২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নতুন চ্যালেঞ্জ শুরু ॥ মিরাজ

  • বাংলাদেশ অনুর্ধ-১৯ অধিনায়কের প্রশংসায় আইসিসি সভাপতি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ প্রথমবারের মতো আইসিসির কোন বড় টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের কোন ক্রিকেটার সেরা খেলোয়াড়ের স্বীকৃতি পেয়েছে। আর সেই বিরল অর্জনের মাধ্যমে বাংলাদেশ অনুর্ধ ১৯ দলের অধিনায়ক মেহেদী হাসান মিরাজ করেছেন দেশকে গর্বিত। ব্যাটে-বলে দুর্দান্ত নৈপুণ্য দেখিয়ে নিজেকে ভবিষ্যতের তারকা অলরাউন্ডারে পরিণত হওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন। আর সেজন্যই খোদ আইসিসি সভাপতি জহির আব্বাস নিজেই ভূয়সী প্রশংসা করলেন মিরাজের। এ তরুণকে অভিনন্দন জানিয়ে জহির দাবি করেন মিরাজ বাংলাদেশ ক্রিকেটের উন্নতির আসল চেহারা বিশ্বের কাছে তুলে ধরেছেন। তবে এখানেই থেমে থাকতে চান না ১৮ বছর বয়সী খুলনার তরুণ মিরাজ। তিনি প্রত্যয় জানিয়েছেন নিজেকে আরও পরিণত ক্রিকেটার হিসেবে গড়ে দেশকে বড় অর্জন এনে দেয়ার।

বল হাতে ১২ উইকেট নিয়ে সপ্তম, ব্যাট হাতে ২৪২ রান করে ১২তম। অলরাউন্ড নৈপুণ্যে উজ্জ্বল মিরাজ এবার যুব বিশ্বকাপে তিন ম্যাচ জিতিয়েছেন বাংলাদেশ অনুর্ধ ১৯ দলকে। এর সঙ্গে আছে দারুণ নেতৃত্বগুণ। বিশ্বকাপ ইতিহাসে তার অধিনায়কত্বে নিজেদের সেরা অর্জন হিসেবে তৃতীয় হয়েছে বাংলাদেশের যুবারা। তাই যুব বিশ্বকাপের সেরা ক্রিকেটার হওয়ার পথে আর কোন প্রতিদ্বন্দ্বী ছিল না মিরাজের। এ বিষয়ে মিরাজ বলেন, ‘এখানে ১৬ দল খেলেছে। আর এখানে আমি সেরার পুরস্কার পেয়েছি। এটা শুধু আমার জন্য না; আমি বলব এটা পুরো দেশের অর্জন। বিশ্বকাপের মতো আসরে ভাল খেলাটা অনেক আনন্দের বিষয়। পুরো বিশ্ব দেখেছে বাংলাদেশ ভাল ক্রিকেট খেলেছে এবং প্রতিদিনই উন্নতি করেছে। এটা তাই খুব আনন্দের বিষয়।’ কিন্তু থেমে থাকলে চলবে না। নিজেকে আরও পাকাপোক্ত ও উপযুক্ত করে গড়তে হবে। জাতীয় দলের হয়ে খেলে দেশকে আরও অর্জন এনে দিতে হবে। বিষয়টি নিজেই অনুধাবন করছেন মিরাজ। তিনি বলেন, ‘এখন তো অনুর্ধ ১৯ পর্যায় শেষ করলাম। এখান আমার নিজের চিন্তা শীর্ষ পর্যায়ের ক্রিকেট খেলা। সবার স্বপ্ন থাকে জাতীয় দলে খেলার স্বপ্ন থাকে। আমারও আছে। তবে জাতীয় দলে খেলার জন্য পরিপূর্ণ ক্রিকেটার হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হতে হবে। আমার সামনে অনেক সময় আছে। এ সময়টা আমি কাজে লাগিয়ে পরিপূর্ণ হতে চাই। আমি নিজেকে আরও পরিপূর্ণ ক্রিকেটার হিসেবে দেখতে চাই। অনুর্ধ ১৯ পর্যায় থেকে দেশের মানুষ আমাদের খেলা দেখেছে। আমার প্রতি সবাই প্রত্যাশা করছে। আমাদের এখন তাই আরও ভাল খেলতে হবে। আমি ব্যক্তিগতভাবে অনেক দূরে যেতে চাই। বাংলাদেশকে অনেক কিছু দিতে চাই।’

ছোটদের হোক কিংবা বড়দের, যে কোন বিশ্বকাপের ইতিহাসে বাংলাদেশকে সেরা অর্জন এনে দিয়েছেন যোগ্য নেতৃত্ব দিয়ে মিরাজ। অনেকে তাই আগামীতে ক্রিকেটে বিশ্বের অন্যতম সেরা একজন তারকায় পরিণত হবেন তিনি এমনটাই মনে করছেন অনেকে। তার ভূয়সী প্রশংসা ঝরল আইসিসি সভাপতি জহিরের কণ্ঠেও। তিনি সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘মিরাজকে অভিনন্দন। সে শুধু দলকে নেতৃত্ব দিয়ে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ তৃতীয় স্থানই পাইয়ে দেয়নি, এর পাশাপাশি নিজেকেও দারুণভাবে মেলে ধরেছে। দুর্দান্ত নৈপুণ্য দেখিয়ে বিশ্বকে বাংলাদেশ ক্রিকেটের আসল চিত্রটাও তুলে ধরেছে সে। এখন সবাই জেনে গেছে বাংলাদেশের ক্রিকেট কতখানি উন্নতি করেছে।’