১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

তুরস্কে দুই সাংবাদিকের বিচার শুরু হচ্ছে

তুরস্কে গুপ্তচরবৃত্তি ও অন্যান্য গুরুতর অপরাধের অভিযোগে শীর্ষস্থানীয় দুই সাংবাদিকের বিচার শুরু হচ্ছে। সিরিয়ার সংঘাতে তুরস্কের ভূমিকা সম্পর্কে একটি প্রতিবেদন প্রকাশের ঘটনায় তাদের যাবজ্জীবন কারাদ- হতে পারে। প্রেসিডেন্ট রিসেফ তাইপ এরদোগান প্রতিবেদনের বিষয়ে ক্ষুব্ধ হয়েছেন। খবর এএফপির।

কুমহুরিয়াত সংবাদপত্রের প্রধান সম্পাদক কান দুনদার ও আঙ্কারা ব্যুরো প্রধান এরদেম গুলকে ‘গুপ্তচরবৃত্তির জন্য’ রাষ্ট্রীয় গোপন তথ্য ফাঁস, ‘সহিংস’ উপায়ে সরকার উৎখাত এবং ‘একটি সশস্ত্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠীকে’ সহায়তা করার অভিযোগে ইস্তাম্বুলে একটি আদালতে হাজির করা হবে। গত মে মাসে সরকারবিরোধী শীর্ষ সংবাদপত্রে এ প্রতিবেদন প্রকাশের ঘটনায় ওই দুই সাংবাদিক তিন মাস ধরে আটক রয়েছেন। প্রতিবেদনে অভিযোগ করা হয়, সিরিয়ায় বিদ্রোহীদের কাছে অবৈধভাবে অস্ত্রের চালান পাঠাতে চায় সরকার।

এ প্রতিবেদন আলোড়ন সৃষ্টি করে এবং সিরিয়ার সংঘাতে সরকারের ভূমিকা ও দেশটিতে ইসলামপন্থী সংগঠনগুলোর সঙ্গে সরকারের কথিত সম্পর্ক নিয়ে জল্পনা বৃদ্ধি পায়। এরদোগান ব্যক্তিগতভাবে দুনদারকে সতর্ক করে দেন যে তাকে এ প্রতিবেদনের জন্য ‘চরম মূল্য’ দিতে হবে।

প্রসিকিউটররা ওই দুই সাংবাদিকের দুবার যাবজ্জীবন ও আরও অতিরিক্ত ৩০ বছরের কারাদ- চেয়েছেন।

এর আগে সাংবিধানিক আদালত দুই সাংবাদিকের বাকস্বাধীনতার অধিকার লঙ্ঘন করা হয়েছে বলে রায় দেয়ার পর গত ২৬ ফেব্রুয়ারি তাদের কারাগার থেকে মুক্তি দেয়া হয়েছিল। তাদের মুক্তিতে তুরস্কের নেতা ক্ষুব্ধ হয়েছিলেন। তিনি ১৩ বছর ধরে ক্ষমতায় রয়েছেন। তিনি ঘোষণা দিয়েছিলেন, আদালতের রায়ের প্রতি তিনি ‘কোন সম্মান’ দেখাতে পারছেন না। এমনকি তিনি আদালতের বেঞ্চ ভেঙে দেয়ারও হুমকি দিয়েছিলেন।