১৭ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রাজশাহীতে শিশু নির্যাতন তিন আসামির জামিন ॥ বিক্ষোভ অব্যাহত

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ পবায় দুই স্কুলছাত্রকে নির্যাতনের পর ভিডিওচিত্র ধারণের ঘটনায় আরও তিন আসামির জামিন হয়েছে। বুধবার রাজশাহীর অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালতের (শিশু) বিচারক হায়দার আলী খন্দকার এ জামিন দেন। জামিনপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন ফজলুল মিয়া, রাকিব ও কমল। এর আগে মঙ্গলবার সিনিয়ার জুডিশিয়ার আদালত থেকে মামলাটি শিশু আদালতে পাঠানো হয়। তবে সোমবার তথ্য গোপন করে ওই আদালত থেকে এ মামলার দুই আসামি জামিন নিয়েছেন বলে জানান এপিপি রাশেদ উন নবী আহসান। এদিকে, শিশু নির্যাতনের ঘটনায় বিক্ষোভ অব্যাহত আছে। বুধবার এলাকাবাসী জড়ো হয়ে পবার দুয়ারি মোড়ে বিক্ষোভ করে। এছাড়াও বেসরকারী সংগঠন লফসের উদ্যোগে নির্যাতনকারীদের বিচারের দাবিতে নগরীর সাহেববাজার এলাকায় মাবনবন্ধন করে। মানববন্ধন কর্মসূচীতে থেকে অবিলম্বে শিশু নির্যাতনকারীদের বিচার দাবি করা হয়।

এর আগে মঙ্গলবার সকালে রাজশাহীর সিনিয়ার জুডিশিয়াল আদালত-১এ আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন মামলার ৭ আসামি। তবে নির্যাতিত শিশুদের একজনের বয়স ১৩ ও অপরজনের ১৪ বছর বিচারক একরামুল কবীরের নজরে আসায় আবেদনটি শুনানির জন্য গ্রহণ না করে মামলাটি শিশু আদালতে পাঠিয়ে দেন। তবে শিশু আদালত থেকে বুধবার আরও তিন আসামি জামিন পায়। প্রসঙ্গত, শুক্রবার পবার চৌবাড়িয়া এলাকার ফজলুর রহমানের ছেলে রাকিবের একটি মোবাইল ফোন চুরি হয়।

যুদ্ধাপরাধী ১৯৫ পাক সেনার বিচারে জাতি কলঙ্কমুক্ত হবে

চট্টগ্রামে সমাবেশ

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ একাত্তরের সেই ১৯৫ যুদ্ধাপরাধী পাক সেনার বিচারের মাধ্যমে বাঙালী জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করা হবে। তাদের বিচারের দাবিতে যে আন্দোলন শুরু হয়েছে তা সারাদেশে ছড়িয়ে দিতে হবে। যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে চলমান এ আন্দোলন বাঙালী জাতির দায়মুক্তির আন্দোলন।

বুধবার বিকেলে চট্টগ্রাম নগরীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আয়োজিত মুক্তিযোদ্ধা-জনতার সমাবেশে এ কথাগুলো বলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন। আন্তর্জাতিক যুদ্ধাপরাধ গণবিচার আন্দোলনের ব্যানারে পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদ চট্টগ্রামের সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ হায়দার চৌধুরীর সঞ্চালনায় এতে আরও বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম জেলা কমান্ডার সাহাব উদ্দিন, মহানগর কমান্ডার মোজাফফর আহমদ, চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, শিক্ষক নেতা আবু তাহের এবং বিভিন্ন শ্রেণী পেশা ও সংগঠনের প্রতিনিধিরা।

চসিক মেয়র আ জ ম নাছির তাঁর বক্তব্যে বলেন, আগামী ৩১ মার্চ ঢাকায় যুদ্ধাপরাধী পাক সেনাদের গণবিচারের প্রতীকী রায় হবে। এর আগে ২ মার্চ এ দাবিতে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্মারকলিপি দেয়া হবে।