২০ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ঝিনাইদহে যৌতুক দাবিতে গৃহবধূর চুল কর্তন

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঝিনাইদহ, ১৬ ফেব্রুয়ারি ॥ যৌতুকের দাবিতে বটি দিয়ে মাথার চুল কেটে দেয়া হয়েছে এক গৃহবধূর। এছাড়া প্রায়ই তার ওপর চালানো হতো শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার রাতে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার বলিদাপাড়া গ্রামে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার সকালে নির্যাতিত গৃহবধূ আয়েশা বেগম নিজেই কালীগঞ্জ থানায় শিশু ও নারি নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ স্বামী শাহিনুর বিশ্বাসকে গ্রেফতার করেছে।

নির্যাতিত গৃহবধূ আয়েশা বেগমের মা আমেনা খাতুন জানান, প্রায় ১২ বছর আগে কালীগঞ্জ উপজেলার বলিদাপাড়া গ্রামের সবদুল বিশ্বাসের ছেলে শাহিনুর বিশ্বাসের সঙ্গে তার মেয়ে আয়শা বেগমের বিয়ে হয়। বিয়ের পর মেয়ের সুখের কথা ভেবে জামাই শাহিনুরকে নগদ ১ লাখ ৫০ হাজার টাকার আসবাবপত্র দেয়া হয়। এরপরও সে টাকার জন্য চাপ দেয়। প্রায় মারধর করে মেয়েকে রেখে যায়। আবার সালিশ দরবার করে নিয়ে যায়। এবার সোমবার রাতে জামাই শাহিনুর বটি দিয়ে মেয়ের মাথার চুল কেটে দিয়েছে।

কালীগঞ্জ থানার ওসি আনোয়ার হোসেন বলেন, নির্যাতিত গৃহবধূ বলিদাপাড়া গ্রামের আয়ুব নবীর মেয়ে। তরকারি কাটা বটি দিয়ে স্বামী তার মাথার চুল কেটে দিয়েছে অভিযোগ করে তিনি থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার পর পুলিশ অভিযুক্ত স্বামী শাহিনুর বিশ্বাসকে গ্রেফতার করেছে।