২৩ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক গভীর : রওশন এরশাদ

অনলাইন ডেস্ক ॥ জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ বলেছেন, অতীতের যে কোনো সময়ের তুলনায় বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার সম্পর্ক অনেক গভীর ও উন্নত। আজ বুধবার দুপুরে বিরোধীদলীয় নেতার সাথে তাঁর গুলশানস্থ বাসভবনে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রীংলার সাক্ষাৎকালে তিনি এসব কথা বলেন।

রওশন এরশাদ বলেন, বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক শুধু ভাল বন্ধু ও প্রতিবেশীর নয় বরং বাংলাদেশ-ভারত একে অপরের উন্নয়ন অংশীদার। আর দু’দেশের পারস্পারিক সৌহার্দপূর্ণ সম্পর্ক ও যৌথ নেতৃত্বে এ অঞ্চলে শান্তি, স্থিতিশীলতা ও টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করে জনসাধারণের জীবনমানের পরিবর্তন সম্ভব।

বিরোধীদলীয় নেতা বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে বন্ধুপ্রতিম রাষ্ট্র ভারতের অবদানের কথা শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করে বলেন, ভারত অতীতে বাংলাদেশের প্রতি বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিল তা ভবিষ্যতে আরও সম্প্রসারিত হবে।

এ সময়ে হাইকমিশনার বলেন, বাংলাদেশের সাথে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক বৃদ্ধিকে ভারত সবসময়ই সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে আসছে। মহান মুক্তিযুদ্ধে এদেশকে ভারত যেভাবে সাহায্য সহযোগিতা করেছিল বাংলাদেশের বর্তমান শান্তি ও উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে ভারত অঙ্গীকারবদ্ধ। সংসদীয় গণতন্ত্রে বিরোধীদল কার্যকর ইতিবাচক রাজনৈতিক ধারার সূচনা করায় হাইকমিশনার ভারত সরকারের পক্ষে বিরোধীদলীয় নেতাকে ধন্যবাদ জানান।

বিরোধীদলীয় নেতা ভারতকে বাংলাদেশে আরও বিনিয়োগের আহ্বান জানালে হাইকমিশনার বলেন, বাংলাদেশে শিল্প, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি এবং অবকাঠামো উন্নয়নে ভারতের সরকারি- বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান আরও বেশি বিনিয়োগ করতে আগ্রহী। তিনি জাতীয় পার্টির সংসদীয় দলকে ভারতের পার্লামেন্ট পরিদর্শনের আমন্ত্রণ জানালে বিরোধীদলীয় নেতা দুই পক্ষের সুবিধাজনক সময়ে সফরের আগ্রহ প্রকাশ করেন।

সাক্ষাৎকালে জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ তাজুল ইসলাম চৌধুরী এমপি, ফখরুল ইমাম এমপি, জিয়াউদ্দিন বাবলু এমপি এবং ভারতীয় হাইকমিশনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

নির্বাচিত সংবাদ