২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

স্বাধীনতা পদক পাচ্ছেন কবি নির্মলেন্দু গুণ

স্বাধীনতা পদক পাচ্ছেন কবি নির্মলেন্দু গুণ

অনলাইন রিপোর্টার ॥ অবশেষে স্বাধীনতা পদক পাচ্ছেন কবি নির্মলেন্দু গুণ । রাষ্ট্রীয় সর্বোচ্চ এ পদক পাওয়ার ক্ষেত্রে এ বছরও প্রকাশিত তালিকায় নিজের নাম না থাকায় ক্ষুব্ধ কবি ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন। কবির এই স্ট্যাটাসের আলোকে বিভিন্ন গণমাধ্যমের সংবাদ প্রচার করে। ফলে পরবর্তীতে তা সরকারের নজরে আসে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে জানা গেছে, গণমাধ্যমের সংবাদের পরিপ্রেক্ষিতে বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নজরেও আসে। প্রধানমন্ত্রী মন্ত্রিপরিষদ বিভাগকে এ বিষয়ে পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দেন। এরপর রবিবার নির্মলেন্দু গুণকে স্বাধীনতা পদকের জন্য মনোনীত করে আদেশ জারি করা হয়েছে।

এ বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম জানিয়েছেন, ‘নির্মলেন্দু গুণকেও এবার স্বাধীনতা পদক দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। আগে ১৪ ব্যক্তি ও এক প্রতিষ্ঠানকে মনোননীত করা হয়েছিল। তাদের সঙ্গে নির্মলেন্দু গুণকেও পদক দেওয়া হবে।’

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ গত ৭ মার্চ এবারের স্বাধীনতা পদকের জন্য অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, পাটের জিন নকশা উন্মোচনকারী প্রয়াত বিজ্ঞানী মাকসুদুল আলম, রবীন্দ্র সংগীত শিল্পী রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যাসহ ১৪ বিশিষ্ট ব্যক্তি এবং বাংলাদেশ নৌবাহিনীর নাম ঘোষণা করে।

ওই তালিকায় নাম না আসায় ১০ মার্চ ফেইসবুকে ক্ষোভের প্রকাশ ঘটান কবি নির্মলেন্দু গুণ।

তিনি লিখেেছিলেন, ‘আমার একদা সহপাঠিনী, বাংলাদেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিচার দৃষ্টে আমি প্রথম কিছুকাল অবাক হয়েছিলাম- কিন্তু আজকাল খুবই বিরক্ত বোধ করছি। অসম্মানিত বোধ করছি। ক্ষুব্ধ বোধ করছি।’ ষাটের দশকের শেষ দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে একই ব্যাচের শিক্ষার্থী ছিলেন শেখ হাসিনা ও নির্মলেন্দু গুণ।

কবি লিখেছেন, ‘আমাকে উপেক্ষা করার বা কবি হিসেবে সামান্য ভাবার সাহস যার হয়, তাকে উপেক্ষা করার শক্তি আমার ভিতরে অনেক আগে থেকেই ছিল, এখনও রয়েছে।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ২৪ মার্চ ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে ১৫ ব্যক্তি ও এক প্রতিষ্ঠানকে এই সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় পুরস্কারে ভূষিত করবেন।

নির্বাচিত সংবাদ