৌলতপুর, কুষ্টিয়া, ১৫ ফেব্রুয়ারি ॥ ১৬ ফেব্রুয়ারি জাতীয় পতাকার রূপকার ও মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক জাসদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি কাজী আরেফ আহমেদসহ পাঁচ জাসদ নেতাকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। আজ তার ১৭তম বার্ষিকী। দীর্ঘদিন পর তিন ঘাতকের ফাঁসি কার্যকর হওয়ায় নিহতের পরিবারের সদস্যরা স্বস্তি প্রকাশ করলেও তাদের দাবি এ হত্যাকা-ের মূল পরিকল্পনাকারীরা আজও রয়েছে ধরা ছোঁয়ার বাইরে।

নির্বাচিত সংবাদ