২১ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সানিয়া-হিঙ্গিসের টানা ৪০

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ অপ্রতিরোধ্য গতিতেই ছুটছেন সানিয়া মির্জা ও মার্টিনা হিঙ্গিস জুটি। এবার টানা ৪০ ম্যাচ জয়ের স্বাদ পেলেন টেনিসের বিশ্বসেরা এই জুটি। এই জয়ের মধ্যদিয়ে সেন্ট পিটার্সবার্গ ডাবলসের খেতাবও নিজেদের করে নিয়েছেন ভারত ও সুইজারল্যান্ডের এই তারকা জুটি।

সেন্ট পিটার্সবার্গ নারীদের ডাবলসের ফাইনালে সানিয়া-হিঙ্গিস হারিয়েছেন রাশিয়া ও চেক প্রজাতন্ত্রের জুটি ভেরা দুশেনিভা ও বারবেরা ক্রেজিকোভাকে। ফাইনালে ৬-৩ এবং ৬-১ সেটে জিতেছেন মাত্রই অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের দ্বৈতের চ্যাম্পিয়ন জুটি সানিয়া-হিঙ্গিস। চলতি বছর এ নিয়ে চারবার শিরোপার স্বাদ পেলেন তারা। বছরের শুরুটা করেছিলেন ব্রিসবেন ইন্টারন্যাশনাল টেনিস টুর্নামেন্টের শিরোপা জিতে। এরপর সিডনি ওপেনেও নিজেদের মেলে ধরেন দারুণভাবে। তাতেও থেমে যায়নি তাদের জয়রথ। মৌসুমের প্রথম গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট অস্ট্রেলিয়ান ওপেনেও চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেন তারা। সেই সঙ্গে গড়েছিলেন টানা তৃতীয় গ্র্যান্ডসøাম জয়ের অবিস্মরণীয় কীর্তি। এবার টানা ৪০ ম্যাচ জয়ের রেকর্ড গড়ে দারুণ রোমাঞ্চিত দ্বৈতের এই তারকা জুটি। অবিস্মরণীয় গতিতে ছুটতে থাকা ইন্দো-সুইস জুটির এখন দৃষ্টি টানা ৪৪ ম্যাচ জয়ের রেকর্ডকেও ছাড়িয়ে যাওয়া। ১৯৯০ সালে টানা ৪৪ ম্যাচ জিতে টেনিসে বিস্ময়কর কীর্তি গড়েছিলেন জানা নোভোতোনা-হেলেনা সুকোভা জুটি।

সেন্ট পিটার্সবার্গ ওপেন জয়ের পর উচ্ছ্বাস ঝড়েছে দুই তারকার কণ্ঠেই। এ প্রসঙ্গে ভারতের সানিয়া মির্জা বলেন, ‘আরও একটি শিরোপা জিততে পেরে আমরা দারুণ খুশি। আমাদের চোখ এখন আগের ৪৪ ম্যাচ টানা জয়ের রেকর্ডটির দিকে। আমাদের বিশ্বাস রেকর্ডটি খুব শীঘ্রই ছুঁতে পারব।’

তবে টানা ৪০ ম্যাচ জয়ের রেকর্ডটাও যে খুব সহজ নয় সেটাও জানিয়ে দিলেন সানিয়া মির্জা। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আসলে এটা খুব সহজ বিষয় নয়। স্বপ্নের এই পথটা যে এত দীর্ঘ হবে তা কখনই ভাবিনি। তবে উভয়ের পক্ষ থেকেই একটা কথা বলতে চাই যে, আমরা যোগ্যতা দিয়েই কোর্টে লড়াই করে যাচ্ছি। প্রতি ম্যাচেই তার প্রমাণ দিয়ে আসছি আমরা। আশা করি, পারফর্মেন্সের এই ধারাবাহিকতা ভবিষ্যতেও ধরে রাখতে পারব।’ তবে দ্বৈতে টানা ১০৯ ম্যাচ জয়ের রেকর্ডটা কিন্তু এখনও ধরা-ছোঁয়ার বাইরেই। ১৯৮৩ সালে মার্টিনা নাভ্রাতিলোভা এবং পাম শ্রিভার অনন্য এই রেকর্ড গড়ে নিজেদের অন্য উচ্চতায় নিয়ে যান।

সানিয়া মির্জার বর্তমান বয়স ২৯। এই মুহূর্তে ক্যারিয়ারের স্বর্ণালী সময় অতিক্রম করছেন তিনি। টেনিস বিশ্বে আরও কয়েক বছর দাপটের সঙ্গেই লড়াই চালিয়ে যেতে পারবেন ভারতের এই টেনিস তারকা। অন্যদিকে বয়সে পঁয়ত্রিশকেও ছাড়িয়ে গেছেন মার্টিনা হিঙ্গিস। পাঁচ গ্র্যান্ডসøাম ছাড়াও অসংখ্য শিরোপা জয়ের স্বাদ পেয়েছেন তিনি। যে কারণে নিজেকে কোথায় গিয়ে থামাবেন সেটাই এখন দেখার অপেক্ষা। তবে এই মুহূর্তে সানিয়ার সংস্পর্শই যে তাকে দারুণভাবে অনুপ্রাণিত করছে সেটা অকপটেই স্বীকার করেছেন মার্টিনা হিঙ্গিস।