২১ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রাজশাহীতে বিএনপি-জামায়াত ছাড়ছে নেতাকর্মীরা

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ বিএনপি-জামায়াত ছাড়ার হিড়িক পড়েছে। গত ক’দিনে জেলার বিভিন্ন উপজেলায় কয়েক হাজার নেতাকর্মী আনুষ্ঠানিকভাবে বিএনপি-জামায়াত ছেড়ে ভিড়েছে আওয়ামী লীগে। যোগদানকারীদের তালিকায় পৌর নির্বাচনে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী ও সাবেক মেয়র ছাড়াও তৃণমূলের নেতারা রয়েছে। অনেক জামায়াত সর্মথকও এখন আওয়ামী লীগে যোগ দিচ্ছে।

গত সোমবার রাজশাহীর কাকনহাট পৌর এলাকার অন্তত ২ হাজার বিএনপি-জামায়াত নেতাকর্মী ও সমর্থক আনুষ্ঠানিকভাবে আওয়ামী লীগে যোগ দিয়েছেন। এর মধ্যে দেড় হাজার নারীও রয়েছে। আগে এরা বিএনপি জামায়াতের ছায়ায় থাকলেও আওয়ামী লীগের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যের প্রতি অবিচল থাকার শপথ নিয়েছে।

সোমবার বিকেলে রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার কাকনহাট পৌরসভা মিলনায়তনে আওয়ামী লীগে যোগদান অনুষ্ঠানে জামায়াত বিএনপিসহ বিভিন্ন দল থেকে আসা নেতাকর্মীরা শপথ নিয়েছেন। তাদের শপথবাক্য পাঠ করান কাকনহাট পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি মেয়র আব্দুল মজিদ মাস্টার। শপথের লিখিত কপি সবাইকে দেয়া হয়। তবে যোগদানকারীদের মধ্যে জামায়াতের কোন নেতাকর্মী নেই বলে দাবি করেছে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতারা। পৌরসভার মেয়র আব্দুল মজিদ মাস্টারের সভাপতিত্বে যোগদান অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন গোদাগাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি বদিউজ্জামান, গোদাগাড়ী পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি অয়েজ উদ্দীন বিশ্বাস, জেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি আশরাফুল হক ওসমান, যুগ্ম সম্পাদক খালেদ ওয়াসি কেটু প্রমুখ।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে জেলা বিএনপির এক নেতা জানান, বিএনপিতে এখন টানাপোড়েন চলছে। অনেক ত্যাগী নেতাকর্মীর পাশে দাঁড়ানো সম্ভব হচ্ছে না। তাই সুবিধাভোগীরা নিজেদের বাঁচাতে বিএনপি ছাড়ছে।

যশোরে ন্যাপ অফিস দখল

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস ॥ গাড়িখানা সড়কের ৪০ পরিবারকে উচ্ছেদের পর এবার জেলা ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টির (ন্যাপ) অফিস দখল করেছে পুলিশ। জেলা প্রশাসন থেকে বরাদ্দ ‘বিরোধপূর্ণ’ ওই জমি থেকে অফিসটি উচ্ছেদ করেছে পুলিশ। এর আগে পুলিশের অব্যাহত হুমকি ধমকি ও ভয়ভীতি দেখিয়ে ওই জমি থেকে ৪০টি পরিবারকে উচ্ছেদ করে দেয়। তবে ‘বিরোধপূর্ণ’ এই জমিটি নিয়ে জেলা প্রশাসন আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে বলে সূত্র জানিয়েছে।

ন্যাপ যশোর জেলা সভাপতি মাস্টার নূর জালাল জানান, ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ মোজাফফর) দীর্ঘ ৭০ বছর ধরে জনগণের স্বার্থ সংরক্ষণে আন্দোলন সংগ্রাম করে আসছে। যশোরে গাড়িখানা রোডে সংগঠনটির জেলা অফিস রয়েছে দীর্ঘ ৪০ বছর ধরে।

কিন্তু পুলিশ কোন ধরনের নোটিস বা আইনী প্রক্রিয়া ছাড়াই জেলা ন্যাপ অফিস দখল করে নিয়েছে। পুলিশের এই দখল প্রক্রিয়ার তীব্র নিন্দা জানিয়ে ন্যাপ যশোর জেলা সভাপতি মাস্টার নূর জালাল ও সম্পাদক নাজিম উদ্দিন অবিলম্বে তাদের অফিস ফেরত দেয়ার দাবি জানিয়েছেন। একই সঙ্গে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য যশোরে ১৪ দলের সভা আহ্বানের আবেদন জানিয়েছেন।

তবে এ ব্যাপারে যশোর পুলিশের মুখপাত্র সহকারী পুলিশ সুপার মীর শাফিন মাহমুদ জানান, ওই অফিসের পক্ষে তাদের কোন বৈধ কাগজপত্র নেই। কাগজপত্র দেখালে এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নেয়া হবে।