২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বরিশালে গার্মেন্টস কর্মিকে গণধর্ষণ ॥ গ্রেফতার-৩

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ জেলার আগৈলঝাড়া উপজেলার রত্নপুর ইউনিয়নের দত্তেরাবাদ গ্রামে গণধর্ষণের শিকার হয়েছে এক গার্মেন্টস কর্মি। এ ঘটনায় সোমবার দিবাগত রাতে ওই নারি বাদি হয়ে থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ ওই রাতেই অভিযান চালিয়ে সহযোগী এক মহিলা ও দুই ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে। ধর্ষিতাকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য মঙ্গলবার সকালে শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরন করেছে পুলিশ।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, গৌরনদী উপজেলার বড় কসবা গ্রামের যুবতীর (১৯) সাথে সম্প্রতি সময়ে ঢাকায় বসে পরিচয়ের সূত্রধরে ঘনিষ্ঠ বন্ধুত্ব হয় গৌরনদীর উত্তর পালরদী গ্রামের জাহিদ হোসেনের (২৬)। জাহিদ হোসেন ওই যুবতীকে তার এক নিকট আত্মীয়র বাড়িতে বেড়াতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে গত রবিবার সন্ধ্যায় মাহিলাড়া গ্রামে নিয়ে তার বন্ধু কামরুল হাওলাদার ও সাঈদ সেরনিয়াবাতের সাথে পরিচয় করিয়ে দেন। ওইদিন রাত সাড়ে ১১টার দিকে জাহিদ হোসেন, কামরুল হাওলাদার ও সাঈদ সেরনিয়াবাত তিন বন্ধু যুবতীকে নিয়ে আগৈলঝাড়া উপজেলার রত্নপুর ইউনিয়নের দত্তেরাবাদ গ্রামের হুমায়ুন কবিরের স্ত্রী পুস্প বেগমের বাড়িতে যান। সেখানে ওই তিন বন্ধুর সাথে যুক্ত হন তাদের অপর সহযোগী স্বপন হাওলাদার, সুজন মিয়া, শাহাদাত ভূঁইয়াসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৩/৪ জন যুবক।

ধর্ষিতা অভিযোগ করেন, ওই যুবকেরা তাকে ভয়ভীতি দেখিয়ে সেখানে পালাক্রমে ধর্ষণ করে আটক করে রাখে। সোমবার গভীর রাতে পালিয়ে ধর্ষিতা আগৈলঝাড়া থানায় উপস্থিত হয়ে ৭ জনের নাম উল্লেখসহ ৮/১০ জনের বিরুদ্ধে একটি গণধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। আগৈলঝাড়া থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, ঘটনায় জড়িত প্রধান আসামি সাঈদ সেরনিয়াবাত, শাহাদাত হোসেন মৃধা ও সহযোগী পুস্প বেগমকে গ্রেফতার করে মঙ্গলবার সকালে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।