২১ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

গ্র্যামিতে শব্দ ব্যবস্থাপনার বলি অ্যাডেল!

গ্র্যামিতে শব্দ ব্যবস্থাপনার বলি অ্যাডেল!

অনলাইন ডেস্ক॥ মেঝে ছোঁয়া লাল গাউন পরে মঞ্চে উঠলেন অ্যাডেল। হাতে মাইক্রোফোন। পরিকল্পনা অনুযায়ী নিজের ‘টোয়েন্টি ফাইভ’ অ্যালবামের ‘অল আই আস্ক’ গানটি গাইবেন তিনি। সামনে দর্শকসারিতে অনেক তারকা। আর টিভি পর্দায় কোটি কোটি দর্শকের চোখ।

কিন্তু যান্ত্রিক বিভ্রাটের কারণে তাদের কাছে বেখাপ্পা লাগলো অ্যাডেলের মতো গায়িকার কণ্ঠ! গত ১৫ ফেব্রুয়ারি লস অ্যাঞ্জেলসের স্টেপলস সেন্টারে অনুষ্ঠিত বিশ্বসংগীতের সবচেয়ে মর্যাদাসম্পন্ন আসর গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ডসে এমন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা হওয়ায় সবাই বিস্মিত। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে চলছে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা।

অ্যাডেলের পরিবেশনার প্রশংসা করলেও শব্দ ব্যবস্থাপনাকে ধুয়ে দিচ্ছেন দর্শক-শ্রোতারা। কেউ কেউ ক্ষোভ নিয়ে টুইট করেছেন, ২৭ বছর বয়সী এই গায়িকা গাওয়ার সময় শব্দ নিয়ে নিরীক্ষার সাহস হয় কীভাবে! কারও মতে, শব্দ ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে কর্মরতদের শাস্তি হওয়া উচিত।

আসলে কী হয়েছিলো? মঙ্গলবার সকাল ১০টা ৫৬ মিনিটে অ্যাডেল টুইটারে লিখেছেন, ‘পিয়ানোর মাইক্রোফোনটা পিয়ানো স্ট্রিংসের ওপর পড়ে যাওয়ায় গড়বড় হয়েছে। এ কারণে সুরের বাইরে চলে গেছে শব্দ। যাচ্ছেতাই ঘটনা এটা।’ ফলে সবচেয়ে কাঙ্ক্ষিত মুহূর্তটি গেছে ভেস্তে। এমন অপ্রীতিকর পরিস্থিতি থেকে ধীরে ধীরে নিজেকে সামলে নিচ্ছেন অ্যাডেল। ঘরে-বাইরে হাসিখুশি থাকার চেষ্টা করছেন।