১৫ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সিরিয়ায় স্কুল, হাসপাতালে বিমান হামলায় নিহত ৫০

সিরিয়ায় স্কুল, হাসপাতালে বিমান হামলায় নিহত ৫০

অনলাইন ডেস্ক॥ সিরিয়ায় তুরস্ক সীমান্তবর্তী বিদ্রোহী-নিয়ন্ত্রিত শহরগুলোর তিনটি হাসপাতাল ও একটি স্কুলে বিমান হামলায় কমপক্ষে ৫০ জন নিহত হয়েছে। হাসপাতালে হামলাকে যুদ্ধাপরাধ বলছে তুরস্ক এবং ফ্রান্স।

স্থানীয় অধিবাসী ও চিকিৎসা কর্মীদের বরাত দিয়ে বিবিসি অনলাইন এ খবর জানায়।

গতকাল সোমবার আজাজ শহরের কেন্দ্রস্থলের হাসপাতাল এবং এর কাছেই অবস্থিত স্কুলে অন্তত পাঁচটি ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত হানে। সেখানে ১৪ জন নিহত হন। সিরিয়ার সরকারি বাহিনীর অভিযান থেকে পালিয়ে ওই স্কুলটিতেই আশ্রয় নিয়েছে শরণার্থীরা।

শহরটির দক্ষিণে আরেকটি শরণার্থী আশ্রয়শিবির ও ট্রাকের বহরে বিমান থেকে বোমা ফেলা হয়। রাশিয়ার জঙ্গি বিমান এ বোমাবর্ষণ করেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তুরস্ক সীমান্তে এ শহরটিই বিদ্রোহীদের সর্বশেষ ঘাঁটি। সিরিয়ার সেনাবাহিনী এবং মিলিশিয়াদের মধ্যে প্রচণ্ড লড়াইয়ের কারণে গ্রাম ও শহরগুলো থেকে পালিয়ে মানুষজন এ শহরেই জড়ো হয়েছে।

সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস জানায়, শহরের উত্তর প্রান্তে মারাত নুমান এলাকায় ন্যাশনাল হাসপাতালে বিমান থেকে বোমা হামলায় দুই সেবিকার মৃত্যু হয়েছে।

হামলার জন্য আসলেই কারা দায়ী তা স্পষ্ট না হলেও তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী আহমেত দাভুতগলু রাশিয়াকেই দায়ী করেছেন বলে জানিয়েছে বিবিসি।

গত সপ্তাহ থেকে তুরস্কও ওই এলাকায় কুর্দি ওয়াইপিজি মিলিশিয়াদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করেছে। আজাজ শহর লক্ষ্য করে হামলা চালাচ্ছে তারা।