২৩ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নিকলীতে ৩৩ দরিদ্র গাভী চাষী পরিবারের ভাগ্যন্নয়ন

নিকলীতে ৩৩ দরিদ্র গাভী চাষী পরিবারের ভাগ্যন্নয়ন

নিজস্ব সংবাদদাতা, কিশোরগঞ্জ ॥ ‘সংসার সুখের হয় নারীর গুণে’-এ ধারনা থেকেই হাওড়ের নারীরা সংসারে সচ্চলতা আনতে দিন-রাত স্বামীর সঙ্গে সমানতালে খেটে যাচ্ছেন। নিরক্ষর-অক্ষরজ্ঞান এসব নারীদের অধিকাংশের পরিণত বয়সের আগেই বিয়ে হয়ে গেছে। বছর যেতে না যেতেই তাদের অভাবের সংসারে জন্ম নিয়েছে শিশুসন্তান। এ অবস্থায় দিশেহারা হয়ে পড়ে হতদরিদ্র পরিবারগুলো। কিন্তু কোনোকিছুতেই তারা দমে যায়নি। গৃহস্থালি কাজের পাশাপাশি নারীরাই দিনমজুর স্বামীকে সংসার চালানোয় অগ্রণী ভূমিকা পালন করে যাচ্ছেন। জেলার নিকলী উপজেলার গুরুই ইউনিয়নের প্রত্যন্ত হাওড়ের সেতরা ও পাড়াবাজিতপুর গ্রামের হতদরিদ্র ৩৩ পরিবারের চিত্রই এমন।

রিকল প্রকল্পের সমন্বয়কারী মোশারফ হোসেন খান জানান, প্রত্যন্ত হাওড়ের অবহেলিত নারীদের সংসারে সচ্চলতা আনতে বেছে বেছে গাভী ক্রয়ের জন্য নগদ টাকা দেওয়া হয়েছে। এসব গাভীগুলোর দুধ মিল্ক ভেল্যু চেইনের মাধ্যমে একত্রিত করে একই স্থানে নিয়ে বিক্রির ব্যবস্থা করা হয়েছে। যাতে করে দরিদ্র পরিবারগুলো দুধ বিক্রির যথাযথ মূল্য পায়। এছাড়া স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতায় সংস্থাটি অনগ্রর নারীদের জুড়ি চুমকি ট্রেনিং দিয়ে কর্মের ব্যবস্থা করেছে।

নির্বাচিত সংবাদ