১৫ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ইরাকে মাস্টার্ড গ্যাস ব্যবহার করেছিল আইএস জঙ্গীরা

  • আন্তর্জাতিক তদন্তে তথ্য প্রকাশ

ইরাকে কুর্দি রাজধানী আরবিলের কাছে গত বছর দুটি হামলায় মাস্টার্ড গ্যাস ব্যবহার করা হয়েছিল। বিশ্বের রাসায়নিক অস্ত্র পর্যবেক্ষণ প্রতিষ্ঠান সোমবার এ কথা বলেছে। খবর এএফপির।

পরিচয় প্রকাশ না করার শর্তে এক সূত্র জানায়, ঐ হামলায় ব্যবহৃত কিছু নমুনা পরীক্ষা করে মাস্টার্ড গ্যাস ব্যবহারের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। ইরাকী সরকারের হেগ-ভিত্তিক রাসায়নিক অস্ত্র নিষিদ্ধকরণ বিষয়ক সংস্থার সহযোগিতায় ২০১৫ এর হামলার তদন্তের মুখে এ তথ্য বেরিয়ে এলো। অন্যদিকে ইসলামিক স্টেটের (আইএস) জঙ্গীদের স্বল্প পরিমাণ ক্লোরিন ও মাস্টার্ড গ্যাস তৈরির সক্ষমতা রয়েছে এবং তারা যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়া ও ইরাকে মাস্টার্ড গ্যাস ব্যবহার করেছে বলে এক মার্কিন কর্মকর্তার উক্তির পর এ তথ্য জানা গেল। ইরাকী কুর্দি কর্তৃপক্ষ গত বছর বলেছে, আইএস যোদ্ধারা ১১ আগস্ট আরবিলের দক্ষিণ-পশ্চিমে রণাঙ্গন শহর গিউর ও মাখমুরে দুটি হামলা চালিয়েছে। এ সময় মর্টার থেকে ৫০টি গোলাবর্ষণ করা হয়।

পেশমাগা বিষয়ক মন্ত্রণালয় বলেছে, ৩৭টি গোলাবর্ষণের বিস্ফোরণ থেকে এক ধরনের সাদা ধূলো ও কালো তরল পদার্থ ছড়িয়ে পড়ে। ৩৫ পেশমাগা যোদ্ধাকে সেখানে আহত অবস্থায় পাওয়া যায় এবং এদের মধ্যে কয়েকজনকে চিকিৎসার জন্য নেয়া হয়। মন্ত্রণালয় বলেছে, রক্তের নমুনা পরীক্ষা করে দেখা যায় যে, ঐ হামলায় মাস্টার্ড গ্যাস ব্যবহার করা হয়েছে, কিন্তু সন্দেহজনক এ গ্যাসের উৎস স্পষ্ট নয়। এর আগে ইরাকের প্রতিবেশী সিরিয়ায় মাস্টার্ড গ্যাস ব্যবহার করা হয়েছে বলে অক্টোবরে জানিয়েছিল ওপিসিডব্লিউ।

কমে যাচ্ছে জাপানের জিডিপি

জাপান কিছুতেই মন্দা কাটিয়ে উঠতে পারছে না। ক্রমশ দুর্বল হয়ে পড়ছে দেশটির অর্থনীতি। বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম এই অর্থনীতির দেশ মোট দেশজ উৎপাদন (জিডিপি) হ্রাস পাওয়ার খবর জানিয়েছে।

২০১৫ সালে বছরের শেষ ভাগ অক্টোবর-ডিসেম্বরে দেশটির অর্থনীতি সঙ্কুচিত হয়েছে দশমিক ৪ শতাংশ, যা ধারণার চেয়ে দশমিক ১ শতাংশ বেশি। জাপানের মন্ত্রিপরিষদ কার্যালয় জানিয়েছে, তিন ভাগে প্রবৃদ্ধি অর্জনের চেষ্টা নেয়া হয়। অক্টোবর থেকে ডিসেম্বরে ঋণাত্মক প্রবৃদ্ধির হার ধরা হয়েছিল ১ দশমিক ২ শতাংশ। কিন্তু তা ১ দশমিক ৪ শতাংশে উপনীত হয়, যা অর্থনীতির জন্য হুমকিস্বরূপ। মাত্র দুই সপ্তাহ আগে দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাংক (জেপিবি) অর্থনীতির গতি বাড়াতে ব্যাংকগুলোতে ঋণাত্মক ঋণ প্রথা চালু করে। যার উদ্দেশ্য ছিল, দেশের অলস পড়ে থাকা অর্থ কোম্পানিগুলো কাজে লাগানোর সুযোগ করে দেয়া। -ওয়েবসাইট